• Home
  • »
  • News
  • »
  • entertainment
  • »
  • GOSSIP WRITER ASHISH KAUL FILED A COPYRIGHT INFRINGEMENT CASE AGAINST KANGANA RANAUT ON MANIKARNIKA RETURNS PBD

ফের মামলায় ফাঁসলেন কঙ্গনা! এবার তাঁর বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগ...

লেখকের আইনজীবী সেই আপিলের বিরোধিতা করলে, আদালত জানায় কঙ্গনাকে এখনই নিস্তার দেওয়া হবে না।

লেখকের আইনজীবী সেই আপিলের বিরোধিতা করলে, আদালত জানায় কঙ্গনাকে এখনই নিস্তার দেওয়া হবে না।

  • Share this:

#মুম্বই: বলিউড অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউত (Kangna Ranaut) অভিনয় হোক বা কন্ট্রোভার্সি, দুই ক্ষেত্রেই তাঁর জুড়ি মেলা ভার। যে কোনও ক্ষেত্রে যখন-তখন শিরোনাম তৈরি করে দেওয়ায় সিদ্ধহস্ত তিনি। সিনেমার পর্দায় যেমন তিনি ভীষণ সাহসী, ঠিক তেমনটাই বাস্তবে। সম্প্রতি তাঁর বিরুদ্ধে মানহানির মামলা করা হয়েছে। কিছুদিন আগেই ‘মনিকর্ণিকা রিটার্ন্স: দ্য লেজেন্ড অব দিদ্দা’ (Manikarnika Returns: The Legend of Didda) নামে আরও একটি নতুন ছবি বানানোর কথা ঘোষণা করেছে বলিউড কুইন কঙ্গনা রানাউত। এর পরেই ছবিটির চিত্রনাট্য চুরি করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেন লেখক আশিস কৌল (Ashish Kaul)। অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে কপিরাইট লঙ্ঘনের অভিযোগ এনে একটি মানহানির মামলা করা হয়। লেখক আশিস কৌল দাবি করেন, ‘মনিকর্ণিকা রিটার্ন্স: দ্য লেজেন্ড অব দিদ্দা’ ছবিটির চিত্রনাট্য তাঁর লেখা বই ‘দিদ্দা: দ্য ওয়ারিয়র কুইন’ (Didda: The Warrior Queen of Kashmir)-এর মতো। দিদ্দা হলেন কাশ্মীরের একজন ওয়ারিয়র কুইন।

আশিস কৌল কঙ্গনার বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের পর, অভিনেত্রী এবং তাঁর ভাই বম্বে হাই কোর্টে তাঁদের বিরুদ্ধে এফআইআর বাতিল করার জন্য আবেদন করেন। লেখকের আইনজীবী সেই আপিলের বিরোধিতা করলে, আদালত জানায় কঙ্গনাকে এখনই নিস্তার দেওয়া হবে না। আশিস কৌলের আইনজীবী যোগিতা জোশী (Yogita Joshi) ও আমানি খান (Amani Khan) বলেন, “কঙ্গনা রানাউত পাসপোর্ট সংক্রান্ত একটি বিষয়ে পাসপোর্ট কেন্দ্রে আবেদন করেছিলেন। কিন্তু তাঁর নামে মামলা থাকার কারণে সেই আবেদন আমাদের ক্লায়েন্ট আশিস কৌলের আপিলে বান্দ্রা ম্যাজিস্ট্রেট কর্তৃক প্রত্যাখ্যান করা হয়”। এছাড়াও জানা গিয়েছে কঙ্গনা এই মামলায় পুলিশি হাজিরা এড়িয়েছেন, যার কারণে তদন্ত গতি হারিয়েছে।

আরও জানা গিয়েছে, আশিস কৌল তাঁর লেখা বইটি ‘দিদ্দা: দ্য ওয়ারিয়র কুইন’ কঙ্গনাকে দিয়েছিলেন। অভিনেত্রী যখন Twitter-এ ‘মনিকর্ণিকা রিটার্ন্স: দ্য লেজেন্ড অব দিদ্দা-র’ ঘোষণা করেছিলেন, তখন তিনি আশিস কৌলর কাছ থেকে কোনও অনুমতি নেননি। এর পরেই লেখক কপিরাইট-এর মামলা দায়ের করেন। ২০১৯ সালে ‘মনিকর্ণিকা: দ্য কুইন অব ঝাঁসি’ (Manikarnika: The Queen of Jhansi) মুক্তি পেয়েছিল। কঙ্গনার সেই ছবিটি নিয়েও বিতর্ক শুরু হয়েছিল। আবার মনিকর্ণিকা রিটার্ন্স নিয়ে বিতর্কের দানা বেঁধেছে। শুরু হয়েছে গুঞ্জন। এই ছবিটির ভবিষ্যৎ কী হবে তা সময় বলবে!

Published by:Pooja Basu
First published: