Home /News /entertainment /
KK Death: 'বুকে ব্যথা সহ্য করেই গান করছিলেন!' জানালেন ফিরহাদ হাকিম! শেষ ভিডিওতে কেকে-র মুখে যন্ত্রণা স্পষ্ট!

KK Death: 'বুকে ব্যথা সহ্য করেই গান করছিলেন!' জানালেন ফিরহাদ হাকিম! শেষ ভিডিওতে কেকে-র মুখে যন্ত্রণা স্পষ্ট!

KK Death: শেষ ভিডিওতে কেকে-কে দেখলে কেঁদে উঠবেন! কোন শক্তিতে শেষ পর্যন্ত এত কষ্ট সহ্য করে গান করছিলেন তিনি? কেন সতর্ক হয়নি বাকিরা? উঠছে প্রশ্ন

  • Share this:

    #কলকাতা: প্রয়াত জনপ্রিয় সঙ্গীতশিল্পী কৃষ্ণকুমার কুন্নাথ (কেকে)। মঙ্গলবার কলকাতার নজরুল মঞ্চে উল্টোডাঙার গুরুদাস মহাবিদ্যালয়ের গানের অনুষ্ঠান ছিল তাঁর। অনুষ্ঠান শেষে অসুস্থ বোধ করেন তিনি। হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে চিকিৎসকরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। জানা গিয়েছিল নজরুল মঞ্চে অনুষ্ঠান চলাকালিন সময়ে একবার বুকে ব্যথা অনুভব করেন তিনি। সেই খবরেই সিলমোহর বসালেন ফিরহাদ হাকিম। তিনি জানান, "নজরুল মঞ্চে একবার বুকে ব্যথা অনুভব করেছিলেন কে কে। তবুও দর্শকদের কথা ভেবে গান চালিয়ে গেছেন। হোটেলে ফিরে আরো একবার ব্যথার কবলে পড়েন।"

    সত্যিই যে কষ্ট হচ্ছিল কেকে-র তা শেষ ভিডিও সামনে আসতেই আরও স্পষ্ট। সেখানে দেখা যাচ্ছে ঘামে ভিজে আছেন গায়ক। অনুষ্ঠান শেষ করেই হাতের মাইক ফেলে দিয়ে নিজের রক্ষীর হাত চেপে ধরেন। তাঁকে সঙ্গে সঙ্গে মঞ্চের বাইরে নিয়ে যাওয়া হয়। সে সময় একেবারে ক্লান্ত কেকে। শেষ এই ভিডিওতে তাকানো যাচ্ছে না কেকে-র মুখের দিকে। দেখেই বোঝা যাচ্ছে শরীরের অস্বাভাবিক কষ্ট চেপে রেখে গান করে গেছেন তিনি। শেষ বারের এই ভিডিও সেই প্রমাণই দিচ্ছে। অথচ এক হল ভর্তি লোক কিছুই বুঝতে পারলেন না? অমানবিক পরিবেশে কেন চলতে দেওয়া হল গানের অনুষ্ঠান? সবটাই কি টাকা দেওয়া হয়েছে বলে করতে হবে? উঠছে প্রশ্ন।

    View this post on Instagram

    A post shared by News18.com (@cnnnews18)

    অথচ এই দৃশ্যের মাত্র মিনিট দশেক আগেও মঞ্চ কাঁপাচ্ছিলেন তিনি। প্রত্যেকটি অনুষ্ঠান শেষ করেন তাঁর নব্বইয়ের দশকের সাড়া ফেলা বন্ধুত্বের গান দিয়ে। মঙ্গলবার রাতে মঞ্চ থেকে নামার আগেও গেয়েছেন, ‘ইয়ারো দোস্তি বড়ি হি হাসিন হ্যায়, ইয়ে না হো তো কেয়া ফির বোলো ইয়ে জিন্দগি হ্যায়...’ তারপরই কিছুক্ষণের মধ্যে সব শেষ।

    নজরুল মঞ্চের মাত্রাতিরিক্ত ভিড়, অব্যবস্থা নিয়েই ইতিমধ্যেই অভিযোগের আঙুল উঠতে শুরু করেছে। উপস্থিত অনেকেই বলছেন, মঙ্গলবার এই ভিড়ের পরিস্থিতি সামাল দিতে রবীন্দ্র সরোবর থানার পুলিশ এসেছিল। কিন্তু উদ্যোক্তারা পুলিশের বারণ শোনেনি বলেই অভিযোগ। যা সিট ক্যাপাসিটি, তার থেকে দ্বিগুণের বেশি দর্শক ঢোকা নিয়ে পুলিশ আপত্তি করেছিল। কিছুই শোনা হয়নি। তাহলে এই মৃত্যুর দায় কার? সোশ্যাল মিডিয়া উত্তাল এই প্রশ্নে! তদন্তের দাবি জানানো হয়েছে বিভিন্ন মহল থেকে।

    Published by:Piya Banerjee
    First published:

    Tags: Bollywood, KK, KK Death

    পরবর্তী খবর