• Home
  • »
  • News
  • »
  • entertainment
  • »
  • GOSSIP KAREENA KAPOOR SAID SAIF ALI KHAN SHOULD BE WORRIED ABOUT HIS AGE INSTEAD OF HER SANJ

Kareena Kapoor Khan : ঘড়ির কাঁটা দৌড়চ্ছে সইফের জন্য! আচমকা স্বামীকে কেন 'বয়স-খোঁচা' দিয়েছিলেন করিনা?

বয়সের ফারাকে কি রোম্যান্সে ভাঁটা? Photo : File Photo

তাঁকে প্রশ্ন করা হয় যে নায়িকার বয়স বেড়ে যাচ্ছে, এই নিয়ে তিনি কি চিন্তিত? করিনার (Kareena Kapoor Khan) উত্তরও ছিল বেশ ছক ভাঙা গোছের...

  • Share this:

#মুম্বই: একসময় সইফ আলি খানের (Saif Ali Khan) কোলে হাসিমুখে বসে থাকা ছোট্ট বেবো  ওরফে করিনা কাপুর খানের (Kareena Kapoor Khan) ছবি বেশ জনপ্রিয় হয়েছিল। দিদি করিশমা কাপুরের (Karisma Kapoor) সঙ্গে সে দিন ছবির সেটে গিয়েছিলেন করিনা। আর যাঁর কোলে বসেছিলেন তিনি ছিলেন করিনার চেয়ে ১২ বছরের বড়! অনেক পুরুষের হৃদয় ভেঙে সেই সইফকেই মন দিয়ে তাঁর ঘরণী হয়েছিলেন করিনা। প্রথমবার মা হয়েছিলেন ৩৬ বছর বয়সে আর সমস্ত প্রথাগত ধারণাকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে দ্বিতীয়বার মা হলেন এই চল্লিশে।

বেশি বয়সে মা হলে মেয়েদের অনেক সমস্যা হতে পারে। ভারতীয় পরিবারে বিয়ের পর থেকেই মেয়েদের চাপ দেওয়া হয় মা হওয়ার জন্য। বলা হয় বেশি দেরি করলে তাঁদের সন্তান ধারণের ক্ষমতা চলে যাবে। এক সাক্ষাৎকারে এই চিরাচরিত ধারণাকে নস্যাৎ করে দেন করিনা। তাঁকে প্রশ্ন করা হয় যে নায়িকার বয়স বেড়ে যাচ্ছে, এই নিয়ে তিনি কি চিন্তিত? করিনার (Kareena Kapoor Khan) উত্তরও ছিল বেশ ছক ভাঙা গোছের। করিনা বলেন যে সইফ তাঁর চেয়ে বয়সে বড়। তাঁর জৈব ঘড়ি বা বায়োলজিক্যাল ক্লক দৌড়চ্ছে। তাই বয়স বাড়ার চিন্তা সইফের থাকা উচিত, করিনার নয়।

দু’বার মা হয়েও কী ভাবে কেরিয়ার ও মাতৃত্বের মধ্যে সামঞ্জস্য রাখা যায়, সেটা করিনা ভালোই বুঝিয়ে দিয়েছেন। সইফ ও করিনার প্রথম সন্তান তৈমুরের (Taimur Ali Khan) জন্মের পর করিনা খুব দ্রুত মাতৃত্বকালীন মেদ ঝরিয়ে কাজে ফিরে আসেন। দাপটের সঙ্গে অভিনয় করেন ভিরে দি ওয়েডিং (Veere Di Wedding) ছবিতে। অন্যথা হয়নি দ্বিতীয় সন্তানের বেলাতেও। গর্ভবতী অবস্থাতেই করিনা শেষ করেছেন লাল সিং চাড্ডা (Laal Singh Chaddha) ছবির কাজ। এই ছবিতে দ্বিতীয়বার আমির খানের (Aamir Khan) সঙ্গে কাজ করছেন বেবো।

প্রেগন্যান্ট অবস্থায় কাজ করা নিয়ে কোনও ছুঁৎমার্গ ছিল না করিনার। উল্টে তিনি বলেন যে গর্ভবতী অবস্থাতেও যে একজন মহিলা কাজ করতে পারেন সেটা তিনি দেখিয়ে দিয়েছেন। করিনা এও মন্তব্য করেন যে একজন প্রেগন্যান্ট মহিলা যত কাজ করবেন তাঁর বাচ্চা তত সুস্থ হবে। একজন কর্মরতা মা হিসাবে তিনি গর্বিত, এই মন্তব্য করেন তিনি।

Published by:Sanjukta Sarkar
First published: