Rupanjana Mitra: 'রাজনীতিতে ওঁর মতো ভদ্রলোক দরকার', বুদ্ধদেবকে নিয়ে বিজেপির রূপাঞ্জনার মন্তব্য ঘিরে জোর জল্পনা

Rupanjana Mitra: 'রাজনীতিতে ওঁর মতো ভদ্রলোক দরকার', বুদ্ধদেবকে নিয়ে বিজেপির রূপাঞ্জনার মন্তব্য ঘিরে জোর জল্পনা

প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের (Buddhadeb Bhattacharjee) প্রশংসায় পঞ্চমুখ হলেন বিজেপি-তে যোগ দেওয়া অভিনেত্রী রূপাঞ্জনা মিত্র (Rupanjana Mitra)।

প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের (Buddhadeb Bhattacharjee) প্রশংসায় পঞ্চমুখ হলেন বিজেপি-তে যোগ দেওয়া অভিনেত্রী রূপাঞ্জনা মিত্র (Rupanjana Mitra)।

  • Share this:

    #কলকাতা: প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের (Buddhadeb Bhattacharjee) প্রশংসায় পঞ্চমুখ হলেন বিজেপি-তে যোগ দেওয়া অভিনেত্রী রূপাঞ্জনা মিত্র (Rupanjana Mitra)। দাবি করলেন বুদ্ধদেববাবুর মতো ভদ্রলোক সব রাজনৈতিক দলেই প্রয়োজন। রূপাঞ্জনার তরফ থেকে এই মন্তব্য দেখে তাজ্জব বনে গেলেন নেটিজেনদের অনেকেই।

    বৃহস্পতিবার টেলি অভিনেতা জিতু কমল (Jeetu Kamal) একটি পোস্ট করেন। জিতু বাম সমর্থক এবং গতকাল বামেদের রোড শোয়েও তিনি ছিলেন। তিনি ফেসবুকে লেখেন, "মাথায় রাখবেন, এখনও আমার এবং আমাদের এবং আপামর পশ্চিমবাংলার অভিভাবক জীবিত। তাই আমরা নির্ভীক, আমরা উদ্যমী, আমরা আমাদের লক্ষ্যে অবিচল। আর পিতৃতুল্য অভিভাবকের কথা শুনতে আমরা বদ্ধপরিকর। স্যর বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য, আপনিই আমার সব। আপনিই আমার শুরু,আপনিই আমার শেষ।"

    জিতুর এই পোস্টেই রূপাঞ্জনা এসে কমেন্ট করেন। বিজেপির তারকা সদস্য লেখেন, "প্রত্যেক দলে ওঁর মতোই একজন নেতার দরকার। একটু ভদ্রলোকজন দরকার ভাই সব দলেই। সৎ নেতা। রূপাঞ্জনার এই মন্তব্য মুহূর্তে ছড়িয়ে পড়ে সোশ্যাল মিডিয়ায়।"

    এই মন্তব্য প্রকাশ্যে আসতেই রাজনৈতিক মহলে জল্পনা শুরু হয়েছে। প্রশ্ন উঠছে, তাহলে কি বিজেপি-তে রূপাঞ্জনার যাত্রা বিজেপিতে শেষ হতে চলেছে? অনেকেই আবার দাবি করছেন, বিধানসভা নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ার টিকিট না পাওয়ায় গেরুয়া শিবিরের সঙ্গে দূরত্ব তৈরি হয়েছে রূপাঞ্জনার।

    মাথায় রাখবেন,এখনও আমার এবং আমাদের এবং আপামর পশ্চিমবাংলার অভিভাবক জীবিত.. তাই আমরা নির্ভীক, আমরা উদ্যোমী, আমরা আমাদের... Posted by Jeetu Kamal on Wednesday, 7 April 2021

    কিছুদিন আগে শিল্পীমহলের বিরুদ্ধে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের মন্তব্যেরও নিন্দা করেন রূপাঞ্জনা। এক সংবাদমাধ্যমের কাছে শিল্পীদের সরাসরি হুমকি দিয়েছেন দিলীপ ঘোষ। তাঁর দাবি শিল্পীদের অভিনয়, নাচ, গান ইত্যাদি নিয়েই থাকা উচিত। রাজনীতিতে না আসাই উচিত। রাজনীতিতে শিল্পীরা এলে তাঁদের কী পরিণতি হবে তাও হুমকির সুরে বলেছেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি। আর তাতেই নিন্দার ঝড় ওঠে।

    রূপাঞ্জনা ফেসবুকে একটি পোস্ট করে লিখেছেন, "আজ শিল্পী হয়ে নিজেকে খুব ছোট মনে হচ্ছে। রঙ মাখি বলে আমাদের এভাবে অপমান করা যাবে? রগড়ে দেওয়া হবে আমাদের পরিশ্রম। আমাদের নিজেদের কাজের প্রতি সততা, নিষ্ঠাকে অসম্মান করা হবে? না ন্যাকামি করছি না। আমার বিজেপি কর্মীদেরও বলছি, ভীতু হয়ে থেকো না। যথেষ্ট হয়েছে। আমি এমন অসম্মানজনক আচরণের সমর্থন করতে পারব না।"

    তার কিছু দিন আগে বিজেপির তিন তারকা প্রার্থী শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্য়ায়, পায়েল সরকার, ও তনুশ্রী চক্রবর্তীর তৃণমূল নেতা মদন মিত্রের সঙ্গে রং খেলার ঘটনার সমালোচনায়ও সরব হয়েছিলেন তিনি। একের পরে এক বিজেপি বিরোধীতা দেখেই নেটিজেনদের জল্পনা, তা হলে কি এবার বিজেপির সঙ্গে সম্পর্কে ইতি টানবেন রূপাঞ্জনা মিত্র।

    Published by:Swaralipi Dasgupta
    First published: