নেহার শরীর স্বর্গ ! আদরে মেতে খোলামেলা রোহনপ্রীত ! ঝড়ের গতিতে ভাইরাল ভিডিও

নেহা একটি মাটিতে পড়ে থাকা গাছের গুঁড়ির ওপর বসেন। সূর্যের রশ্মি উপভোগ করতে করতে ক্যামেরার দিকে তাকিয়ে হেসে ফেলেন।

নেহা একটি মাটিতে পড়ে থাকা গাছের গুঁড়ির ওপর বসেন। সূর্যের রশ্মি উপভোগ করতে করতে ক্যামেরার দিকে তাকিয়ে হেসে ফেলেন।

  • Share this:

#মুম্বই: নেহা কক্বর (Neha Kakkar), যেমন তাঁর দুর্ধর্ষ গানের গলা ঠিক তেমনই সোশ্যাল মিডিয়ায় সুপার অ্যাক্টিভ তিনি। প্রতিনিয়ত নতুন নতুন পোস্ট নেহা তাঁর ফ্যানেদের উপহার দেন। মাঝে মাঝে সেই পোস্টের মাধ্যমে ফ্যানেদের সঙ্গে কথোপকথনও করেন। তবে এবার নেহা যে পোস্টটি শেয়ার করেছেন তা দেখে সকলের মুখে হাসি আর থামছে না। স্বামী রোহনপ্রীতের (Rohanpreet Singh) সঙ্গে উত্তরাখণ্ডে যখন গিয়েছিলেন সেই সময়ের একটা ভিডিও শেয়ার করলেন বলিউডের গায়িকা। শুক্রবার নেহার এই পোস্টটিতে দেখা যায় উত্তরাখণ্ডের দারুন ভিউ দেখে তিনি খুবই আনন্দিত। নেহা একটি মাটিতে পড়ে থাকা গাছের গুঁড়ির ওপর বসেন। সূর্যের রশ্মি উপভোগ করতে করতে ক্যামেরার দিকে তাকিয়ে হেসে ফেলেন। এর পর তিনি যেটা করলেন সেটা সবথেকে হাস্যকর। সেই গাছের ওপর পা ভাঁজ করে বসে তিনি ধ্যান করা শুরু করলেন। হঠাৎই ধ্যান ছেড়ে নেহার হাসি মুখটি ফুটে উঠল ক্যামেরায়। এই ভিডিওটির ব্যাকগ্রাউন্ডে চলছিল জব হ্যারি মেট সেজল (Jab Harry met Sejal) সিনেমার জনপ্রিয় গান হাওয়ায়ে (Hawayein)।

নেহা এই ভিডিও পোস্ট করে ক্যাপশনে লেখেন, "ইয়ে জাগা অউর উসপে ইয়ে গানা (এইরকম জায়গা তারওপর এত সুন্দর একটি গান).....বিউটি অ্যাট ইটস বেস্ট!! বাই দ্য ওয়ে...গুড মর্নিং!!” এরপরই তাঁর স্বামী রোহনপ্রীত সিং এই ভিডিওটির কমেন্টে লেখেন, “ইয়ে জাগা অউর তুম = হেভেন (এই জায়গা আর তুমি = স্বর্গ)”

তাঁর ফ্যানেরাও কমেন্টে সেকশনে ভালবাসায় ভরিয়ে দেন। “বিউটিফুল,” একজন ফ্যান বলেন। “সো কিউট (হার্ট ইমোজি সহ),” আরও একজন কমেন্ট করেন। আরও অনেকে হার্ট আর ফায়ার ইমোজি দিয়ে তাঁদের ভালোবাসা জ্ঞাপন করেন। উত্তরাখণ্ডের, ঋষিকেশে নেহা জন্মগ্রহণ করেন এবং সেখানেই বড় হয়ে ওঠেন। গায়িকা প্রায়শই তাঁর হোমটাউনে গিয়ে এইরকম সুন্দর সুন্দর পোস্ট শেয়ার করে থাকেন। গত সপ্তাহে, ভোরবেলায় হাঁটতে যাওয়ার আগে বাড়ি থেকে একটি পোস্ট শেয়ার করেন।

স্মৃতি মন্থন করা ছাড়াও, শুক্রবার নেহা জানান তিনি এবং তাঁর স্বামী রোহনপ্রীত ওয়ার্ল্ড এনভায়রনমেন্ট ডে-র (World Environment Day) দিনে ইউনাইটেড নেশন এনভায়রনমেন্ট প্রোগ্রাম (United Nations' environment program) এবং আসিফ ভামলা ফাউন্ডেশনের (Asif Bhamla Foundation) প্রতি সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন।

Instagram-এ একটি ভিডিওর মাধ্যমে তিনি এই ঘোষণা করেন এবং লেখেন, “আমরা যেভাবে এগিয়ে চলেছি #WorldEnvironmentDay -তে ফের তা মনে করা হোক”। “ফের এই জগতকে পুনরায় তৈরি করে, সুন্দর করে তুলতে হবে আগামী প্রজন্মের জন্য #GenerationRestoration with #DhartiKaDil @moefccgoi @unep @bhamlafoundation @saherbhamla #EcosystemRestoration."”

Published by:Piya Banerjee
First published: