Home /News /international /
Gold: পার্কে অবহেলায় পড়ে ৮ কোটির খাঁটি সোনার পাত্র, হতবাক স্থানীয়রা

Gold: পার্কে অবহেলায় পড়ে ৮ কোটির খাঁটি সোনার পাত্র, হতবাক স্থানীয়রা

এই সোনার পাত্রটি বানাতে লেগেছে আট কোটির বেশি টাকার সোনা

  • Share this:

    #নিউ ইয়র্ক: কথায় বলে, যা চকচক করে তাই সোনা নয়! কিন্তু শহরের পার্কে যে বস্তুটি পড়ে ছিল, তা এক্কেবারে খাঁটি সোনা (Gold)! পার্কে পড়েছিল খাঁটি ২৪ ক্যারাট সোনার তৈরি একটি পাত্র, ওজন ১৮৬ কিলোগ্রাম! এবার নিশ্চয়ই মনে হচ্ছে, প্রকাশ্যে এহেন মহামূল্যবান একটি জিনিস পড়ে রয়েছে, অথচ কেউ তা চুরি করে নিয়ে পালাচ্ছে না? ওহো, গেড়ো তো সেখানেই!

    আরও পড়ুন: জীবনে এল নতুন ভালোবাসা! ডিভোর্সি মা সম্পর্কে জড়িয়ে পড়তেই বাজার কাঁপাল ছেলে...

    পার্কে অবহেলায় পড়ে রয়েছে খাঁটি সোনার (Gold) তৈরি ১৮৬ কিলোগ্রাম ওজনের একটি পাত্র, অথচ কেউ তাকে ছুঁতেও পারবে না! কেন? তবে খোলসা করেই বলা যাক! আপনার মনে হতেই পারে, চোখের সামনে এমন অনাদরে পড়ে রয়েছে সোনা, না হয় একটু ছুঁয়েই দেখা যাক, চারপাশে তো কেউ নেই-ও যে পাকড়াও করবে! কিন্তু যেই না আপনি পাত্রটি ছোঁবেন, ধেয়ে আসবে লুকিয়ে থাকা পুলিশ বাহিনী। আসলে কঠিন নিরাপত্তার বেড়াজালেই রয়েছে সোনার পাত্রটি, তবে আপাত দৃষ্টিতে মনে হবে পার্কে অবহেলায় পড়ে রয়েছে সেটি, কারণ পুলিশেরা সবাই আড়াল থেকে পাত্রটির উপর নজর রাখছে।

    আরও পড়ুন: তালিবান রিহ্যাব সেন্টারে মানুষের মাংস খাচ্ছে মানুষ! ভয়ঙ্কর অবস্থা

    নিউ ইয়র্কের জনপ্রিয় সেন্ট্রাল পার্কে বুধবার সারা দিন ধরেই এই সোনার পাত্রটি পড়ে ছিল। জার্মান শিল্পী নিকোলাস কাস্টেলো এই সোনার ঘনকাকৃতির পাত্রটি তৈরি করেছেন। একটি আসন্ন ক্রিপ্টো মুদ্রা কাস্টেলো কয়েনের জন্য অভিনব প্রচারের পন্থা হিসেবেই এই সোনার পাত্রটি সেন্ট্রাল পার্কে রাখা হয়েছিল। নিকোলাস জানান, '' এর আগে কখনও এত সোনা দিয়ে কোনও বস্তু বানানো হয়নি। আমাদের পৃথিবী অমূল্য এবং অধরা। আর এটাই ছিল আমার সৃষ্টির নেপথ্যের মূল ভাবনা।’’

    জানা যায়, এই সোনার পাত্রটি বানাতে লেগেছে আট কোটির বেশি টাকার সোনা। ৪৩ বছর বয়সী শিল্পী নিকোলাস এও জানান, পাত্রটি তিনি কখনও বিক্রি করবেন না। সোনার পাত্রটি একদিন বাদেই পার্ক থেকে সরিয়ে নেওয়া হয়। তার পর সেটিকে একটি ডিনার পার্টিতে নিয়ে যাওয়া হয়, অতিথিদের দেখানোর জন্য! মূলত সেই পার্টিতে সেলেব্রিটিরাই হাজির ছিলেন।

    Published by:Rukmini Mazumder
    First published:

    Tags: Gold

    পরবর্তী খবর