Srijit: ইয়াসধ্বস্ত পরিবারদের ত্রাণ দেওয়ার উদ্যোগ, রেড ভলান্টিয়ার্সের প্রয়াস শেয়ার পরিচালকের

সৃজিত মুখোপাধ্যায়, ছবি-ফেসবুক

ইয়াস বিধ্বস্ত এলাকায় ত্রাণসামগ্রী পৌঁছে দিতে এই উদ্যোগের কান্ডারি কসবা ১০৭ নম্বর ওয়ার্ডের রেড ভলান্টিয়ার্স ৷ নিজেদের এই প্রয়াসের তাঁরা নামকরণ করেছেন ‘সাথী’৷

  • Share this:

    লকাতা :  রেড ভলান্টিয়ার্সদের একটি উদ্যোগ নিজের ফেসবুকে শেয়ার করলেন সৃজিত মুখোপাধ্যায় ৷ ইয়াস বিধ্বস্ত এলাকায় ত্রাণসামগ্রী পৌঁছে দিতে এই উদ্যোগের কান্ডারি কসবা ১০৭ নম্বর ওয়ার্ডের রেড ভলান্টিয়ার্স ৷ নিজেদের এই প্রয়াসের তাঁরা নামকরণ করেছেন ‘সাথী’৷

    ‘সাথী’-র উদ্যোগে দক্ষিণ ২৪ পরগনা ইয়াস বিধ্বস্ত অংশে পৌঁছে দেওয়া হবে ত্রাণ ৷ আগামী রবিবার, ৬ জুন তাঁদের স্বেচ্ছাসেবকরা ত্রাণ নিয়ে পৌঁছে যাবেন দক্ষিণ ২৪ পরগনার ক্ষতিগ্রস্ত অংশে ৷ নেটিজেনদের কাছে এই উদ্যোগে সামিল হওয়ার আর্জিও রাখা হয়েছে ৷

    সাহায্য করা যাবে দু’ভাবে ৷ অর্থসাহায্য করা যাবে ৷ নয়তো দেওয়া যাবে শুকনো খাবার এবং অন্যান্য অত্যাবশ্যকীয় জিনিস ৷ কী কী জিনিস দেওয়া যাবে তার তালিকাও দিয়ে দেওয়া হয়েছে ওই পোস্টে ৷ চাল, মুড়ি, ডাল, শিশুর জন্য গুঁড়ো দুধ, সাবান, ওআরএস, খাবার জলের পাউচ, বাতাসা, চিঁড়ে, সয়াবিন, ভোজ্য তেল, ছাতু, চাল, স্যানিটারি ন্যাপকিন এবং মাস্ক—এই জিনিসগুলি চাওয়া হয়েছে নেটিজেনদের কাছে ৷ ৫০০ টি ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের কাছে এই ত্রাণ পৌঁছে দেওয়ার পরিকল্পনা করেছে ‘সাথী’ ৷

    ফেসবুকে নিজের প্রোফাইল বহুদিন ধরেই অতিমারি সংক্রান্ত তথ্যের জন্য খুলে দিয়েছেন সৃজিত ৷ নিজেও সামিল হয়েছেন উদ্যোগে ৷ কোভিডরোগীদের নিখরচায় খাবার পৌঁছে দেওয়ার ব্যবস্থা করেছেন তিনি ৷ পাশাপাশি, ‘O2 কু সবার’ প্রয়াসেও অন্যতম প্রধান মুখ সৃজিত নিজে ৷ প্রশাসন ও রাজ্য সরকারের উদ্যোগে এই সংস্থা তৈরি করেছে ভ্রাম্যমাণ নিরাপদ আবাস ৷ দুই ২৪ পরগনা, নদিয়া-সহ বিভিন্ন জেলায় পৌঁছে গিয়েছে এই মোবাইল সেফ হোম ৷ পাশাপাশি, কলকাতায় স্বল্পমূল্যে বা প্রয়োজনে বিনামূল্যে অক্সিজেন পরিষেবা দেওয়ার উদ্যোগ নিয়েছে ‘O2 কু সবার’৷ গড়িয়াহাটে খোলা হয়েছে সেফ হোম ৷ আয়োজন করা হয়েছে রক্তদান শিবিরের ৷ ইয়াসধ্বস্ত এলাকাতেও ত্রাণ বিলির ক্ষেত্রে অগ্রণী ভূমিকা নিয়েছে এই প্রয়াস ৷

    Published by:Arpita Roy Chowdhury
    First published: