Home /News /howrah /
Howrah: মানুষ টিকতে পারছেনা ঘরে, বাড়িতে আসেনা আত্মীয়! কিন্তু কেন?

Howrah: মানুষ টিকতে পারছেনা ঘরে, বাড়িতে আসেনা আত্মীয়! কিন্তু কেন?

title=

গ্রামীণ হাওড়ার ঘন জনবসতির মাঝ বরাবর উত্তর থেকে দক্ষিনে বয়ে গেছে কানা নদী, অনেকেই বলেন কৌশিকী নদী। স্থানীয় মানুষের কথায়, এক সময় নদীপথে ছোট বড় নৌকো যাতায়াত করত এই নদীপথে।

  • Share this:

    #হাওড়া : গ্রামীণ হাওড়ার ঘন জনবসতির মাঝ বরাবর উত্তর থেকে দক্ষিনে বয়ে গেছে কানা নদী, অনেকেই বলেন কৌশিকী নদী। স্থানীয় মানুষের কথায়, এক সময় নদীপথে ছোট বড় নৌকো যাতায়াত করত এই নদীপথে। এক স্থান থেকে অন্যস্থানে মানুষের যাতায়াত ও বিভিন্ন ব্যবসায়িক দ্রব্যাদি নদীপথে আমদানি রপ্তানি চলত। তবে কালক্রমে সড়ক পরিবহনের দাপটে এবং নদীর সংকীর্ণ হয়ে যাওয়ার ফলে নৌকো চলাচল প্রায় সম্পূর্ণরূপে বন্ধ বর্তমানে। এই নদী উত্তর হুগলি হয়ে দক্ষিণে হাওড়ার উলবেরিয়া ফুলেশ্বর হয়ে হুগলি নদীতে মিশেছে। নদীপথে যাতা য়াত পরিষেবা বন্ধ হলেও কোনোভাবেই নদীর গুরুত্ব কমেনি নদীর দুই পার্শ্ববর্তী গ্রামীণ মানুষের কাছে। কয়েকশো বছর ধরে নদী এবং নদী সংলগ্ন মানুষের সঙ্গে এক আত্মিক সম্পর্ক গড়ে উঠেছে। নদীকে কেন্দ্র করে এখনও বহু মানুষ মাছ শিকার করে জীবিকা নির্বাহ করে, অন্যদিকে নদীর জল চাষ আবাদি কাজে ব্যবহার। সেইসঙ্গে নদীর দুই পাড়ে কাঁচা পাকা ঘাট নির্মিত রয়েছে জল ব্যবহার করতে। নদীর জল অসংখ্য গ্রামীণ পরিবার ব্যবহার করে যেমন সংসারে বাসনপত্র,স্নান, রান্না ও গবাদি পশুর খাবারে ব্যবহৃত হয়।

    নদীর জল ছাড়া এক প্রকার অচল বহু পরিবার। এই নদী বর্তমানে উদ্বেগের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে সেই সমস্ত মানুষের কাছে, তাদের অভিযোগ, মাঝে মাঝেই নদীর জলের রং পরিবর্তন হয়! সেই সঙ্গে নদীর জলের মাছ ভেসে ওঠে জল থেকে তীব্র দুর্গ ছড়ায় যা নদী পার্শ্ববর্তী মানুষের বসবাস করা একপ্রকার দায় হয়ে পড়ে। স্থানীয় মানুষ জানায়, সে সময় আত্মীয়-স্বজন পা রাখেনা বাড়িতে।

    আরও পড়ুনঃ একাধিক বার আবেদন করেও মেলেনি সরকারি পরিষেবা! ক্ষোভে ফুঁসছেন এলাকার মানুষ

    নদী থেকে দুর্গন্ধ ছড়ানো শুরু হলেই আত্মীয়স্বজন বাড়িতে থাকলে তারা চলে যান। এই সমস্যা বেশ কয়েক বছরের। নদীতে বিভিন্ন সময় কালো আলকাতরা সমান জল এবং দুর্গন্ধ ছড়ায়। স্থানীয় মানুষের অভিযোগ কলকারখানার নোংরা জল সরাসরি নদীতে মিশে নদীর জল দূষিত হচ্ছে অনুমান তাদের। এ বিষয়ে একাধিক বার স্থানীয় পঞ্চায়েত প্রশাসনে জানিয়েও কোনো রকম সূরাহা মেলেনি অভিযোগ তাদের।

    আরও পড়ুনঃ গান ভালবাসেন তাই স্ত্রীর অবহেলা! নিজের দুখী জীবন নিয়েই গান বাঁধলেন এই বাউলশিল্পী

    এ প্রসঙ্গে, পাঁচলা জলাবিশ্বনাথপুর পঞ্চায়েত প্রধান আসলাম মোল্লা জানান, এই নদীর সঙ্গে স্থানীয় মানুষের সম্পর্ক দীর্ঘদিনের নদীর জল দূষিত হওয়ার ফলে মানুষ সমস্যায় পড়ছে। এ বিষয়ে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনাও হয়েছে। এই সমস্যার দ্রুত সমাধানের আশায় তিনিও।

    RAKESH MAITY
    Published by:Soumabrata Ghosh
    First published:

    Tags: Howrah, Panchla

    পরবর্তী খবর