corona virus btn
corona virus btn
Loading

চিনকে বড় ধাক্কা দিতে পারে ভারত! এই সব চিনা মালের আমদানি বন্ধ করতে ভারতের প্রস্তুতি

চিনকে বড় ধাক্কা দিতে পারে ভারত! এই সব চিনা মালের আমদানি বন্ধ করতে ভারতের প্রস্তুতি

চিনের সেনার হাতে শহিদ হওয়া ভারতীয় জওয়ানদের মৃত্যুর প্রতিশোধ নিতে সীমান্তে যেমন তৈরি হচ্ছে বাহিনী, তেমনই চিনার ব্যবসায় ঘাটতির জন্য চিনা পণ্যের বাড়বাড়ন্ত বন্ধের দাবি তুলছেন দেশের সাধারণ মানুষ৷

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: চিনের সঙ্গে সম্পর্কে চিড় ধরার সঙ্গে সঙ্গে চিনা মাল ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞার দাবি উঠেছে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে৷ এমনকি বহু চিনা সামগ্রী পোড়ানোর ছবিও উঠে এসেছে৷ চিনের সেনার হাতে শহিদ হওয়া ভারতীয় জওয়ানদের মৃত্যুর প্রতিশোধ নিতে সীমান্তে যেমন তৈরি হচ্ছে বাহিনী, তেমনই চিনার ব্যবসায় ঘাটতির জন্য চিনা পণ্যের বাড়বাড়ন্ত বন্ধের দাবি তুলছেন দেশের সাধারণ মানুষ৷ এবার সেই পথে হাঁটতে প্রস্তুত হচ্ছে সরকারও৷ যার জেরে জোর ধাক্কা খেতে পারে চিন, এমনই মনে করেছেন বিশেষজ্ঞরা৷

সূত্রের খবর, চিন থেকে বিপুল পরিমাণে সৌরযন্ত্রের আমদানি কমাতে চাইছে ভারত৷ দু’ ধরণের স্ট্র্যাটেজি বানানোর কাজ চলছে৷ পুনর্ব্যবহারযোগ্য শক্তি মন্ত্রক (Ministry of Renewable Energy)জাতীয় উৎপাদনশীল সংস্থার জন্য নতুন প্রকল্পের ঘোষণা করতে পারে৷ বিদ্যুৎ মন্ত্রক আপাতত সিদ্ধান্ত নিয়েছে যে বেশি পরিমাণে যে সৌরশক্তি যুক্ত যন্ত্রাংশ আসত চিন থেকে, তাতে লাগাম টানা হবে৷

মনে করা হচ্ছে অপ্রয়োজনীয় আমদানি করা হত যে সব জিনিস, যেমন প্যানেল, সেল, মডিউল, কন্ট্রোলাম, সেসব বন্ধ করা হবে৷ প্রায় ৮০ শতাংশ এই ধরণের পণ্য আসে চিন থেকে৷ এই সব বস্তু দেশেই তৈরি করা হবে৷ এর জন্য তৈরি হবে VGF মডেল এবং তার অধীনে ২৫ থেকে ৩৫ শতাংশ মূল্য তৈরি করা হবে এই সব৷

যদি অর্থমন্ত্রক VGF- Viability Gap Funding-প্রকল্প চালু করে তাহলে এই সুবিধা পাবে দেশের বিভিন্ন সংস্থা এবং লাভ হবে আদানি গ্রিন (Adani green), ভিকারাম সোলার (Vikaram Solar), আজুর পাওয়ার (Azure Power) এবং TPREL মতো সংস্থার৷

এছাড়াও নন এসেনশিয়াল প্রোডাক্ট বা অপ্রয়োজনীয় বস্তুর একটি তালিকা তৈরি হয়েছে৷ যা বণিক সংগঠন CII ও FICCI-র কাছে পাঠানো হয়েছে৷ এর মধ্যে রয়েছে রং, বার্নিশ, মেকআপ, চুলের জন্য ব্যবহৃত জেল, খেলার সরঞ্জাম, সিগারেট, মোটা কাঁচ, গাড়ির রেয়ার ভিউ মিরর এবং ঘড়ি৷

প্রধানমন্ত্রী আত্মনির্ভর ভারতের যে উদ্যোগ, তাতে এই সমস্ত পণ্য চিন থেকে না নিয়ে দেশে উৎপাদনের পক্ষে মত অনেক বিশেষজ্ঞের৷ তবে কীভাবে আমদানি আটকানো হবে তার রূপরেখাই তৈরি করা হচ্ছে৷

Published by: Pooja Basu
First published: June 22, 2020, 9:36 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर