Trust Vote:প্রধানমন্ত্রীর চেয়ার টিকে গেল ইমরান খানের

Trust Vote:প্রধানমন্ত্রীর চেয়ার টিকে গেল ইমরান খানের

টিকে গেলেন ইমরান খান

পেয়েছেন ১৭৮ ভোট। মাত্র ছয় ভোটে জিতে নিজের প্রধানমন্ত্রিত্ব টিকিয়ে রাখলেন তিনি

  • Share this:

    #ইসলামাবাদ: ভাগ্য ভাল ইমরান খানের। নাকের ডগা দিয়ে গুলি বেরিয়ে গেল। সব জল্পনা-কল্পনার আপাতত অবসান। আস্থা ভোটে জেতার জন্য ইমরানের প্রয়োজন ছিল ১৭২ ভোট, তিনি পেয়েছেন ১৭৮ ভোট। মাত্র ছয় ভোটে জিতে নিজের প্রধানমন্ত্রিত্ব টিকিয়ে রাখলেন তিনি। মুখে চুন কালি লাগা থেকে কোনও মতে রক্ষা পেলেন তিনি। তবে বিরোধী দল এ ভোটের ফলাফল বর্জন করেছে। সরকারের অর্থমন্ত্রী সিনেট আসনে এ সপ্তাহের প্রথমদিকে হেরে যাওয়ার পর ইমরান খান নিজে থেকেই সংসদে আস্থা ভোটের আয়োজন করেন।

    দেশের মুদ্রাস্ফীতি চরমে। চিন এবং তুরস্ক ছাড়া কোনও দেশ পাশে নেই। জঙ্গি কার্যকলাপে যুক্ত থাকার অভিযোগে FATF ধূসর তালিকায় নাম কাটা যায়নি। উল্টে কালো তালিকাভুক্ত হওয়ার সম্ভাবনা বেড়েছে। দেখে বোঝাই যাচ্ছে নিজের দেশের মানুষের আস্থা নেই প্রাক্তন ক্রিকেটার অধিনায়কের ওপর। দেশের মানুষের আর্থিক দুরবস্থা, দেশের গর্ব ফতিমা জিন্নার নামক পার্ক বন্ধক রাখা, করোনা পরিস্থিতি সামলানোর ক্ষেত্রে ব্যর্থ ইমরান সরকার। তাই পায়ের তলার মাটি সরে যাচ্ছে পাকিস্তান ক্রিকেটের প্রাক্তন মহানায়কের।

    ইমরান অবশ্য প্রতিনিয়ত তুরস্ক এবং চিনকে পাশে নিয়ে ভারতকে হুমকি দিতে ছাড়েন না। কিন্তু আসল সত্যটা ক্রমশ সামনে এসে পড়ছে। বিরোধী শিবির ইমরানের অযোগ্যতা নিয়ে ঝড় তুলেছে পাকিস্তানে। রায় শোনার পর ইমরান তুলোধোনা করতে ছাড়েননি প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ এবং বেনাজির ভুট্টোর স্বামী আসিফ আলি জারদারিকে। তাঁদের চোর সম্বোধন করেন তিনি।

    পাশাপাশি তিনি দায়িত্ব নিয়ে দেখবেন এমন অসাধু ব্যক্তিরা যেন কখনই প্রধানমন্ত্রীর চেয়ারে বসতে না পারে, এমন হুমকি দিতে ছাড়েননি তিনি। পশ্চিমী দুনিয়ার উদ্দেশ্যে তিনি বার্তা দিয়ে বলেছেন জঙ্গি দমন করার ক্ষেত্রে প্রচন্ড দ্রুততার সঙ্গে কাজ করছে তাঁর প্রশাসন। খুব তাড়াতাড়ি একটি তালিকা প্রকাশ করে সেনার বিভিন্ন সফল অপারেশনের কথা তুলে ধরবেন তিনি।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published: