আকাশছোঁয়া আটার দাম, এক বেলাও পাতে রুটি পাওয়া নিয়ে আশঙ্কায় পাকিস্তান

আকাশছোঁয়া আটার দাম, এক বেলাও পাতে রুটি পাওয়া নিয়ে আশঙ্কায় পাকিস্তান

এক কেজি আটার দাম রবিবার দাঁড়িয়েছে ৬২ টাকা ৷ কোনও কোনও রাজ্যে তো এক কেজি আটার জন্য ৭০ টাকারও বেশি দাম চাইছেন বিক্রেতারা ৷

  • Share this:

#ইসলামাবাদ: অর্থনীতির বেহাল অবস্থা ৷ একইসঙ্গে পাল্লা দিচ্ছে মূল্যবৃদ্ধি ৷ পেট্রোল-ডিজেলই শুধু নয়, দুধ, টমেটোর মতো রোজকার অত্যাবশকীয় খাবারের আকাশছোঁয়া দামে প্রায় আধপেটা খেয়েই দিন কাটাচ্ছেন দেশবাসী ৷ এবার গোদের উপর বিষফোঁড়া ৷ আটার দামে হাতে ছ্যাঁকা ৷ এক কেজি আটার দাম রবিবার দাঁড়িয়েছে ৬২ টাকা ৷ কোনও কোনও রাজ্যে তো এক কেজি আটার জন্য ৭০ টাকারও বেশি দাম চাইছেন বিক্রেতারা ৷ গত এক সপ্তাহে প্রতি কিলো আটার দাম পাঁচ টাকা করে বেড়েছে ৷ মূল্যবৃদ্ধির ঘটনায় নাজেহাল পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান ৷ তার সরকারের দাবি, এই খবর সর্বৈব মিথ্যে ৷ সরকারি গুদামে এখনও প্রচুর গম মজুদ আছে তাই চাহিদা ও উৎপাদনের মধ্যে কোনও ভারসাম্য নষ্ট হওয়ার ঘটনা ঘটেনি ৷ অন্যদিকে, তিনি অবিলম্বে আটার দাম নিয়ন্ত্রণে আনার নির্দেশ দিয়েছেন প্রশাসনকে ৷ মূল্যবৃদ্ধির এই ঘটনায় পাঞ্জাব প্রদেশের ক্রুদ্ধ একাধিক দল সরকারকে পাঁচদিনের সময় দিয়েছে ৷ এর মধ্যে দাম নিয়ন্ত্রণে না আনা হলে অনির্দিষ্টকালের জন্য হরতালের হুমকিও দিয়েছেন তারা ৷ পাকিস্তানের খাইবার পাখতুনখোয়ার একটি সংগঠনও সোমবার ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে ৷ পাকিস্তানের এক সংবাদমাধ্যমের প্রকাশিত খবর অনুযায়ী, মাসখানেক আগেও পাকিস্তানের করাচিতে ৪৫০ টাকায় ১০ কেজি আটা পাওয়া যেত ৷ সেখানে এখন ১০ কিলো আটার জন্য দিতে হচ্ছে ৬২০ থেকে ৭০০ টাকা ৷ আটার দাম বাড়ার আসল কারণ হিসেবে আচমকা গমের দাম বেড়ে যাওয়াকেই দায়ী করছেন  বিক্রেতারা  ৷ এর পরই অ্যাসোসিয়েশনের তরফে প্রতি কিলো আটার দাম ছ’টাকা করে বাড়িয়ে দেওয়ার কথা ঘোষণা করা হয় ৷ এতেই সাধারণ মানুষের পাতে এখন রুটির দেখা পাওয়া দুলর্ভ ৷ অন্যদিকে, রুটি ও নানের দাম বাড়ানোর অনুমতি চেয়ে রেস্তোরাঁ ও ধাবা মালিকেরা রাজ্য সরকারের দ্বারস্থ ৷ দাম বাড়াতে না দেওয়া হলে আন্দোলনে নামার হুঁশিয়ারিও দিয়েছেন তারা ৷ বিগত ১৭ বছরের সব থেকে খারাপ অর্থনৈতিক সঙ্কট দেখা দিয়েছে পাকিস্তানে ৷

First published: January 19, 2020, 8:58 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर