Home /News /entertainment /
Singer KK Death: কেকে-র ক্ষতি চাইব নাকি, অত লোক মোটেও ছিল না, ভিন্নমত সেই কলেজের অধ্যাপকের!

Singer KK Death: কেকে-র ক্ষতি চাইব নাকি, অত লোক মোটেও ছিল না, ভিন্নমত সেই কলেজের অধ্যাপকের!

জানা গেল, বিকেল ৫টা নাগাদ কেকে-র মঞ্চে ওঠার কথা ছিল। কিন্তু তিনি প্রায় দেড় ঘণ্টা পরে গান গাইতে ওঠেন। তার পরে টানা দু’ঘণ্টা ধরে প্রবল স্বমহিমায়, জমজমাটি অনুষ্ঠান করেছেন।

  • Share this:

#কলকাতা: মঙ্গলবার রাত। ভুলতে পারছে না দেশ। বিশেষ করে কলকাতা। খানিক ক্ষণ আগে নজরুল মঞ্চে তাঁর গান শুনে বাড়ি ফিরে স্তম্ভিত। যাঁর গান শুনে ফিরলেন, তাঁর মৃত্যুর খবর আচমকা। নেই কৃষ্ণকুমার কুন্নত ওরফে বলিউডের প্রখ্যাত গায়ক কেকে। নিউজ১৮ বাংলার সঙ্গে কথা হল সেই এক জন মানুষের সঙ্গে, যিনি মঞ্চের পাশে দাঁড়িয়ে গান শুনেছেন কেকে-র। স্যার গুরুদাস মহাবিদ্যালয়ের ইংরেজির অধ্যাপক ড. প্রশান্ত ঘোষাল।

গায়িকা শুভলক্ষ্মী দে-র অনুষ্ঠান শেষ হওয়ার আগেই প্রশান্ত নজরুল মঞ্চে প্রবেশ করেছিলেন। তাঁর কথায় জানা গেল, বিকেল ৫টা নাগাদ কেকে-র মঞ্চে ওঠার কথা ছিল। কিন্তু তিনি প্রায় দেড় ঘণ্টা পরে গান গাইতে ওঠেন। তার পরে টানা দু’ঘণ্টা ধরে প্রবল স্বমহিমায়, জমজমাটি অনুষ্ঠান করেছেন তিনি। শেষে সকলকে শুভেচ্ছা জানিয়ে মঞ্চ থেকে বেরিয়ে কাচের দরজা ঠেলে সোজা গাড়িতে উঠে যান বলে জানালেন প্রশান্ত। এক মুহূর্তও অপেক্ষা করেননি। প্রশান্তের কথায়, ‘‘আসলে অনেক বড় শিল্পীকেই আগে দেখেছি, অনুষ্ঠান শেষ করে সোজা বেরিয়ে যান। দাঁড়ান না। তাই কিছু অস্বাভাবিক লাগেনি। অনুষ্ঠানের সময়ে আমি গোটা সময়ে মঞ্চের পাশে দাঁড়িয়ে ছিলাম। সুস্থ, সবল ছিলেন! এক বারের জন্যেও তাঁকে থামতে দেখিনি। এ বার যদি গরমের কথা বলা হয়, হ্যাঁ মাঝে একটু সময় এসি কাজ করছিল না বটে। ভীষণই গরম ছিল। কিন্তু আবার এসি কাজ করতে শুরু করে। সে সব তো সম্পূর্ণ ভাবে নজরুল মঞ্চের তরফে কিছু সমস্যা। আমাদের কলেজ এবং ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট টিমের তরফে ঠান্ডা পানীয়, জল, সব কিছুর ব্যবস্থা ছিল। খারাপ লাগছে এটা শুনে যে গাফিলতি ছিল এই তরফে। এত বড় এক জন তারকাকে নিয়ে আসা হয়েছে, ছাত্রদের বিনোদনের জন্য, তাঁর ক্ষতি চাইব নাকি আমরা কেউ! মানুষটা এ ভাবে চলে যাবেন, ভাবতে পারিনি কেউ।’’

প্রশান্তের দাবি, ছাত্রদের মধ্যে যা ধস্তাধস্তি হয়েছে বলে জানা যাচ্ছে, তা সবই নজরুল মঞ্চের বাইরে রাস্তায় হয়েছে। ভিতরে কিছু ঘটেনি। বাইরের ছেলেমেয়েদের ঢুকতে দেওয়া হয়নি বলেই বাগবিতণ্ডা হয়। তা ছাড়া মঞ্চের উপরেও যাঁদের দেখা গিয়েছে, তাঁরা মূলত কেকে-র নিরাপত্তারক্ষী, ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট টিম-এর লোকজন এবং স্বেচ্ছাসেবকরা। প্রশান্তের কথায়, ‘‘স্টেজের মাঝে অনেকটা জায়গা ফাঁকা ছিল। সেখানে ঘুরে ঘুরে তিনি গান গাইছিলেন। কেউ ভিড় করেনি সেখানে। সামনেও অনেকটা জায়গা ফাঁকা ছিল।’’

আরও পড়ুন: গানের জন্য এসেছিলেন যে শহরে, গানস্যালুট নিয়ে সেই কলকাতা ছাড়ছেন কেকে

আরও পড়ুন: ব্যাপক ভিড়েই মঞ্চে ছড়িয়ে পরে অগ্নি নির্বাপক গ্যাস! তাতেই কি অসুস্থ হয়ে পড়েন গায়ক? ভাইরাল ভিডিও দেখে উঠছে প্রশ্ন!

এ দিকে কেকে-র প্রয়াণে অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা দায়ের করেছে নিউ মার্কেট থানা। শুরু হয়েছে তদন্ত। কী কারণে তাঁর মৃত্যু তা এখনও স্পষ্ট নয়। যদিও প্রাথমিকভাবে জানা যায় হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে ৫৩ বছরের শিল্পীর। ফেসবুকে যে ভিডিও ভাইরাল হয়েছে সেখানে দেখা যাচ্ছে যে, গতকাল নজরুল মঞ্চে যখন অনুষ্ঠান করছিলেন কেকে, সেখানে আচমকাই অগ্নিনির্বাপক যন্ত্র চালিয়ে দেওয়া হয় আর তা থেকে ছড়িয়ে পড়ে গ্যাস। প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে, তবে কি এই গ্যাসের কারণে অসুস্থ হন তিনি? ভিড় নিয়েও নানা দিক থেকে অভিযোগ উঠছে।

Published by:Teesta Barman
First published:

Tags: KK dead, Music, Singer KK, Singer KK dead

পরবর্তী খবর