বছরখানেক আগে উপহার পেয়েছিল, GameStop-এর শেয়ার বেচে ২ লক্ষের বেশি আয় করল খুদে

বছরখানেক আগে উপহার পেয়েছিল, GameStop-এর শেয়ার বেচে ২ লক্ষের বেশি আয় করল খুদে
আমেরিকান ভিডিওগেম সংস্থা গেমস্টপের শেয়ারের দাম সপ্তাহ খানেকের মধ্যে ৪০০ শতাংশ উপরে ওঠে

আমেরিকান ভিডিওগেম সংস্থা গেমস্টপের শেয়ারের দাম সপ্তাহ খানেকের মধ্যে ৪০০ শতাংশ উপরে ওঠে

  • Share this:

#সান আন্তোনিও: উপহারে পাওয়া কোনও জিনিস বেচে রাতারাতি লাখপতি হয়ে ওঠা কিন্তু চাট্টিখানি কথা নয়। আসলে ভাগ্যের শিকে কখন ছিঁড়বে, তা বলা মুশকিল। আর ঠিক সেটাই ঘটল সান আন্তোনিওর (San Antonio) ১০ বছর বয়সী জেডেন কারের (Jaydyn Carr) সঙ্গে। বছরখানেক আগে উপহার পাওয়া গেমস্টপের (GameStop) শেয়ার বেচে ২ লক্ষের বেশি টাকা আয় করল সে।

২০১৯ সালের ডিসেম্বর। কোয়ানজা (Kwanzaa) নামে এক উৎসব উপলক্ষ্যে ৬০ ডলার দিয়ে ছেলেকে ভিডিও গেমের ১০টি শেয়ার কিনে দিয়েছিলেন জেডেন কারের মা নিনা কার (Nina Carr)। এর মাঝেই এই সপ্তাহে এক অভূতপূর্ব পরিবর্তন ঘটে যায়। গেমস্টপকে ঘিরে মার্কিন শেয়ারবাজারে সাড়া পড়ে যায়। আমেরিকান ভিডিওগেম সংস্থা গেমস্টপের শেয়ারের দাম সপ্তাহ খানেকের মধ্যে ৪০০ শতাংশ উপরে ওঠে। বুধবারও গেমস্টপ (GameStop) কর্পোরেশনের শেয়ার ট্রেডারদের মধ্যে উত্তেজনা জারি ছিল। গত চার দিনে নিউ ইয়র্কে এই শেয়ার ১৪০ শতাংশ বেড়ে গিয়ে ‌৩৫৪.৮৩ ডলারে পৌঁছে গিয়েছিল। আর বাজারের এই পরিস্থিতির সুযোগ পেয়ে যায় ১০ বছর বয়সের জেডেন কার। বুধবার, ৩,২০০ ডলার অর্থাৎ ভারতীয় মুদ্রায় প্রায় ২,৩৩,৩০৩ টাকায় ভিডিও গেমের শেয়ার বিক্রি করে দেয় সে।

সম্প্রতি সান ন্তোনিও এক্সপ্রেস নিউজে এই নিয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে। সেই প্রতিবেদন সূত্রেই জেডেনের খবরটি প্রকাশ্যে আসে। জেডেনের মা নিনার কথায়, ওয়াচ লিস্টেই গেমস্টপ ছিল। দেখছিলাম, হু-হু করে বাড়ছিল গেমস্টপের শেয়ারের দাম। ছেলেকে বোঝানোর চেষ্টা করছিলাম, বড়ই অদ্ভুত ঘটনা ঘটছে। এভাবে হঠাৎ করে এতটা ওঠে না শেয়ারের দাম। পরে ছেলেকে জিজ্ঞাসা করি, শেয়ার রাখতে চায় না বিক্রি করতে চায়? শেষমেশ শেয়ার বিক্রি করে ২ লক্ষের বেশি টাকা পাওয়া যায়। প্রতিবেদন সূত্রে আরও জানা গিয়েছে, অর্জিত ৩,২০০ ডলারের মধ্যে জেডেনের সেভিংস অ্যাকাউন্টে ২,২০০ ডলার রাখা হয়েছে। আর ১০০০ ডলার ভবিষ্যতে বিনিয়োগের জন্য জমিয়ে রাখা হয়েছে।


উল্লেখ্য, আচমকাই তরতর করে উঠতে শুরু করেছিল GameStop-এর শেয়ার। মাত্র চার দিনে দ্বিগুণ হয়ে যায় শেয়ারের দাম। মঙ্গলবারও একই দৃশ্য দেখা যায়। বুধবার আবার দ্বিগুণ পরিমাণে বেড়ে যায় শেয়ারের দাম। পৌঁছে যায় ৩৪৭.৫১ ডলারে। তবে বৃহস্পতিবার ২২৯ ডলারে নেমে এসেছে শেয়ারের দাম।

Published by:Ananya Chakraborty
First published: