corona virus btn
corona virus btn
Loading

Thappad Movie Review: ‘পুরুষতান্ত্রিক’ সমাজকে কষিয়ে চড় মারলেন তাপসী-অনুভব

Thappad Movie Review: ‘পুরুষতান্ত্রিক’ সমাজকে কষিয়ে চড় মারলেন তাপসী-অনুভব

পরিচালক অনুভব সিনহার ‘থপ্পড়’ এমনই এক গুরুত্বপূর্ণ ছবি যা কিনা মস্তিষ্কে গিয়ে সোজা আঘাত মারে ৷

  • Share this:

#কলকাতা: প্রথমেই বলে রাখা ভালো, যদি শুধুমাত্র বিনোদনের জন্য এ ছবি দেখতে যান, তাহলে আপনার এ ছবি না দেখতে যাওয়াই উচিত৷ কারণ, এই ছবি বিনোদন মোটেই দেবে না, বরং ক্রমাগত আপনাকে ‘বাস্তব’-এর সামনে দাঁড় করিয়ে, আপনার মনের ‘অবচেতন’কে আঘাত করে যাবে ৷ সব সময়ই মনে হবে, এতদিন যে জিনিসটাকে খুবই হালকা ছলে দেখতেন, তার ওজন এতটাই বেশি !

হ্যাঁ, পরিচালক অনুভব সিনহার ‘থপ্পড়’ এমনই এক গুরুত্বপূর্ণ ছবি যা কিনা মস্তিষ্কে গিয়ে সোজা আঘাত মারে ৷ আর আঘাতটা পুরোটাই পুরুষতান্ত্রিক সমাজকে ৷ তাহলে কী অনুভবের এই ছবি নারীকেন্দ্রিক বা  নারীবাদী?

পরিচালক অনুভব সিনহার আগের সব কটি ছবি ঘরানা লক্ষ্য করুন, অবশ্য ‘তুম বিন’ ব্যতিত, বিশেষ করে হালফিলের ‘মুল্ক’, ‘আর্টিক্যাল ১৫’ ৷ অনুভব তাঁর ছবিতে প্রত্যেকবারই সমাজের এমন একটি ইস্যুকে তুলে ধরেন, যা কিনা কোনও সভ্য সমাজ তৈরি হওয়ার ক্ষেত্রে বাধা সৃষ্টি করে ৷ ঠিক যেমন, ‘মুল্ক’-এ হিন্দু-মুসলমান এবং সন্ত্রাসবাদ, তেমনি ‘আর্টিক্যাল ১৫’ -এ ‘জাতপাত সমস্যা’ ৷ ‘থপ্পড়’-এ অবশ্য অনুভব ঢুকলেন একেবারে আমার-আপনার ঘরের ভিতর ৷ যেখান থেকে সমস্যার শিকড় নিয়ে সেটা পুঁতে দিলেন সমাজের মাটিতে ৷ বলতে গেলে এক করে দিলেন ঘর আর বাইরে-কে ৷

গল্পটা একটু ছুঁয়ে নেওয়া যাক ৷ অনুভব সিনহা এক গৃহবধূ অমৃতা ওরফে তাপসী পান্নু-র গল্প বললেন ৷ যে গৃহকোণকে সুখী করতে নিজের সবটুকুই দিয়ে দেন ৷ যে রোজ নিজেকে ভাঙতে শুরু করে ৷ তাঁর সকাল শুরু হয় ব্ল্যাক টি থেকে বরের স্যুটকেস এগিয়ে দেওয়া ৷ ছবির প্রথমভাগ মূলত অমৃতার সংসার বাঁধার স্বপ্ন দিয়েই সাজানো ৷ তবে গোটা স্বপ্নটা ভেঙে যায়, পার্টিতে এক থাপ্পড়ের মধ্যে দিয়েই ৷ আর তার পরেই অনুভবের এই ছবি অন্য দিকে মোড় নেয় ৷

এই ছবির একটি দৃশ্য হয়তো পুরো ছবিকেই এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য যথেষ্ট ৷ তাপসীকে জড়িয়ে শুয়ে রয়েছেন তাঁর অনস্ক্রিন স্বামী বিক্রম (পভিল গুলাটি) ৷ তাপসীর স্বামীর বাহুবন্ধনে থেকেও সে যেন একেবারেই আলাদা ৷ যেন তারই গোছানো সংসার থেকে অনেকটা দূরে সরে এসেছে ৷  যে আপোস করতে নারাজ ৷  প্রতিবাদী !

অনুভবের এই ছবির আসল মোচড়টাই শুরু একটি পার্টির দৃশ্য থেকে৷ এর আগের সবকটা দৃশ্যই অনুভব বুনেছেন, শুধুমাত্র গল্পকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য ৷ অনুভব সিনহার এই ছবি  নারীবাদী হয়েও পুরুষকে ছোট দেখানোর চেষ্টা নয় ৷ বরং বার বার পুরুষতান্ত্রিক সমাজকে প্রশ্ন করে যাওয়া ৷ বরং বার বার মনে করিয়ে দেওয়া, নারী-পুরুষ নির্বিশেষে ‘টেকেন ফর গ্রান্টেড’ না করাই শ্রেয় ৷ অনুভবের এই ছবি সো কল্ড ‘বৈবাহিক সম্পর্ক’কে একটা ঝটকা সত্যিই দেয়৷

এই ছবি গোটাটাই তাপসী পান্নুর ৷ প্রত্যেকটি ফ্রেমে তিনি নিজেকে প্রমাণ করেছেন, তিনি লম্বা রেসের ঘোড়া ৷ এটা তো জাস্ট শুরু ! বিক্রমের চরিত্রে পাভিল পরিমিত ৷ যিনি তাপসীকে সব সময়ই কমপ্লিমেন্ট দিয়ে চলেছেন প্রতিটি দৃশ্যে ৷ দিয়া মির্জা, রত্না পাঠক, তনভি আজমি, কুমুদ মিশ্র প্রত্যেকই এই ছবির একেকটি স্ট্রং পয়েন্ট৷

সব শেষে বলা ভালো ‘থপ্পড়’ এমনই এক ছবি যা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বিষয়কে তুলে ধরে ৷ কিন্তু একেবারে জাজমেন্টাল না হয়ে ৷ বরং পরিচালক প্রতিটি পয়েন্ট সহজভাবে তুলে ধরেন দর্শকের সামনে ৷ যা ‘ইগো’তে ঢাকা-চাপা পড়ে থাকা বিষয়কে সামনে নিয়ে আসে ৷ এই ছবি সত্যিই সোজা মস্তিষ্কে গিয়ে আঘাত মারে ৷ তাই হল থেকে বেরিয়েও আপনার মাথায় ঘোরাফেরা করতে থাকবে ছবি থেকে ওঠা প্রশ্নগুলোই !

Published by: Akash Misra
First published: June 28, 2020, 8:58 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर