‘কপালে জুটে গিয়েছে, ফেঁসে গিয়েছি অকালে’, তৃণার বায়নাক্কায় এখন আফসোস করছেন নীল!

‘কপালে জুটে গিয়েছে, ফেঁসে গিয়েছি অকালে’, তৃণার বায়নাক্কায় এখন আফসোস করছেন নীল!

সব কিছুই তো ঠিকঠাকই চলছিল । কিন্তু হঠাৎ কী এমন হল যাতে নীলের মুখে তৃণাকে নিযে শোনা গেল বিস্তর অভিযোগ । তৃণার আচরণে আর বায়নাক্কায় অতিষ্ঠ নীল ।

সব কিছুই তো ঠিকঠাকই চলছিল । কিন্তু হঠাৎ কী এমন হল যাতে নীলের মুখে তৃণাকে নিযে শোনা গেল বিস্তর অভিযোগ । তৃণার আচরণে আর বায়নাক্কায় অতিষ্ঠ নীল ।

  • Share this:

    #কলকাতা: বাংলার ঘরে ঘরে তাঁরা পৌঁছে গিয়েছেন অনেক আগেই ৷ একজন নীল ভট্টাচার্য্য, অন্যজন তৃণা সাহা ৷ সকলে তাঁদের চেনেন ‘কৃষ্ণকলি’র নিখিল আর ‘খড়কুটো’র গুনগুনের নামেই নামেই৷ সন্ধে হলেই আম-বাঙালির চোখ সেঁটে যায় টিভির পর্দায় প্রিয় চরিত্র নিখিল আর গুনগুনের সংসার ও তাঁদের জীবনের উত্তান-পতন দেখতে ।

    তবে রিল লাইফে যাই হোক না কেন রিয়েল লাইফে তাঁরা এখন নবদম্পতি । সদ্যই বিয়ে হয়েছে নীল আর তৃণার । বিশাল ধূমধাম করে সেই বিয়ের আসর বসেছিল । কলেজ লাইফের ১০ বছরের প্রেম অবশেষে পূর্ণতা পেয়েছে । শুধু তাই নয়, কোপ-কপোতী সদ্য পা রেখেছেন রাজনীতির ময়দানেও । তৃণমূলে নাম লিখিয়েছেন তাঁরা । ভোটের প্রচারেও নেমেছেন এক যোগে । আর তারপর টেলিভিশনের এই জনপ্রিয় দম্পতি পাড়ি দিয়েছেন হনিমুনে । ব্যস্ত শিডিউল থেকে সময় বের করে বন্ধুবান্ধবের সঙ্গে নর্থ বেঙ্গল বেড়াতে গিয়েছেন তাঁরা । তাঁদের মধুচন্দ্রিমার একাধিক ছবি আর ভিডিও এখন ভাইরাল সোশ্যাল মিডিয়ায় ।

    সব কিছুই তো ঠিকঠাকই চলছিল । কিন্তু হঠাৎ কী এমন হল যাতে নীলের মুখে তৃণাকে নিযে শোনা গেল বিস্তর অভিযোগ । তৃণার আচরণে আর বায়নাক্কায় তিনি বলেই বসলেন, ‘ফেঁসে গেছি আমি অকালে ।’ তবে ব্যাপারটা পুরোটাই মজার ছলে । বাস্তবে এমনটা একেবারেই ঘটেনি । সম্প্রতি ইনস্টাগ্রামে মজার একটি রিল ভিডিও করেছেন তাঁরা । সেখানেই জনপ্রিয় একটি বাংলা গানের সঙ্গে দু’জনকে খুনসুটি করতে দেখা গিয়েছে । তৃণার হাবভাবকে মহারাণি ভিক্টোরিয়ার সঙ্গে তুলনা করেছেন নীল । ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, বাথরুমের মধ্যে ঢুকে কানে হেডফোন লাগিয়ে বাথটবে গা এলিয়ে শুয়ে মোবাইল ঘাঁটতে ঘাঁটতে রাণির মতো রেড ওয়াইনে চুমুক দিচ্ছেন তৃণা । আর বাথরুমের বাইরে নীল অপেক্ষা করছেন তাঁর জন্য । নীল-তৃণার মজার এই ভিডিও নিমেষে মন জয় করে নিয়েছে দর্শকদের । সঙ্গে সঙ্গেই তা ভাইরাল হয়েছে ।

    Published by:Simli Raha
    First published:

    লেটেস্ট খবর