• Home
  • »
  • News
  • »
  • entertainment
  • »
  • ‘‌পান্তা ভাত খেয়ে আমার থাকা উচিত?‌’‌ রাণু মন্ডলের দিন কেটেছে বাসি ভাত খেয়ে

‘‌পান্তা ভাত খেয়ে আমার থাকা উচিত?‌’‌ রাণু মন্ডলের দিন কেটেছে বাসি ভাত খেয়ে

অনেকেই বলেছেন, রানাঘাট স্টেশন থেকে যেভাবে আলোয় উঠে এসেছেন রাণু, তাতে তাঁকে অহঙ্কার মানায় না। কিন্তু তিনি অহঙ্কার করেছেন।

অনেকেই বলেছেন, রানাঘাট স্টেশন থেকে যেভাবে আলোয় উঠে এসেছেন রাণু, তাতে তাঁকে অহঙ্কার মানায় না। কিন্তু তিনি অহঙ্কার করেছেন।

অনেকেই বলেছেন, রানাঘাট স্টেশন থেকে যেভাবে আলোয় উঠে এসেছেন রাণু, তাতে তাঁকে অহঙ্কার মানায় না। কিন্তু তিনি অহঙ্কার করেছেন।

  • Share this:

    আলোর থেকে এখন কয়েক যোজন দূরে সরে গিয়েছেন রাণু মন্ডল। কয়েকদিন আগেই খবর হয়েছিল খাবার জোগাড় করতে অনেক কষ্ট করতে হচ্ছে তাঁকে। কিন্তু এমন তো হওয়ার কথা ছিল না। একসময়ে ভাইরাল হয়েছিলেন তিনি। সেখান থেকে শুরু তাঁর স্বপ্নের যাত্রা। একেবারে মুম্বইয়ে পৌঁছে গিয়েছিলেন তিনি। সেখানে প্লে ব্যাক গানে দেখা গিয়েছিল রাণুকে। কিন্তু তারপর ধীরে ধীরে তার উপর থেকে আলো সরে যেতে থাকে। পরিস্থিতি একেবারে পাল্টে যাওয়ার আগেই এসে পড়ে করোনা। স্বাভাবিক কারণে অনেক শিল্পীর মতোই তিনিও হয়ে পড়েন কর্মহীন। সেই অবস্থার কথাই বর্ননা করেছেন রাণু। তিনি বলেছেন, লকডাউনে মোটেই ভাল ছিলেন না তিনি। পরিস্থিতি এখনও খুব একটা পাল্টায়নি।

    অনেকেই বলেছেন, রানাঘাট স্টেশন থেকে যেভাবে আলোয় উঠে এসেছেন রাণু, তাতে তাঁকে অহঙ্কার মানায় না। কিন্তু তিনি অহঙ্কার করেছেন। যার ফলে আজ তাঁকে ফল ভুগতে হচ্ছে। লোকে যাই বলুক, তিনি সে কথা মানতে নারাজ। সম্প্রতি লকডাউনে কেমন ছিলেন তিনি সেটা জানতে রাণু মণ্ডলের বাড়িতে গিয়েছিলেন একটি সংবাদমাধ্যমের সাংবাদিকরা। সেখানে রাণু জানিয়েছেন, একেবারেই ভাল নেই তিনি। বরং আগের থেকে পরিস্থিতি আরও খারাপ হয়েছে। তাঁকে বাসি ভাত খেতে হচ্ছে। সকালে ব্রেকফাস্ট বা নাস্তা করার মতো কিছু থাকছে না। ফলে তাঁকে আগের দিনের বাসি ভাতই খেতে হচ্ছে। এর ফলে তাঁর শরীর ভেঙে পড়ছে বলেও জানিয়েছেন তিনি। অম্বল হচ্ছে, হজমে সমস্যা হচ্ছে তাঁর। কিন্তু পরিস্থিতি এমনই যে আর কিছু করার নেই। এখন খাওয়া যখন জুটছে না তখন পান্তা খেয়েই কাটাতে হবে তাঁকে। তিনি সাংবাদিকদের প্রশ্ন করেছেন, সত্যিই কি তাঁর পান্তা খেয়ে জীবন কাটানোর কথা ছিল?‌

    Published by:Uddalak Bhattacharya
    First published: