• Home
  • »
  • News
  • »
  • international
  • »
  • চট্টগ্রামে পদপিষ্ট হয়ে ১০ জনের মর্মান্তিক মৃত্যু, ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন

চট্টগ্রামে পদপিষ্ট হয়ে ১০ জনের মর্মান্তিক মৃত্যু, ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন

পদপিষ্ট হয়ে ১০ জনের মৃত্যু

পদপিষ্ট হয়ে ১০ জনের মৃত্যু

চট্টগ্রামে পদপিষ্ট হয়ে ১০ জনের মর্মান্তিক মৃত্যু, ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন

  • Share this:

    #ঢাকা: চট্টগ্রামে কুলখানিতে মহানগর আওয়ামি লিগের সভাপতি ও সাবেক মেয়র মহিউদ্দিনের কুলখানি অনুষ্ঠানে যোগ দিতে এসে পদপিষ্ট হয় মৃত্যু হয় ১০ জন ব্যক্তির ৷ কমপক্ষে ৫০ জনেরও বেশি মানুষ আহত হন ৷ মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা ৷ মর্মান্তিক এই ঘটনার কারণ অনুসন্ধানে তদন্ত কমিটি গঠনের নির্দেশ দিয়েছে জেলা প্রশাসন ৷

    চট্টগ্রামের প্রাক্তন মেয়র এবং চট্টলার বীর বলেপরিচিত আওয়ামি লিগ নেতা মহিউদ্দিন চৌধুরীর মৃত্যু হয় ১৪ ডিসেম্বর ৷ তাঁর স্মৃতিচারণে সোমবার ১৪টি কমিউনিটি সেন্টারে অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিল ৷ এর মধ্যে চট্টগ্রাম মহানগরীর আসকারদীঘি এলাকায় রিমা কমিউনিটি সেন্টারে দুর্ঘটনাটি ঘটে ৷ প্রত্যক্ষদর্শীদের মতে, অতিরিক্ত ভিড়ের কারণে ধাক্কাধাক্কিতে বহু মানুষ পড়ে যান এবং ঢোকার হুড়োহুড়িতে পেছনের মানুষ তাদের মাড়িয়ে চলে যান ৷ এর ফলেই পদপিষ্ট হয়ে ১০ জনের মৃত্যু হয় ও পঞ্চাশেরও বেশি মানুষ আহত হন ৷

    আসকারদীঘির রিমা কমিউনিটি সেন্টারে মুসলিম ছাড়া অন্যান্য ধর্মাবলম্বীদের জন্যই ব্যবস্থা করা হয়েছিল ৷ কিন্তু তা সত্ত্বেও নির্ধারিত ধর্মাবলম্বী মানুষরা ছাড়াও ওই সেন্টারে অন্যরাও ভিড় জমিয়ে ছিলেন ৷ তাতেই জায়গার অতিরিক্ত মানুষ চলে আসায় ঢোকার জন্য হুড়োহুড়ি পড়ে যায় তাতেই ঘটে দুর্ঘটনা ৷

    দুর্ঘটনা সম্পর্কে চট্টগ্রামের পুলিশ কমিশনার ইকবাল বাহার জানিয়েছেন, কমিউনিটি সেন্টারটির গেট দিয়ে ঢোকার পথ অপ্রশস্ত ও ঢালু হওয়ায় পিছনের ভিড়ের চাপে টাল সামলাতে না পড়ে সামনের বহু মানুষ পড়ে যায় ৷ এতেই দুর্ঘটনা ৷ সিএমপি কমিশনারের যুক্তি, পর্যাপ্ত পুলিশ ও স্বেচ্ছাসেবক থাকা সত্ত্বেও অতিরিক্ত ভিড়ের চাপের কারণেই পরিস্থিতি সামাল দেওয়া যায়নি ৷

    জেলাপ্রশাসন ঘটনায় গাফিলতি ও আসল কারণ সন্ধানে তদন্ত কমিটি গঠন করে সাত দিনের মধ্যে রিপোর্ট জমা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে ৷

    ইতিমধ্যেই আওয়ামি লিগ নিহতদের পরিবারকে ১ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছে ৷ একইসঙ্গে আহতদের চিকিৎসার সমস্ত ব্যয়ভার ও দায়িত্ব নিজেদের কাঁধে তুলে নিয়েছে আওয়ামি লিগ ৷

    First published: