• Home
  • »
  • News
  • »
  • entertainment
  • »
  • BOLLYWOOD KIARA ADVANI VIDEO OF KIARA ADVANI CRYING WHILE TRAVELLING ON A PLAIN IS VIRAL SWD

Kiara Advani: বিমান বসে অঝোর নয়নে কাঁদছেন কিয়ারা আডবানী! অভিনেত্রীর ভিডিও ছড়িয়ে পড়ল ইন্টারনেটে

Kiara Advani: কিয়ারা আডবানীর এক ভক্ত একটি ভিডিও শেয়ার করেছেন। সেখানে দেখা যাচ্ছে, বিমানে বসে নিজের মোবাইলে কিছু দেখছেন কিয়ারা। মুখে মাস্ক পরা। কিন্তু কিছু একটা দেখে তিনি অঝোর নয়নে কাঁদছেন তিনি।

Kiara Advani: কিয়ারা আডবানীর এক ভক্ত একটি ভিডিও শেয়ার করেছেন। সেখানে দেখা যাচ্ছে, বিমানে বসে নিজের মোবাইলে কিছু দেখছেন কিয়ারা। মুখে মাস্ক পরা। কিন্তু কিছু একটা দেখে তিনি অঝোর নয়নে কাঁদছেন তিনি।

  • Share this:

    #মুম্বই: ওটিটি প্ল্যাটফর্মে মুক্তি পেয়েছে সিদ্ধার্থ মালহোত্র (Siddharth Malhotra) ও কিয়ারা আডবানি (Kiara Advani) অভিনীত ছবি শেরশাহ (Shershaah)। সেই ছবির একটি বিশেষ দৃশ্য সোশ্যাল মিডিয়ায় এই মুহূর্তে ভাইরাল। আর সেই দৃশ্য দেখে অঝোরে কাঁদলেন ছবিরই নায়িকা কিয়ারা। শহিদ ক্যাপ্টেন বিক্রম বাত্রার জীবন নিয়ে তৈরি শেরশাহ। ছবিতে বিক্রম বাত্রার বাগদত্তা ডিম্পল চিমার চরিত্রে অভিনয় করেছেন কিয়ারা।

    কিয়ারা আডবানীর এক ভক্ত একটি ভিডিও শেয়ার করেছেন। সেখানে দেখা যাচ্ছে, বিমানে বসে নিজের মোবাইলে কিছু দেখছেন কিয়ারা। মুখে মাস্ক পরা। কিন্তু কিছু একটা দেখে তিনি অঝোর নয়নে কাঁদছেন তিনি। যদিও ভিডিও পোস্ট দেখে জানা যায়, শেরশাহে বিক্রম বাত্রার শেষকৃত্যের দৃশ্য দেখেই তিনি কাঁদছিলেন। ছবিতেও সেই দৃশ্যে কাঁদছিলেন ডিম্পল চিমা।

    এই ভিডিও দেখে কিয়ারার অনুরাগীরাও আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েন। একজন কমেন্ট করেন, "সত্যিই খুব দুঃখের দৃশ্য এটা। আমিও এটা দেখে খুব কেঁদেছি।" কিয়ারা এক সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন যে ছবিটি দেখার পরেই তিনি বাস্তবের ডিম্পল চিমাকে যোগাযোগ করেছিলেন। কারণ এই ছবি তাঁর জন্যও খুব আবেগপ্রবণ।

    তিনি বলছেন, "ছবির পরে যখন বিক্রম বাত্রার পরিবারের সঙ্গে আমি দেখা করি, ওরা বলেন, আমি অনেকটাই ডিম্পল চিমার মতো ছিলাম। আমার চোখে জল এসে গিয়েছিল। আমি জানি ছবির গানগুলি ওঁর হৃদয় ছুঁয়েছে। তিনি নিশ্চয়ই গর্বিত কারণ ছবিটা সবার ভালো লাগছে।"

    ছবিতে বিক্রম বাত্রার চরিত্রে অভিনয় করে প্রশংসা অর্জন করেছেন সিদ্ধার্থ মালহোত্রা। তিনি ডিম্পল চিমা সম্পর্কে বলেছেন, "বাস্তবে আমি ওনার সঙ্গে দেখা করিনি। কিন্তু নিশ্চয়ই তিনি ছবিটি দেখেছেন। আমি জানি এই ছবিটা দেখা তাঁর পক্ষে কঠিন ছিল।"

    Published by:Swaralipi Dasgupta
    First published: