Rakhi Sawant: দীপিকা পাডুকোন ও রাখি সাওয়ান্তকে পাশাপাশি রাখলেন ফারহা! বললেন, 'দুজনেই মেগাস্টার'

Rakhi Sawant: একদিকে দীপিকা পাডুকোন (Deepika Padukone)। অন্যদিকে রাখি সাওয়ান্ত (Rakhi Sawant)। দুজনকে প্রায় পাশাপাশি রাখলেন পরিচালক তথা কোরিয়াগ্রাফার ফারহা খান (Farha Khan)।

Rakhi Sawant: একদিকে দীপিকা পাডুকোন (Deepika Padukone)। অন্যদিকে রাখি সাওয়ান্ত (Rakhi Sawant)। দুজনকে প্রায় পাশাপাশি রাখলেন পরিচালক তথা কোরিয়াগ্রাফার ফারহা খান (Farha Khan)।

  • Share this:

    #মুম্বই: একদিকে দীপিকা পাডুকোন (Deepika Padukone)। অন্যদিকে রাখি সাওয়ান্ত (Rakhi Sawant)। দুজনকে প্রায় পাশাপাশি রাখলেন পরিচালক তথা কোরিয়াগ্রাফার ফারহা খান (Farha Khan)। তাঁর দাবি, হিন্দি চলচ্চিত্র জগতে এই দুই মেগাস্টারের আমদানি তিনিই করছেন। সম্প্রতি জি কমেডি শো-তে এমনই মন্তব্য করেছেন ফারহা খান। এই শোতে বিচারক হিসেবে রয়েছেন তিনি। সেই এপিসোডে অতিথি হয়ে এসেছিলেন রাখি সাওয়ান্ত ও অনু মালিক।

    সেই এপিসোডে নিজের জীবনের স্ট্রাগল এর কথা বলেছেন রাখি সাওয়ান্ত। ফারহা খানের একটা ফোন কল তাঁর জীবন কী ভাবে বদলে দিয়েছিল সেই কথাও উঠে আসে রাখির মুখে। সেই প্রসঙ্গেই তখন ফারহা খান বলেন, আমি ইন্ডাস্ট্রিকে দুজন মেগাস্টার উপহার দিয়েছি। একজন হলেন দীপিকা পাডুকোন। অন্যজন রাখি সাওয়ান্ত। দুজনেই খুব ভালো অভিনেতা। কিন্তু আমায় বলতেই হবে যে, ম্যায় হু না-র সেটে রাখি এদের মধ্যে সবচেয়ে পরিশ্রমী এবং সঠিক সময় জ্ঞান আছে ওর আর ভালো ব্যবহার জানে। আমি সেই জন্য়ই ওকে খুব ভালোবাসি।

    ২০০৭ সালে ফারহা খানের ছবি ওম শান্তি ওম-এ প্রথম অভিনয় করেন দীপিকা পাডুকোন। শাহরুখ খানের বিপরীতে অভিনয় করেছিলেন তিনি। অন্যদিকে ২০০৪ সালে মিনি নামে এক ছাত্রীর চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন রাখি সাওয়ান্ত। এটিই ফারহার প্রথম পরিচালিত ছবি। ছবিতে ছিলেন শাহরুখ, সুস্মিতা সেন, অমৃতা রাও, জায়েদ খান।

    এই ছবিতে অভিনয় করার জন্য কাঠখড় কম পোড়াননি রাখি। সংবাদমাধ্যমে তিনি বলেছেন, আমি সব সময়ে চেষ্টা করতাম যাতে আমায় রোগা লাগে দেখতে। আমি শুধু একবাটি ভাত আর ডাল খেতাম সেই সময়ে। সময় ভালো যাচ্ছিল না। এর মধ্যেই এক সকালে ফারহা খান ম্যাডামের অফিস থেকে ফোন আসে। শাহরুখ খানের রেড চিলিজ এর অফিস থেকে ফোন আসে। সেখান থেকেই সব বদলে যায়। আমি ফোন রেখে অজ্ঞান হয়ে যাই। আমার মা তখন আমায় আর এক বাটি ডাল ভাত দিলে আমার জ্ঞান ফেরে।

    Published by:Swaralipi Dasgupta
    First published: