Rahul and Disha Wedding: হিরের গয়না উপহার দিয়েই বাড়ির পথে রাখি, গভীর রাতে পথে গাড়ি বিকল মিকার

রাখি সাওয়ন্ত ও মিকা সিং, ফাইল ছবি

রাখি বলেন যে তিনিও দিশা আর রাহুলের বিয়েতে আমন্ত্রিত ছিলেন বটে কিন্তু মিকার এই গাড়ি খারাপ হওয়ার ঘটনাটা তিনি জানেন না।

  • Share this:

#মুম্বই: রাখি সাওয়ান্ত (Rakhi Sawant) আর মিকা সিংয়ের (Mika Singh) সম্পর্ক এক সময় সাপে নেউলের মতো ছিল। নেপথ্যে তাঁদের সেই বিখ্যাত চুম্বন পর্ব। অবশ্য রাখি আর মিকা এখন পুরনো কথা মনে না রেখে বন্ধু হয়ে গিয়েছেন। একসঙ্গে ডিনার খাওয়া বা সিনেমা দেখার মতো ঘনিষ্ঠতা না হলেও মোটামুটি সৌজন্য দেখান তাঁরা পরস্পরকে। রাহুল বৈদ্য (Rahul Vaidya) এবং দিশা পরমারের (Disha Parmar) বিয়েতে আমন্ত্রিত ছিলেন রাখি ও মিকা দু'জনেই। না, তাঁরা গিয়েছিলেন আলাদাই, এবার ফেরার সময় মাঝরাস্তায় রাত তিনটে নাগাদ মিকার গাড়ি খারাপ হয়ে যায়।

এর জন্য অবশ্য বিশেষ কোনও অসুবিধায় পড়তে হয়নি মিকাকে। কারণ তাঁকে সাহায্য করতে এগিয়ে আসেন বহু মানুষ। সেই ভিডিও ভাইরাল হয়ে যায় সোশ্যাল মিডিয়ায়। রাখি আজকাল খুব মন দিয়ে শরীরচর্চা করছেন। তাঁকে বেশিরভাগ সময়ই জিমের আশেপাশে পাওয়া যায়। সাংবাদিকরা ফলে জিমে একা পেয়ে রাখির কাছে তোলেন এই ঘটনার কথা।

যদিও রাখি বলেন যে তিনিও দিশা আর রাহুলের বিয়েতে আমন্ত্রিত ছিলেন বটে কিন্তু মিকার এই গাড়ি খারাপ হওয়ার ঘটনাটা তিনি জানেন না। বহু মানুষ যে মিকাকে অত রাত্রেও এগিয়ে এসে সাহায্য করেছেন এটা শুনে দারুণ খুশি হন রাখি। তিনি বলেন এটা একটা খুব মিষ্টি ব্যাপার। তবে এইবার মিকা নিশ্চয়ই একটা নতুন গাড়ি কিনবেন বলে আশা করছেন রাখি।

একই বিয়েবাড়িতে গেলেও মিকার সঙ্গে দেখা হয়নি রাখির। রাখি জানান যে তিনি বিয়েবাড়ি থেকে প্রায় দৌড়ে বাড়ি এসেছেন। কারণ সেখানে পৌঁছেই তিনি খবর পান যে তাঁর মা বাথরুমে পা পিছলে পড়ে গিয়েছেন। প্রযোজক বিকাশ গুপ্তকে (Vikash Gupta) সঙ্গে নিয়ে পড়িমরি করে বাড়ি যান রাখি। রাখি চেয়েছিলেন তাঁর জনপ্রিয় গান ‘ড্রিম মে এন্ট্রি’-র সঙ্গে নাচবেন। কিন্তু মায়ের মেসেজ পেয়ে তিনি চলে যান। দলের মেহেন্দির (Daler Mehendi) অনুষ্ঠান শুরু হওয়ার সময়ই বিয়েবাড়ি ছাড়েন রাখি। বাড়ি ফিরে মাকে অচৈতন্য অবস্থায় পান তিনি।

তবে বিয়েবাড়িতে বেশিক্ষণ না থাকতে পারলেও দিশা আর রাহুলকে শুভকামনা জানিয়েছেন রাখি। দিশাকে তিনি উপহার দিয়েছেন হিরের গয়না।

Published by:Arpita Roy Chowdhury
First published: