• Home
  • »
  • News
  • »
  • india-china
  • »
  • দেশকে বাঁচাতে আমরা প্রস্তুত, চিনের সঙ্গে সমস্যার মাঝেই জোর গালায় বললেন বায়ুসেনা প্রধান

দেশকে বাঁচাতে আমরা প্রস্তুত, চিনের সঙ্গে সমস্যার মাঝেই জোর গালায় বললেন বায়ুসেনা প্রধান

এই বছরটা খুবই অন্যরকম৷ প্রথম থেকে করোনার প্রকোপ এবং তাঁর সঙ্গে পরে যুক্ত হয়েছে সীমান্ত সমস্যা৷ বলছেন এয়ার চিফ মার্শাল৷ করোনার সঙ্গে লড়াইয়ে খুবই ইতিবাচক ভারতের ভূমিকা৷ এমনই মত রাকেশ কুমার সিং ভাদৌরিয়ার৷

এই বছরটা খুবই অন্যরকম৷ প্রথম থেকে করোনার প্রকোপ এবং তাঁর সঙ্গে পরে যুক্ত হয়েছে সীমান্ত সমস্যা৷ বলছেন এয়ার চিফ মার্শাল৷ করোনার সঙ্গে লড়াইয়ে খুবই ইতিবাচক ভারতের ভূমিকা৷ এমনই মত রাকেশ কুমার সিং ভাদৌরিয়ার৷

এই বছরটা খুবই অন্যরকম৷ প্রথম থেকে করোনার প্রকোপ এবং তাঁর সঙ্গে পরে যুক্ত হয়েছে সীমান্ত সমস্যা৷ বলছেন এয়ার চিফ মার্শাল৷ করোনার সঙ্গে লড়াইয়ে খুবই ইতিবাচক ভারতের ভূমিকা৷ এমনই মত রাকেশ কুমার সিং ভাদৌরিয়ার৷

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: ৮৮ তম এয়ার ফোর্স দিবস (Air Force day) অনুষ্ঠানে বায়ুসেনা প্রধান এয়ার চিফ মার্শাল রাকেশ কুমার সিং ভাদৌরিয়া বলেন যে, ভারতীয় বায়ুসেনায় প্রতিনিয়ত উন্নতির পথে হাঁটে এবং দেশের সার্বভৌমত্য রক্ষার জন্য সর্বদা তাঁরা তৈরি৷

    উত্তরপ্রদেশের গাজিয়াবাদের হিন্দোন বায়ুসেনা ছাউনিতে এয়ার ফোর্স দিবস উপলক্ষে একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়৷ সেখানেই বক্তব্য রাখতে গিয়ে এয়ার চিফ মার্শাল ভাদৌরিয়া বলেন যে, দেশকে যে কোনও পরিস্থিতিতে বাঁচাতে ও দেশের সার্বভৌমত্য রক্ষার্থে তাঁরা বদ্ধপরিকর৷

    তিনি আরও বলেন যে, বায়ুসেনায় এই মুহূর্তে নানা রকম পরিবর্তনের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে৷ আরও উন্নতির পথে এগোচ্ছে বায়ুসেনা৷ এরই মধ্যেই ভারত-চিন সীমান্তে যেভাবে শত্রুপক্ষকে কড়া জবাব দিয়েছে দেশ, তারও প্রসংশা করেন বায়ুসেনা প্রধান৷ খুব কম সময়ের মধ্যে সিদ্ধান্ত নিয়ে চিনের সঙ্গে সীমান্ত লড়াইয়ে সেনার সঙ্গে যোগ্য সঙ্গত দিতে পেরেছে বায়ুসেনা৷ যার ফলে তিনি তাঁর সৈনিকদের প্রসংশা করেছেন৷

    এই বছরটা খুবই অন্যরকম৷ প্রথম থেকে করোনার প্রকোপ এবং তাঁর সঙ্গে পরে যুক্ত হয়েছে সীমান্ত সমস্যা৷ বলছেন এয়ার চিফ মার্শাল৷ করোনার সঙ্গে লড়াইয়ে খুবই ইতিবাচক ভারতের ভূমিকা৷ এমনই মত রাকেশ কুমার সিং ভাদৌরিয়ার৷ এবং এই কঠিন পরিস্থিতির মধ্যেও তাঁর বায়ুসেনা বাহিনী নিজেদের দায়িত্ব সমানভাবে সামলে চলেছে৷ এবং আগামিদিনেও এভাবেই কাজ চলবে বলে জানান তিনি৷

    চিফ অফ ডিফেন্স স্টাফ জেনারেল বিপিন রাওয়াত, সেনাপ্রধান জেনারেল এমএম নরভান, নৌসেনা প্রধান অ্যাডমিরাল করমবীর সিং হাজির ছিলেন এই অনুষ্ঠানে৷ ৮৮ তম ভারতীয় বায়ুসেনা দিবসকে স্মরণীয় করে রাখতে দুটি চিনুক হেলিকপ্টার ওড়ানো হয় এই দিন৷

    কিছুদিন আগেই বায়ুসেনা প্রধান বলেছেন যে, উত্তর ভারতে দু’দিকের সীমান্তে যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত রয়েছে ভারত। ভারত স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছে যে চিন ও পাকিস্তান দু' পক্ষের সঙ্গেই তারা লড়তে প্রস্তুত। তিনি আরও বলেন যে, প্রতিটি ফ্রন্টে শত্রুদের মুখোমুখি হতে ও তাদের যোগ্য জবাব দিতে দেশের বিমান বাহিনী পুরোপুরি প্রস্তুত। ৮ অক্টোবর এয়ার ফোর্স ডে-র আগে এক সাংবাদিক সম্মেলনে এয়ার চিফ মার্শাল আর কে এস ভাদৌরিয়ার (Air Chief Marshal RKS Bhadauria)গলায় ছিল আত্মবিশ্বাসের সুর৷ তিনি জোর গলায় বলেন যে চিনকে কুপোকাৎ করতে ভারতের বিমান বাহিনী প্রস্তুত৷ বায়ুসেনা প্রধান বলেন, ভারতীয় বায়ুসেনায় রাফাল যোগের পর থেকে বিমান বাহিনীর শক্তি আরও বৃদ্ধি পেয়েছে। রাফাল আসার পরে শত্রুদের মধ্যে একটি ভীতি তৈরি হয়েছে। এটি বাহিনীর শক্তি ও মনোবল আরও বাড়াবে, মনে করছেন এয়ার চিফ মার্শাল। এটির সাহায্যে ভারত দ্রুত এবং দৃঢ় পদক্ষেপ নিতে সক্ষম হবে। তিনি বলেছেন যে, আগামী পাঁচ বছরে ভারতীয় বায়ুসেনা আরও শক্তিশালী হবে। আগামী পাঁচ বছরে তেজাস, কম্ব্যাট হেলিকপ্টার, ট্রেনার এয়ারক্র্যাফ্ট সহ আরও অনেক শক্তিশালী অস্ত্র বিমানবাহিনীর শক্তি হয়ে উঠবে।

    Published by:Pooja Basu
    First published: