পেট্রোপণ্যের বাজার আগুন, বিনা পেট্রলেই বাইক চালালেন মেকানিক

পেট্রোপণ্যের বাজার আগুন, বিনা পেট্রলেই বাইক চালালেন মেকানিক

বাইক চলবে কোনও পেট্রল ছাড়াই। শুনতে অবাক লাগলেও, এই কাজ করে তাক লাগিয়ে দিলেন হিসারের বাসিন্দ রবীন্দ্র তোমার।

বাইক চলবে কোনও পেট্রল ছাড়াই। শুনতে অবাক লাগলেও, এই কাজ করে তাক লাগিয়ে দিলেন হিসারের বাসিন্দ রবীন্দ্র তোমার।

  • Share this:

    #হিশার : আকাশ ছুঁয়েছে পেট্রল-ডিজেলের দাম। ভর্তুকিহীন রান্নার গ্যাসও অগ্নিমূল্য। এহেন অবস্থায় মাথায় আকাশ ভেঙে পড়েছে মধ্যবিত্তের। পেট্রল চালিত অটোগুলোকেও এখন বেশি আয়ের জন্য অনেক রাত পর্যন্ত রাস্তায় থাকতে হচ্ছে। আগের থেকে ব্যয় প্রায় ১০ শতাংশ বেড়ে গিয়েছে।

    এই সমস্যা দূর করতেই এবার এগিয়ে এলেন এক মেকানিক। বানিয়ে ফেললেন এক আশ্চর্য বাইক। যে বাইক চলবে কোনও পেট্রল ছাড়াই। শুনতে অবাক লাগলেও, এই কাজ করে তাক লাগিয়ে দিলেন হিসারের বাসিন্দ রবীন্দ্র তোমার।

    এই নতুন আবিস্কার করে কিছুটা হলেও মানুষের কষ্ট দূর করার চেষ্টা করেছেন তিনি। পেট্রলের পরিবর্তে ব্যাটারি দিয়েই বাইক চালানোর ব্যবস্থা করেছেন এই ব্যক্তি। জানা গিয়েছে, ব্যাটারি ঠিকঠাক চললে ঘণ্টায় ৭০-৮০ কিমি স্প্রিডেও চলতে পারবে এই বাইক। আর নতুন ব্যাটারির দাম পড়বে প্রায় ১০ হাজার টাকা।

    শুধুমাত্র নিজের জন্য নয়, অন্যান্যদের জন্যও এই বাইকের ব্যবস্থা করতে চান রবীন্দ্র তোমার। নিজের ট্যুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে এই অভিনব বাইকের ছবি শেয়ার করার পাশাপাশি মেকানিকের বিবরণও দিয়েছেন। তিনি লিখেছেন- ‘আপনার বাইক যদি বিনা পেট্রলে চালাতে চান, তাহলে 9416490665 নম্বরে যোগাযোগ করুন। তাঁর এই অভিনব পোস্টে নিজের পরিচয় দিতে ওই মেকানিক লেখেন, 'রতন জি অল রাউন্ড মণ্ডি আদমপুর, জেলা হিশার’।

    পেট্রোপণ্যের মূল্যবৃদ্ধির বাজারে সহজেই নেট নাগরিকদের দৃষ্টি আকর্ষণ করে ভাইরাল হয়ে যায় এই পোস্ট। অনেকেই বুদ্ধি ও সৃষ্টিশীলতার তারিফ করেছেন ওই ব্যক্তির। অনেকে বলছেন, "যে হারে দাম বাড়ছে, এটাই একমাত্র উপায়।"

    তবে কেউ কেউ অবশ্য সাবধানও করেছেন। এভাবে পেট্রল মোটরবাইককে ব্যাটারিতে মডিফাই করার বিপদ নিয়েও সতর্ক করেছেন তাঁরা। কারণও রয়েছে। এভাবে ব্যাটারি সংযুক্ত করা প্রথমত বেআইনি। দ্বিতীয়ত, এতে গাড়ির ব্যালেন্স বিঘ্নিত হবে। বর্ষায় ব্যাটারি ক্ষতিগ্রস্তও হতে পারে।

    এদিকে তোমারের সাফাই, খুব দ্রুত বিপদের আশঙ্কা এড়িয়ে আরও উন্নত মানের হয়ে উঠবে এই মডিফায়েড বাইক। জানিয়েছেন যে, ডিজাইন আরও সুন্দর ও কভার তৈরী করার প্রচেষ্টা চলছে। আশা করছেন নতুন এই বুদ্ধি দিয়ে অনেককে সাহায্য করতে পারবেন।

    Published by:Sanjukta Sarkar
    First published: