Home /News /international /

Amritpal Singh Maan : অতিমারিকালে লক্ষ লক্ষ আনাহারীকে খাবার, ব্রিটেনের রানির কাছে সম্মানিত ভারতীয় বংশোদ্ভূত রেস্তঁরা-মালিক

Amritpal Singh Maan : অতিমারিকালে লক্ষ লক্ষ আনাহারীকে খাবার, ব্রিটেনের রানির কাছে সম্মানিত ভারতীয় বংশোদ্ভূত রেস্তঁরা-মালিক

মানবিকতার নজির তৈরি করে ভূষিত হলেন অমৃতপাল

মানবিকতার নজির তৈরি করে ভূষিত হলেন অমৃতপাল

কাজের স্বীকৃতিস্বরূপ অমৃতপালকে ভূষিত করা হল ‘অর্ডার অব দ্য ব্রিটিশ এম্পায়ার’ বা ‘ওবিই’-তে (Order of the British Empire or OBE)

  • Share this:

    লন্ডন : লন্ডনের ভারতীয় বংশোদ্ভূত রেস্তরাঁ-মালিক অমৃতপাল সিং মানকে (Amritpal Singh Maan ) সম্মানিত করলেন ব্রিটেনের রানি (British Queen)৷ মানবিকতার নজির তৈরি করে ভূষিত হলেন অমৃতপাল৷ করোনা ভাইরাসের অতিমারির শুরুর দিন থেকে তিনি ২ লক্ষেরও বেশি ফুডমিলের প্যাকেট দান করেছেন৷ তাঁর এই কৃতিত্বের স্বীকৃতি স্বরূপ তিনি ছিলেন রানির ‘নিউ ইয়ার অনার্স তালিকা’-য়৷ মানুষের জন্য তাঁর কাজের স্বীকৃতিস্বরূপ অমৃতপালকে ভূষিত করা হল ‘অর্ডার অব দ্য ব্রিটিশ এম্পায়ার’ বা ‘ওবিই’-তে (Order of the British Empire or OBE) ৷ গত কয়েক বছর ধরে মানবিকতার বিরল নজিরের জন্য সকলেই আলাদা চোখে দেখেন অমৃতপাল মান-কে৷ লন্ডনের কনভেন্ট গার্ডেন এলাকায় পঞ্জাব রেস্তরাঁর তিনি এমডি৷ ভারতের স্বাধীনতারও ১ বছর আগে ১৯৪৬ সালে এই ব্যবসা শুরু করেছিলেন তাঁর প্রপিতামহ৷

    তাঁর এই সম্মানপ্রাপ্তির খবরে তিনি ভেসে গিয়েছেন উচ্ছ্বাস ও ধন্যবাদজ্ঞানের স্রোতে৷ সকল শুভার্থীকে অমৃতপাল ধন্যবাদ জানিয়েছেন তাঁর ট্যুইটার হ্যান্ডলে৷ বলেছেন, ‘‘এটা তাঁদের জন্য যাঁরা সামনে এসে আমার মধ্যে সেবাপরায়ণতা জাগিয়ে তুলেছেন৷’’

    আরও পড়ুন: বড়দিনে মোড়ক রাংতা-সহ 6 প্যাকেট চকোলেট খেয়ে রক্তবমি, জটিল অস্ত্রোপচারে নতুন জীবন পোষ্য সারমেয়র

    অতিমারি আবহে ব্রিটেনবাসীর মুখে খাবার তুলে দিতে এখনও অবধি ভারতীয় মুদ্রায় ১০ কোটি টাকা ব্যয় করেছেন অমৃতপাল৷ পাশাপাশি বিভিন্ন ইভেন্ট, প্রদর্শনী, বক্তৃতা-সহ বিভিন্ন আয়োজনের দয়িত্বপালন করেছেন তিনি৷

    আরও পড়ুন: ধাক্কা দিয়ে ফেলে বালকের উপর দিয়েই রানির রক্ষীদের টহল! ভিডিও দেখে হতবাক নেটদুনিয়া

    সংবাদসংস্থাকে অমৃতপাল জানিয়েছেন, তিনি যখন প্রথম ই-মেল পান এই বিরল সম্মানপ্রাপ্তির বিষয়ে, তিনি বিস্ময়ে বিশ্বাসই করতে চাননি! আরও জানিয়েছেন, রেস্তরাঁ তাঁর পারিবারিক ব্যবসা হলেও এই আচরণের মূল কথা হল মানবজাতির উদ্দেশে নিঃস্বার্থ সেবা৷ যে প্রজন্ম অতিমারি পরিস্থিতিতে আত্মত্যাগ করে ঝুঁকি নিয়েছেন, তাঁদের প্রতীক হয়ে তিনি এই পুরস্কার গ্রহণ করলেন বলে জানিয়েছেন অমৃতপাল৷

    শুধু রেস্তরাঁই নয়৷ গত কয়েক বছর ধরে অমৃতপাল উদ্যোগী হয়েছেন ব্রিটিশ পঞ্জাবি মিউজিশিয়ানদের জন্য৷ ইউনাইটেড কিংডম পঞ্জাব হেরিটেজ অ্যাসোসিয়েশনের তরফে অমনদীপ মাদরা-ও অভিনন্দিত করেছেন অমৃতপালকে৷ মাদরার কথায়, অন্যান্য ব্যবসায়ীদের কাছে অমৃতপাল হলেন আদর্শ৷ কয়েক দশক ধরে তাঁর নিঃস্বার্থ সেবা এই সম্মান তাঁকে এনে দিয়েছে বলে মত মাদরার৷

    Published by:Arpita Roy Chowdhury
    First published:

    Tags: Amritpal Mann, London, UK

    পরবর্তী খবর