Kalank Review: অবৈধ প্রেম নিয়ে করণের ‘কলঙ্ক’ ! তারকার চমক, বনশালির কপি করেও ডুবল ছবি !

Kalank Review: অবৈধ প্রেম নিয়ে করণের ‘কলঙ্ক’ ! তারকার চমক, বনশালির কপি করেও ডুবল ছবি !
Kalank Review
  • Share this:

#কলকাতা: দেশভাগ নিয়ে ছবি আগেও তৈরি হয়েছে বলিউডে ৷ নামী-দামি বহু পরিচালকেরা একবার না একবার ছবির প্রেক্ষাপট হিসেবে ব্যবহার করেছেন দেশভাগকে ৷ আগের ছবি গুলোর মতোই করণ জোহরের প্রোডাকশনে তৈরি পরিচালক অভিষেক বর্মনের এই ‘কলঙ্ক’-এর প্রেক্ষাপট সেই ১৯৪৬ ও দেশভাগ ৷ সঙ্গে দাঙ্গা ! তবে এর সঙ্গে অভিষেক ও করণ যুক্ত করলেন এক জটিল প্রেমের গল্প ৷ মোটামুটি এর ওপরই দাঁড়িয়ে রয়েছে ‘কলঙ্ক’ ছবি ৷ যেখানে অভিনেতারা গল্পের খাতিরে শুধু অভিনয় করে গিয়েছেন ৷

তাহলে কী দাঁড়াল এই ছবি ভাল নাকি খারাপ? এই প্রশ্নের উত্তর একটু ধীরে ধীরে খোলসা করা যাক বরং ৷ ঠিক ‘কলঙ্ক’-এর কায়দায় ৷ শুরু করা যাক সিনেমার শেষ থেকেই ৷ যেখান থেকে আসলে শুরু হয় ছবিটির গল্প ৷ না ঠিক ক্লাইম্যাক্সের মতো করে নয়, বরং প্রথাগত নিয়মকে না মেনে অভিষেক বর্মন, ছবির প্রথম অংশে খুবই অগোছালো করে চরিত্রগুলোকে সামনে নিয়ে আসেন ৷ আর সেই চরিত্রগুলোর আচার-আচরণকে একে একে সাজিয়ে গোটা ছবির গল্পকে তুলে ধরেন ৷ তাই হয়তো ছবির শুরুতে একের পর এক দৃশ্য নানারকম সিকোয়েন্সে আসতে থাকে ৷ আর ছবির ঠিক বিরতির আগে সেই সিকোয়েন্স গুলিই পর পর সাজিয়ে গল্পের আসল উদ্দেশ্য পরিষ্কার হয় ৷ বলা যেতে পারে, কলঙ্ক ছবির গল্পটা আসলে শুরু হয় বিরতির পর থেকেই ৷

Kalank-Picture-11

‘কলঙ্ক’ এক জটিল প্রেমের ছবি ৷ যেখানে ক্যানসারে আক্রান্ত স্ত্রী (সোনাক্ষি সিনহা) তাঁর স্বামীকে(আদিত্য রায় কাপুর) দ্বিতীয় বিয়ে করানোর জন্য রাজি করে ফেলে ৷ আর এই দ্বিতীয় বিয়েটিই ঘটে উচ্ছ্বল রূপ (আলিয়া ভাট)-এর সঙ্গে ৷ সংসারকে বাঁচানোর জন্য রূপ এই সিদ্ধান্ত নিয়ে বাড়ি ছেড়ে চলে আসে লাহোরের হুসনাবাদ নামে একটি শহরে ৷ এই রঙিন হুসনাবাদেই রূপের সঙ্গে ঘটনাচক্রে আলাপ হয় বাঈজি বেগম বাহার (মাধুরী দাক্ষিত) ও এলাকার সবচেয়ে জনপ্রিয় ছেলে জাফর (বরুণ ধাওয়ান)-এর সঙ্গে ৷ বেগম বাহারের কাছে গান শেখে রূপ ৷ জাফরের সঙ্গে প্রেম৷ ততক্ষণে ছবির গল্পে স্পষ্ট ইঙ্গিত এই বেগম বাহার-ই হল জাফরের মা ৷ আর বাবা হলেন এলাকার নামী-দামি সাংবাদিক ও সংবাদপত্রের সম্পাদক বলরাজ চৌধুরী ওরফে সঞ্জয় দত্ত ৷ আর তাঁর আরেক পরিচয় রূপের শ্বশুর ৷ সুতরাং একদিকে পূর্বে ঘটে যাওয়া বেগম ও বলরাজের অবৈধ প্রেম, অন্যদিকে জাফর ও রূপের আরেক অবৈধ প্রেম ৷ এর মাঝখানে দেব ওরফে আদিত্য রায় কাপুরের প্রেম নিয়েই তৈরি হয় কলঙ্ক ৷ বলা ভালো এক কলঙ্কের পুনরাবৃত্তি ৷

kalank-first-song-thumb

তবে এখানেই শেষ নয়, এই জটিল প্রেম কাহিনিতে রয়েছে আরও একটি ট্যুইস্ট, মুসলিম লিগের সঙ্গে সংবাদপত্রের লড়াই ৷ যে সংবাদপত্র দেশভাগের বিরোধিতা করে ৷ ছবির এই ট্যুইস্টটিই আসলে ছবির ভিলেন, আর এর মুখপাত্র আহমদ ওরফে কুণাল খেমু ! মোটামুটি এই গল্পকেই জটিল প্রেমের মোড়কে ফেলেছেন পরিচালক অভিষেক ৷

‘কলঙ্ক’ এমন একটি ছবি যা দেখে তাক লেগে যেতে পারে ৷ এতটাই সুন্দর করে সাজানো প্রত্যেকটি ফ্রেম ৷ বাহবা দিতে হয় পটু হাতের শিল্প নির্দেশনাকে ৷ অনেক সময় মনে হতে বাধ্য এই ছবি বনশালির নয় তো ! তবে এখানেই চ্যালেঞ্জ নিয়েছিলেন সিনেম্যাটোগ্রাফার বিনোদ প্রধান ৷ যার ক্যামেরা ছবির গল্পের বাইরেও অন্য আরেকটি গল্প লিখে যাচ্ছিল ৷ যা কিনা একেবারেই স্বতন্ত্র ও মৌলিক ৷ বেশি করে নজরে পড়ে ‘ঘর মোরে পরদেশিয়া’ ও ‘তাবাহ হো গয়ে’ গানে ৷ ঠিক যেন স্ক্রিনজুড়ে রূপকথা তৈরি হয়েছিল ৷

14_04_2019-kl_pre_1_19132325

সিনেম্যাটোগ্রাফির পরে এই ছবির আরও একটি স্ট্রং পয়েন্ট হল ছবির সঙ্গীত ৷ যা কিনা মন্ত্রমুগ্ধ ৷ পিরিয়াড প্রেমের ছবির ক্ষেত্রে একেবারে পারফেক্ট !

সঞ্জয় দত্ত, মাধুরী দাক্ষিত, আলিয়া ভাট, বরুণ ধাওয়ান, সোনাক্ষি সিনহা ও আদিত্য রায় কাপুর ৷ সিনেমা জুড়ে বড় বড় নাম ৷ ২ ঘণ্টা ৫০ মিনিটের ছবিতে তাই ছবি জুড়ে বাঘা বাঘা অভিনেতাদের ক্রমাগত আসা যাওয়া ৷ ব্যাপারটা অনেকটাই শেয়ানে শেয়ানে ৷ যার মধ্যে অবশ্যই নজর কাড়েন বরুণ ধাওয়ান ৷ সুঠাম চেহারায়, জফরের চরিত্রে সঠিক নির্বাচন যে তিনি, তা প্রত্যেকটি দৃশ্যে প্রমাণ করেছেন বরুণ ৷ বরং আলিয়া এই ছবিতে রূপের চরিত্রে একটু দুর্বলই ৷ বরং নজর কেড়েছেন আদিত্য রায় কাপুর৷ সোনাক্ষিও খারাপ নয় ৷ তবে বহুদিন বাদে সঞ্জয় দত্ত ও মাধুরীর একই ফ্রেমে অভিনয় মনে দাগ কাটবে ৷ যে দৃশ্যটি ছবি থেকে পাওয়া সেরা দৃশ্য ৷

‘কলঙ্ক’ এমন একটি ছবি, যা কিনা খুব যত্ন করে তৈরি করা হয়েছে ৷ যা সুন্দর করে গোছানো ৷ তবে এই সুন্দর থাকাটাই ছবির ‘কলঙ্ক’ বটে ৷ ছবিটি অতিমাত্রায় দীর্ঘ ৷ প্রত্যেক স্টারকে স্ক্রিন টাইম দিতে গিয়ে ছবির বহু দৃশ্যই অসংগত ৷ আর গল্প বড্ড বেশি প্রেডিক্টেবল হওয়ায় আগ্রহ ধীরে ধীরে কমে যায়৷ তাই যে গুণগুলি ‘কলঙ্ক’-এর শক্তি হওয়া উচিত ছিল, তাই অনেক ক্ষেত্রে এই ছবির দুর্বলতা ৷

বলিউডের পিরিয়াড ছবির তালিকায় অবশ্যই ‘কলঙ্ক’ ওপরের দিকে জায়গা করে নেবে ৷ তবে মিল পেতে পারেন আমির খান অভিনীত 1947 আর্থ ছবির সঙ্গে  !

First published: 05:26:39 PM Apr 17, 2019
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर