বয়সকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে ৮৩ বছর বয়সে সাগরতলে স্নরকেলিংয়ে মাতলেন ওয়াহিদা রহমান

বয়সকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে ৮৩ বছর বয়সে সাগরতলে স্নরকেলিংয়ে মাতলেন ওয়াহিদা রহমান

অতল জলের আহ্বান! ৮৩ বছর বয়সে সাগরতলে স্নরকেলিংয়ে মাতলেন ওয়াহিদা রহমান!

জলযানে নয়, ওয়াহিদা রহমানের দেখা মিলল জলের তলায়। মেয়ের হাত ধরে স্নরকেলিংয়ে মেতে উঠলেন তিনি।

  • Share this:

#মুম্বই: তাঁর কোনও সোশ্যাল মিডিয়া হ্যান্ডেল নেই। হতে পারে সেটা প্রযুক্তি ব্যবহার করার অসুবিধা বা নেহাতই ভার্চুয়াল প্ল্যাটফর্মে উপস্থিতি নিয়ে অনীহা। কিন্তু কন্যা কাশভি রেখির (Kashvi Rekhy) সৌজন্যে ওয়াহিদা রহমানের (Waheeda Rehman) দিন কেমন কাটছে, মাঝে মাঝেই তার দু'-এক ঝলক দেখতে পাওয়া যায়! এর আগে যেমন মা আর মেয়ের দেখা মিলেছিল বারাণসীর জলের বুকে। সেই নীল জল কি অজানার হাতছানি দিয়েছিল ভারতীয় চলচ্চিত্রের এই বর্ষীয়ান নায়িকাকে? বলা মুশকিল! তবে এবার আর জলযানে নয়, ওয়াহিদা রহমানের দেখা মিলল জলের তলায়। মেয়ের হাত ধরে স্নরকেলিংয়ে মেতে উঠলেন তিনি।

View this post on Instagram

A post shared by Kashvi (@kashvi_rekhy)

কাশভি রেখির Instagram হ্যান্ডেল মারফত জানা গিয়েছে, সম্প্রতি তিনি মায়ের সঙ্গে ছুটি কাটাচ্ছেন আন্দামান-নিকোবর দ্বীপপুঞ্জের হ্যাভলক আইল্যান্ডে। সেখান থেকেই স্নরকেলিংয়ের একটি ছবি পোস্ট করেছেন তিনি। সোশ্যাল মিডিয়ায় কাশভি রেখি এই ছবির ক্যাপশনের সঙ্গে হ্যাশট্যাগ দিয়েছেন- ওয়াটার বেবিজ! হ্যাশট্যাগটি সার্থক- এই ছবি দেখে তাঁদের দু'জনকে জলকন্যা বলেই ভ্রম হয়। যদিও এই প্রথম স্নরকেলিংয়ে সাগরতলে নেমে সামান্য হলেও আড়ষ্ট হয়ে আছেন ওয়াহিদা রহমান, তিনি শক্ত করে ধরে রেখেছেন মেয়ের হাত! এইটুকু দ্বিধা ৮৩ বছর বয়সে থাকাটাই স্বাভাবিক। তবে শুধু এই দিকটা বাদ দিলে বোঝার কোনও উপায়ই নেই যে বয়স কাবু করেছে নায়িকাকে। সেটাকে যে তিনি একটা সংখ্যা বই আর কিছু ভাবেন না, তা তাঁর সাগরতলের অভিযান থেকেই বেশ বোঝা যাচ্ছে!

সঙ্গত কারণেই কাশভি রেখির এই পোস্ট সোশ্যাল মিডিয়ায় বেশ হইচই ফেলে দিয়েছে। হালফিলের নায়ক-নায়িকাদের জীবনের নানা মুহূর্ত আমরা প্রায়ই সোশ্যাল মিডিয়ায় দেখে থাকি। কিন্তু এই আলোয় হাতে গোনা দু'-একজন ছাড়া ধরা দেন না ভারতীয় ছবির স্বর্ণযুগের কলাকুশলীরা। সেই দিক থেকে ওয়াহিদা রহমানের এই জীবনযাত্রার ঝলক উল্লেখের দাবি রাখে। তবে সোশ্যাল মিডিয়া ইউজাররা এই প্রসঙ্গে যা লিখছেন, তার যুক্তিগ্রাহ্যতা নিয়েও প্রশ্ন তোলা যায়। তাঁদের দাবি- বাকেট লিস্টের একটা করে শখ ক্রমশ পূরণ করে চলেছেন নায়িকা। সেই দাবি সত্যি কি না, তা যতক্ষণ না ওয়াহিদা রহমান মুখ খুলছেন, যাচাই করার কোনও উপায় নেই!

Published by:Rukmini Mazumder
First published:

লেটেস্ট খবর