• Home
  • »
  • News
  • »
  • explained
  • »
  • EXPLAINED | Calcium Deficiency: শরীরে ক্যালসিয়ামের সমস্যা? সঠিক সময়ে না ধরতে পারলে বড় সমস্যায় ভুগবেন!

EXPLAINED | Calcium Deficiency: শরীরে ক্যালসিয়ামের সমস্যা? সঠিক সময়ে না ধরতে পারলে বড় সমস্যায় ভুগবেন!

Calcium Deficiency

Calcium Deficiency

বয়স বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে শরীরে ক্যালসিয়ামের ঘাটতি লক্ষ্য করা যায়। কম বয়সে সাধারণত ক্যালসিয়ামের ঘাটতি দেখা যায় না। (EXPLAINED | Calcium Deficiency)

  • Share this:

#কলকাতা: কোভিড কালে বিভিন্ন সমস্যায় ভুগছেন সাধারণ মানুষ। বর্তমানে যেহেতু ঋতু পরিবর্তন হচ্ছে তাই জ্বর, সর্দি, ঠাণ্ডা লাগার সমস্যা যেমন লেগেই রয়েছে তেমন অন্য বিভিন্ন সমস্যাও দেখা দিচ্ছে। তার মধ্যে অন্যতম হাড়ের সমস্যা। বিশেষজ্ঞদের বক্তব্য, ক্যালসিয়ামের অভাবের জন্য হাড়ের বিভিন্ন সমস্যা দেখা দিচ্ছে। হাড়ের পাশাপাশি ক্যালসিয়ামের অভাবের জন্য দাঁতেও একাধিক সমস্যা দেখা যাচ্ছে। এছাড়াও ক্যালসিয়ামের অভাবে হার্টে এবং পেশিতে একাধিক সমস্যা দেখা দেয়। শরীরে ক্যালসিয়ামের ঘাটতি দেখা দিলে অস্টিওপোরেসিস (Osteoporosis), অস্টিওপেনিয়া (Osteopenia) এবং হাইপোক্যালসেমিয়া (Hypocalcemia)-র সমস্যা দেখা দেয়। এমনকী শিশুদের মধ্যে যাদের শরীরে ক্যালসিয়ামের ঘাটতি দেখা দেয় তাদের শারীরিকভাবে সঠিক বৃদ্ধিতে সমস্যা তৈরি হয়। সঠিকভাবে উচ্চতা বৃদ্ধিতে বাধা তৈরি হয়। শরীরে যে পরিমাণ ক্যালসিয়ামের প্রয়োজন হয় তা দৈনন্দিন জীবনে আমরা যা খাই তার মাধ্যমে পূরণ করা সম্ভব। এছাড়াও প্রয়োজনে কোনও সাপ্লিমেন্ট গ্রহণ করা যেতে পারে।

আরও পড়ুন: কোষ্ঠকাঠিন্য কেন হয়? কোনও মারাত্মক রোগের সম্ভাবনা থাকে? জানুন বিশদে

ক্যালসিয়ামের ঘাটতির কারণ কী?

বয়স বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে শরীরে ক্যালসিয়ামের ঘাটতি লক্ষ্য করা যায়। কম বয়সে সাধারণত ক্যালসিয়ামের ঘাটতি দেখা যায় না। কিন্তু ৪০ বছর বয়সের পর থেকে ক্যালসিয়াম ঘাটতির একাধিক উপসর্গ প্রকাশ পায়। কিন্তু এর কারণ কী? জেনে নেওয়া যাক…

যদি কেউ দীর্ঘ সময় ধরে ক্যালসিয়াম না গ্রহণ করেন সেক্ষেত্রে তাঁর শরীরে ক্যালসিয়ামের ঘাটতি দেখা দিতে পারে। অনেক সময় শিশুবয়সে সঠিক মাত্রায় ক্যালসিয়াম গ্রহণ করা হয় না। সেক্ষেত্রে বয়স বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে একাধিক সমস্যা দেখা দেয়।

ওষুধের কারণে ক্যালসিয়ামের অভাব দেখা দিতে পারে। বর্তমান সময়ে এমন বেশ কিছু ওষুধ আছে যেগুলি সেবন করলে শরীরে ক্যালসিয়ামের মাত্রা কমে যায়।

বিভিন্ন শারীরিক কারণে ক্যালসিয়াম যুক্ত খাবার গ্রহণ না করলে শরীরে ক্যালসিয়ামের মাত্রা কমে যায়।

মহিলাদের ক্ষেত্রে হরমোনের একাধিক তারতম্যের কারণে শরীরে ক্যালসিয়ামের অভাব দেখা দিতে পারে।

জিনগত কারণে অনেক সময় শরীরে ক্যালসিয়ামের ঘাটতি দেখা দেয়।

মহিলাদের উচিত পুরুষদের থেকে তুলনামূলক বেশি মাত্রায় ক্যালসিয়াম সমৃদ্ধ খাবার খাওয়া। এমনকী, মধ্যবয়সের পর থেকেই মহিলাদের ক্যালসিয়াম তুলনামূলক বেশি খাওয়া উচিত। এছাড়াও মহিলাদের মেনোপোজ শুরু হওয়ার আগেই তা শুরু করা দরকার। কারণ মেনোপোজ হরমোনের ক্ষরণ কম হওয়ার কারণে মহিলাদের হাড় দ্রুত ক্ষয় হতে শুরু করে। এই ক্ষয় রোধ করার জন্য ক্যালসিয়াম গ্রহণ করা অত্যন্ত প্রয়োজন বলে জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। সঠিরক সময়ে ক্যালসিয়াম গ্রহণ করলে অস্টিওপোরেসিস এবং ক্যালসিয়ামের হ্রাস জনিত যে সমস্যাগুলি দেখা দেয় তা হওয়ার সম্ভাবনা কমে।

আরও পড়ুন: আসছে শীতের মরশুম, ফ্লু-র টিকা কি কোভিড সংক্রমণের তীব্রতা কমাতে পারবে?

এমনই একটি শারীরিক সমস্যার নাম হাইপোপার্থেরয়ডিশম (Hypoparathyroidism)। যা হরমোনের সমস্যার কারণ জনিত একটি সমস্যা। যাঁরা এই সমস্যার সম্মুখীন হয় তাঁদের শরীরে উপযুক্ত মাত্রায় প্যারা থাইরয়েড হরমোন তৈরি হয় না। এই প্যারাথাইরয়েড হরমোন শরীরে ক্যালসিয়ামের মাত্রা সঠিক রাখে।

এছাড়াও ক্যালসিয়ামের অভাবের জন্য ম্যালনিউট্রেশন (Malnutrition) এবং ম্যালঅ্যাবজর্পশন (Malabsorption)। ম্যালনিউট্রেশন কথার অর্থ, যখন শরীরে পর্যাপ্ত পরিমাণে পুষ্টি থাকে না। অন্য দিকে, ম্যালঅ্যাবজর্পশন কথাটির অর্থ শরীর যখন কোনও পুষ্টিগুণ যেমন ভিটামিন, প্রটিন ইত্যাদি গ্রহণ করতে পারে না। আমরা প্রতি দিন যে খাবার খাই সেই খাবার হজমের পর তা থেকে নিঃসৃত ভিটামিন, প্রোটিন এবং যাবতীয় গুণাগুণ শরীর শোষণ করে। কিন্তু সেই প্রক্রিয়ায় যখন বাধা তৈরি হয় তখন সেই প্রক্রিয়াকে বলা হয় ম্যালঅ্যাবজর্পশন।

শরীরে ক্যালসিয়াম কমে যাওয়ায় উপসর্গগুলি কী কী?

ক্যালসিয়াম কমে গেলে শরীরে একাধিক উপসর্গ দেখা দেয়। যে উপসর্গগুলি প্রকাশ পায় সেগুলি দেখে মোটামুটি বোঝা সম্ভব শরীরে ক্যালসিয়ামের অভাব রয়েছে। কী কী সমস্যা দেখা দিতে পারে?

পেশির সমস্যা-

যাঁদের শরীরে ক্যালসিয়ামের সমস্যা দেখা দেয় তাঁদের শরীরের বিভিন্ন অংশের পেশিতে একাধিক সমস্যা দেখা দেয়। পেশিতে ব্যথার পাশাপাশি ক্রাম্প দেখা দেয়। খুব অল্প দুরত্বে হাঁটলে বা ছুটছে এই ধরনের মানুষদের পেশিতে ব্যথা হয়। হাত, পা, পায়ের পাতা, এবং মুখের চারপাশের অংশে অসাড় ভাব দেখা যায়।

প্রবল দুর্বলতা-

যাঁরা ক্যালসিয়ামের অভাব জনিত বিভিন্ন সমস্যায় ভোগেন তাঁদের ক্ষেত্রে শরীরে প্রবল দুর্বলতা দেখা দেয়। এর ফলে ইনসমনিয়া হতে পারে। ক্যালসিয়ামের প্রভাবে ঝিমুনি ভাব আসতে পারে, মস্তিষ্কে সমস্যা দেখা দিতে পারে। এছাড়াও কোনও কাজে মনসংযোগ হয় না। তাই এক্ষেত্রে বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নেওয়া প্রয়োজন।

চামড়া ও নখের সমস্যা দেখা যায়-

ক্যালসিয়ামের অভাবের কারণে নখের একাধিক সমস্যা দেখা দেয়। এছাড়াও চামড়া শুষ্ক হয়ে যায়। চুলের ক্ষেত্রেও একাধিক সমস্যা দেখা দেয়। চুলকানি সহ একাধিক সমস্যা দেখা দেয়।

অস্টিওপেনিয়া ও অস্টিওপোরেসিস

হাড় শক্ত এবং মজবুত হওয়ার জন্য প্রয়োজন ক্যালসিয়াম। যদি শরীরে ক্যালসিয়ামের পরিমাণ কমে যায় তাহলে হাড়ে ক্যালসিয়ামের ঘাটতি দেখা দেয়। যার কারণে শক্তি কমে হাড়ে এবং একাধিক সমস্যা দেখা দেয়। দীর্ঘদিন ধরে শরীরে ক্যালসিয়ামের অভাব বা ঘাটতি দেখা দিলে অস্টিওপেনিয়া দেখা দিতে পারে। এবং হাড়ের মধ্যে খনিজ পদার্থের অভাব দেখা দিলে তা থেকে অস্টিওপোরেসিস হতে পারে।

আরও পড়ুন: ওজন কমানোর ক্ষেত্রে বাধা তৈরি করতে পারে অ্যালকোহল! কেন জেনে নিন বিশদে!

সিভিয়ার PMS

মহিলাদের ক্ষেত্রে ক্যালসিয়ামের অভাব দেখা দিলেন সিভিয়ার প্রিমেনস্ট্রুয়াল সিনড্রোম বা PMS-এর সমস্যা দেখা দিতে পারে। ২০১৭ সালে প্রকাশিত একটি রিপোর্টে দেখা গিয়েছে, যাঁরা দীর্ঘ ২ মাস ধরে প্রতিদিন ৫০০ মিলিগ্রাম করে ক্যালসিয়াম গ্রহণ করেন তাহলে তাঁদের মুড ভালো থাকে। ২০১৯ সালে প্রকাশিত একটি রিপোর্টে ভিটামিন এবং ক্যালসিয়ামের অভাবের জন্য ঋতুচক্রে বেশ কিছু পরিবর্তন দেখা দিতে পারে।

দাঁতের সমস্যা-

ক্যালসিয়ামের অভাবের জন্য দাঁতে একাধিক সমস্যা দেখা দেয়। দাঁত ভঙ্গুর হয়ে যায়, পাশাপাশি দাঁতের গোঁড়া নরম হয়ে যায়।

কোন কোন খাবার খাওয়া প্রয়োজন-

শরীরে ক্যালসিয়ামের চাহিদা পূরণের জন্য বিভিন্ন খাবার খাওয়া প্রয়োজন। যে সব খাবার খেলে শরীরে ক্যালসিয়ামের ঘাটতি পূরণ হয় তা হল-

দুধ, ইয়োগার্ট, চিজ, কর্ন ফ্লেক্স, কমলালেবুর রস, সয়াবিন, সয়ামিল্ক, বেশ কয়েকধরনের ক্যালসিয়াম সমৃদ্ধ রুটি, বিনস, আমন্ড, হুই প্রোটিন

এই খাবারগুলি নিয়ম করে প্রতি দিন খাওয়া হলে শরীরে ক্যালসিয়ামের ঘাটতি পূরণ করা সম্ভব। তবে অতিরিক্ত পরিমাণে গ্রহণ করলে উল্টো প্রতিক্রিয়া হতে পারে। তাই পরিমিত এই ধরনের খাবার গ্রহণ করা উচিত।

Published by:Raima Chakraborty
First published: