• Home
  • »
  • News
  • »
  • entertainment
  • »
  • PROSENJIT CHATTERJEE SHARES AN HEARTFELT LETTER ON THE BIRTHDAY OF RITUPARNO GHOSH ARC

Prosenjit Chatterjee : ঋতুপর্ণর জন্মদিনে চিঠিতে আলুপোস্ত আর নতুন চিত্রনাট্যের খোঁজ নিলেন তাঁর দোসর

বন্ধুত্বের জোরেই তাঁর দাবি, ভুল হলে রাগ করতে পারবেন না ঋতুপর্ণ

প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় (Prosenjit Chatterjee) চিঠি লিখলেন ৷ তিনি যে তাঁর মতো ভাল লিখতে পারেন না, প্রথমেই স্বীকার করে নিলেন তাঁর দোসর ঋতুপর্ণ ঘোষের (Rituparno Ghosh) কাছে ৷

  • Share this:

    কলকাতা : যে কাজটা কোনওদিনও সেভাবে করে উঠতে পারেননি, সেটাই দোসরের জন্মদিনে করলেন প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় (Prosenjit Chatterjee) ৷ চিঠি লিখলেন ৷ তিনি যে তাঁর মতো ভাল লিখতে পারেন না, প্রথমেই স্বীকার করে নিলেন তাঁর দোসর ঋতুপর্ণ ঘোষের (Rituparno Ghosh) কাছে ৷

    সম্বোধন ‘প্রিয় ঋতু’ বলে ৷ বলেছেন, ঋতু জানেন তাঁর এই বন্ধু সেভাবে কোনওদিন কাউকে চিঠি লেখেননি ৷ তবু ‘ঋতুর’ জন্মদিনে একটু চেষ্টা করলেন ৷ বন্ধুত্বের জোরেই তাঁর দাবি, ভুল হলে রাগ করতে পারবেন না ঋতুপর্ণ ৷

    প্রসেনজিৎ লিখেছেন, ‘‘ তোর সৃজনশীলতার রঙে তুই অনন্যভাবে রাঙিয়েছিস চলচ্চিত্র জগৎকে এবং অবশ্যই তোর সমস্ত সৃষ্টিকে ৷’’ এ তো গেল সার্বিক চলচ্চিত্রের জগৎ ৷ প্রসেনজিতের জীবনে? নায়ক বলেছেন, তাঁর জীবনে ঋতুপর্ণর অবদান কয়েকটা শব্দে বোঝানো সম্ভব নয় ৷ বন্ধুর কাছে অবশ্য বোঝানর প্রয়োজনও নেই, জানেন প্রসেনজিৎ ৷ কারণ, বন্ধুও সব জানেন ৷ সবই বোঝেন ৷

    কিন্তু জন্মদিনে শুধু কাজের কথা দিয়েই চিঠি? তাও কখনও হয়? চিঠির শেষে ‘চোখের বালি’-র ‘মহেন্দ্র’ জানতে চেয়েছেন পরিচালকের কাছে, আজকের মেনু কী? থাকছে তো আলুপোস্ত?

    খাবারের পাশাপাশি প্রসেনজিৎ জিজ্ঞাসা করেছেন, নতুন চিত্রনাট্য কতদূর? সঙ্গে আর্জি, শেষ হলেই তাঁকে শোনাতে হবে কিন্তু ৷ অপেক্ষায় থাকবেন প্রসেনজিৎ ৷

    প্রয়াত পরিচালক ঋতুপর্ণ ঘোষের জন্মদিন ছিল মঙ্গলবার ৷ ১৯৬৩ সালের ৩১ অগাস্ট জন্মগ্রহণ করেছিলেন তিনি ৷ বাংলা তথা ভারতীয় চলচ্চিত্রে তাঁর হাত ধরেই সূচিত হয়েছিল নতুন যুগ, বিশ্বাস করেন চলচ্চিত্র অনুরাগীরা ৷

    ঋতু্পর্ণর পরিচালনায় ‘উৎসব’, ‘চোখের বালি’, ‘দোসর’, ‘খেলা’-র মতো ছবির মাধ্যমেই একের পর এক নতুন রূপে ধরা দেন প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় ৷ তাঁর পরিচিত ভাবমূর্তি বিচূর্ণ হয়ে উত্তরণ ঘটে নতুন ঘরানায় ৷ এই রূপান্তরের জন্য বার বার ঋতুপর্ণকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন প্রসেনজিৎ ৷ তবে পরিচালকের বাকি ঘনিষ্ঠদের মতো তিনিও ডাকনামেই সম্বোধিত হতেন ৷ সেই নামটাই লিখলেন চিঠির শেষে—‘‘ভাল থাকিস৷ শুভ জন্মদিন৷ ইতি, বুম্বা৷’’

    Published by:Arpita Roy Chowdhury
    First published: