বিদেশ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

৭ বছরের খুদের অনলাইন অর্ডারে দুই'য়ের বদলে এল ৪২ খানা লোভনীয় চিকেন কাটলেট! তুমুল ভাইরাল ভিডিও...

৭ বছরের খুদের অনলাইন অর্ডারে দুই'য়ের বদলে এল ৪২ খানা লোভনীয় চিকেন কাটলেট! তুমুল ভাইরাল ভিডিও...

৭ বছরের এক বালিকা অনলাইন ফুড অ্যাপের মাধ্যমে খাবার অর্ডার করেছিল। প্রযুক্তিগত সমস্যার জেরে ৪২ জন ডেলিভারি এজেন্ট তার বাড়িতে একই খাবার দিতে পৌঁছে যায়।

  • Share this:

#ফিলিপিন্স: অনলাইন অ্যাপের মাধ্যমে খাবারের অর্ডার দেয় না, এখন এমন মানুষ হাতে গোনা। আর আপনি অনলাইনে খাবার অর্ডার দিয়েছেন, তা নিয়ে কোনওদিন কোনও সমস্যার সম্মুখীন হননি, তাও বিরল। কখনও খাবার পেতে দেরী হওয়া, অন্য ঠিকানায় খাবার নিয়ে পৌঁছে যাওয়া, ঠাণ্ডা খাবার বাড়িতে পৌঁছনো,  বা প্যাকেজিংয়ে সমস্যাথাকায় খাবার পড়ে যাওয়া-এ সব তো লেগেই থাকে। সঙ্গে দোসর নিম্নমানের খাবার, কম বা বেশী খাবার নির্দিষ্ট স্থানে পৌঁছনো বা যে খাবার আপনি অর্ডারই দেননি, তা আপনার কাছে পৌঁছে যাওয়া। তবে এ দিন যে ঘটনা ঘটেছে, তা একেবারেই বিরল। বলা ভাল পৃথিবীতে এমন ঘটনা আগে কখনও ঘটেছে কিনা, বা আদৌ আর কখনও ঘটবে কিনা, সেটাই দেখার।

কিন্তু ঠিক কী ঘটেছে?  

৭ বছরের এক বালিকা অনলাইন ফুড অ্যাপের মাধ্যমে খাবার অর্ডার করেছিল। প্রযুক্তিগত সমস্যার জেরে  ৪২ জন ডেলিভারি এজেন্ট তার বাড়িতে একই খাবার দিতে পৌঁছে যায়। ২৫ নভেম্বর ঘটা ফিলিপিন্সের এই ঘটনায় ব্যাপক শোরগোল পড়ে গিয়েছে। জানা গিয়েছে, ওই বালিকা অনলাইন অ্যাপের মাধ্যমে দুটি চিকেন কাটলেট অর্ডার করেছিল। ৪২ জন সেই কাটলেট নিয়ে তার বাড়িতে উপস্থিত হয় কম-বেশি একই সময়ের মধ্যে।

স্থানীয় সংবাদ মাধ্যম সূত্রে জানা গিয়েছে, এ দিন যখন ওই বালিকা অনলাইন অ্যাপের মাধ্যমে খাবার অর্ডার দেয়, তখন তার বাড়িত কেউ ছিল না। বাবা-মা কাজে বেরিয়েছিলেন। তবে তাঁদের একটি ফোন মেয়ের কাছে রেখে গিয়েছিলেন তাঁরা, যাতে কোনও সমস্যার পড়লে সে ফোন করতে পারে, বা খিদে পেলে ফুডপান্ডা অ্যাপের মাধ্যমে খাবার অর্ডার দিতে পারে। সেটাই করেছিল সে। কিন্তু তাঁর অর্ডার দেওয়া খাবার যে, সারা এলাকাকে খাওয়ানোর মতো অবস্থা হবে, তা ঘুণাক্ষরেও কল্পনা করতে পারেনি কেউ।

কীভাবে ঘটল এমন ঘটনা?

স্থানীয় রিপোর্ট অনুযায়ী, এলাকার ইন্টারনেট স্পিড অত্যন্ত কম থাকায় প্রযুক্তিগত সমস্যা তৈরি হয়েছিল। আর তাতেই ঘটে এই বিপত্তি। Cebu City এলাকার বাসিন্দারা দেখেন, মাত্র কিছুক্ষণের মধ্যেই এলাকায় একে একে ঢুকতে শুরু করেছেন ফুডপান্ডা অ্যাপের ডেলিভারি এজেন্টরা। তাতেই সন্দেহ হয় সকলের। তারপরেই তা নিয়ে শোরগোল পড়ে যায়। ঘটনাটি অন্যরকম হওয়ায়, তা ফেসবুক লাইভে শেয়ার করেন Dann Kayne Suarez নামে স্থানীয় এক বাসিন্দা। নিমেষে ভাইরাল হয়ে যায় সেই লাইভ।

Published by: Shubhagata Dey
First published: December 3, 2020, 1:49 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर