• Home
  • »
  • News
  • »
  • entertainment
  • »
  • BOLLYWOOD KANGANA RANAUTS PICTURES WITH HER MANAGER RIZWAN USED TO SPREAD FALSE CLAIMS TC RC

Kangana Ranaut: লাভ জিহাদ? অভিযোগ ভালোবেসে ধর্ম পরিবর্তন করতে পারেন কঙ্গনা!

বিতর্কিত ছবি!

সোশ্যাল মাধ্যমে কঙ্গনা ও রিজওয়ানের নিয়ে যে সব রটনা চলেছে তা একেবারে ভালোভাবে নেননি অভিনেত্রী (Kangana Ranaut)।

  • Share this:

#মুম্বই: অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউত (Kangana Ranaut) সব সময়েই চর্চায় থাকেন। প্রতিদিনই কঙ্গনা সংক্রান্ত হ্যাশট্যাগ সোশ্যাল মাধ্যমে ঘোরাফেরা করে। তবে এবার কঙ্গনা রানাউতকে নিয়ে একটু অন্য ধারার চর্চা করা হয়েছে। এটাকে শুধু চর্চা বললে ভুল হবে, আসলে এটা সোশ্যাল মাধ্যমে কঙ্গনাকে আক্রমণ করার মত একটা বিষয়।

KRKBoxoffice নামে একটি Twitter হ্যান্ডেল থেকে কঙ্গনা রানাউত ও ইমরান নামের এক মিশরীয় ব্যক্তির ঘনিষ্ট ছবি দিয়ে পোস্ট করা হয়েছে। তাতে লেখা হয়েছে, “ব্রেকিং নিউজ অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউত ইমরান নামের এক মিশরীয় ব্যক্তির সঙ্গে ডেটিং করছেন, তাঁর এই সস্পর্ককে অনেকেই লাভ জিহাদ নাম দিয়েছেন! ” এই পোস্ট সামনে আসতেই নেটিজেনদের ঘুম উড়েছে। অনেকেই মনে করেছেন কঙ্গনা রানাউত এবার নিজের ভালোবাসার জন্য নিজের ধর্ম পরিবর্তন করতে চলেছেন।

কেআরকে বক্স অফিসের পোস্ট। কেআরকে বক্স অফিসের পোস্ট।

যাই হোক এই সব ট্রোলিংয়ের ঘটনা সোশ্যাল মাধ্যমে চলতে চলতেই জানা গিয়েছে KRKBoxoffice-এর পোস্ট বা অন্য সব পোস্টগুলিতে যেই ব্যক্তির সঙ্গে কঙ্গনাকে দেখা গিয়েছে তিনি আসলে অভিনেত্রীর ম্যানেজার রিজওয়ান সিদ্দিকী (Rizwan Siddiquee)। তিনি একেবারেই কঙ্গনার বয়ফ্রেন্ড নন। সম্প্রতি রিজওয়ানের জন্মদিন উপলক্ষে কিছু ছবি সোশ্যাল মাধ্যমে শেয়ার করেছেন। রিজওয়ানের সম্বন্ধে অনেক ভালো ভালো কথা বলেছেন। তাঁর উন্নতির কামনা করেছেন।

সোশ্যাল মাধ্যমে কঙ্গনা ও রিজওয়ানের নিয়ে যে সব রটনা চলেছে তা একেবারে ভালোভাবে নেননি অভিনেত্রী। কঙ্গনার বিরুদ্ধে মিথ্যা অপবাদ ছড়ানোর জন্য তাঁর আইনজীবী আইনি পদক্ষেপ নিতে চলেছেন বলে জানা গিয়েছে। এর পাশাপাশি ট্রোলারদের সর্তক করা হয়েছে। চুপ করে থাকেননি কঙ্গনার ম্যানেজার রিজওয়ান সিদ্দিকীও তিনি বলেছেন, “আমার ও কঙ্গনার ভালো ছবিগুলিকে অন্য ভাবে দেখানো হয়েছে। আমাদের অপবাদ দেওয়া জন্যই এমনটা করা হয়েছে।” রিজওয়ান ও কঙ্গনার আইনজীবী ট্রোলারদের সতর্ক করে বলেছেন, এই ধরণের সমস্ত পোস্ট মুছে ফেলতে হবে। আর তারা যদি সেটা না করে তাহলে আইনি পদক্ষেপ নেওয়া হবে। ফলে এখন বুদ্ধিমানের কাজ হল সেগুলিকে মুছে ফেলা।

Published by:Raima Chakraborty
First published: