'তাণ্ডব' বিতর্কে সুপ্রিম কোর্টের সমালোচনা করলেন কঙ্কনা! কী বললেন অভিনেত্রী

'তাণ্ডব' বিতর্কে সুপ্রিম কোর্টের সমালোচনা করলেন কঙ্কনা! কী বললেন অভিনেত্রী
গ্রেফতারি থেকে বাঁচতে যে রক্ষাকবচের জন্য আবেদন করেছিলেন সিরিজের অভিনেতা জিশান আয়ুব এবং নির্মাতারা, তা খারিজ করে দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। এই ঘটনায় সুপ্রিম কোর্টের সমালোচনা করলেন অভিনেত্রী কঙ্কনা সেনশর্মা।

গ্রেফতারি থেকে বাঁচতে যে রক্ষাকবচের জন্য আবেদন করেছিলেন সিরিজের অভিনেতা জিশান আয়ুব এবং নির্মাতারা, তা খারিজ করে দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। এই ঘটনায় সুপ্রিম কোর্টের সমালোচনা করলেন অভিনেত্রী কঙ্কনা সেনশর্মা।

  • Share this:
    #মুম্বই: বিতর্কের কেন্দ্রে আমাজন প্রাইমের ওয়েব সিরিজ তাণ্ডব। ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাতের অভিযোগে এই সিরিজের বিরুদ্ধে দায়ের হয়েছে বেশ কয়েকটি এফআইআর। সম্প্রতি আরও বিপাকে পড়েছে টিম তাণ্ডব। কারণ গ্রেফতারি থেকে বাঁচতে যে রক্ষাকবচের জন্য আবেদন করেছিলেন সিরিজের অভিনেতা জিশান আয়ুব এবং নির্মাতারা, তা খারিজ করে দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। এই ঘটনায় সুপ্রিম কোর্টের সমালোচনা করলেন অভিনেত্রী কঙ্কনা সেনশর্মা।

    অভিনেতা মহম্মদ জিশান আয়ুবের আইনজীবী সিদ্ধার্থ আগরওয়ালের বক্তব্য সিরিজের সংলাপের জন্য অভিনেতাদের কখনওই দায়ী করা যায় না। তাঁকে একটি পাল্টা স্টেটমেন্টে বিচারপতি এম শাহ সিদ্ধার্থ আগরওয়ালকে বলেছেন, "চিত্রনাট্য পড়েই তো চুক্তিপত্রে সাক্ষর করেছ। তুমি ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত করতে পার না।"

    এই প্রসঙ্গেই কঙ্কনা টুইট করেন, "সিরিজের সঙ্গে যুক্ত সকলেই তো চিত্রনাট্য পড়েই সই করে। তাহলে পুরো কলাকুশলীদের গ্রেফতার করা হবে নাকি?"


    বিচারপতি অশোক ভূষণের বেঞ্চ জানিয়েছে, গ্রেফতারির রক্ষাকবচের জন্য আবেদন করেছে তাঁদের হাইকোর্টে যেতে হবে। ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত ও হিন্দু দেবদেবীর অপমানের অভিযোগে এই সিরিজের বিরুদ্ধে একাধিক এফআইআর দায়ের হয়। ক্ষমা চান ওয়েবসিরিজের পরিচালক প্রযোজকরা। কিন্তু তাও সেই এফআইআর-এর গ্রেফতারি থেকে এখনও রেহাই পায়নি সিরিজটি। কারণ শীর্ষ আদালতই খারিজ করে দিয়েছে গ্রেফতারি থেকে রক্ষাকবচের আবেদন।

    এই ওয়েবসিরিজে শিবা নামে একটি চরিত্রের মুখে বহু অশ্লীল সংলাপ রয়েছে যা অপমানজনক বলে দাবি করেছেৱ বেঙ্গালুরুর এক অভিযোগকারী কিরণ আরাধ্যা। এছাড়াও অভিযোগ এই সিরিজে পুলিশকর্মীদের ভাবমূর্তি নষ্ট করা হয়েছে এবং হিন্দু দেবদেবীদের অবমাননা করা হয়েছে। এছাড়া প্রধানমন্ত্রী চরিত্রটিকেও ভুল ভাবে তুলে ধরা হয়েছে বলে অভিযোগ। কিছুদিন আগে উত্তরপ্রদেশ পুলিশ পরিচালক আলি আব্বাস জাফারের বাড়িতেও পৌঁছয় এবং লখনউতে তদন্তকারী আধিকারিকের সামনে হাজিরা দেওয়ার নোটিশ দেয়।

    Published by:Swaralipi Dasgupta
    First published: