• Home
  • »
  • News
  • »
  • entertainment
  • »
  • BOLLYWOOD DILIP KUMAR SAIRA BABU THERE WAS AN ACCIDENT WITH SAIRA BANU DURING PREGNANCY DILIP KUMARS WIFE COULD NOT BECOME A MOTHER FOR LIFE SR

Dilip-Saira: আট মাসে গর্ভের সন্তান নষ্ট হয় সায়রা বানুর, আর কোনওদিন সন্তান সুখ পাননি দিলীপ কুমার

আট মাসের গর্ভাবস্থায় এক দুর্ঘটনায় গর্ভের সন্তান নষ্ট হয়ে যায় সায়রা বানুর (Saira Banu Miscarriage) । আর কোনওদিন সন্তানসুখ পাননি তাঁরা ।

আট মাসের গর্ভাবস্থায় এক দুর্ঘটনায় গর্ভের সন্তান নষ্ট হয়ে যায় সায়রা বানুর (Saira Banu Miscarriage) । আর কোনওদিন সন্তানসুখ পাননি তাঁরা ।

  • Share this:

    #মুম্বই: আদর্শ প্রেম গাঁথার বাস্তবের নায়ক-নায়িকা ছিলেন তাঁরা । দিলীপ কুমার (Dilip Kumar) ও সায়রা বানু (Saira Banu) । ৫৪ বছরের দীর্ঘ বন্ধন আজ শেষ হয়ে গেল । কিন্তু যে প্রেমের কাহিনীরা অমর হয়ে যায়, তারা শেষ হয়েও শেষ হয় না । সায়রার জীবনের ‘কহিনূর’, তাঁর দিলীপ সাহাবের সঙ্গে তাঁর দাম্পত্যের গল্পটা খানিকটা তেমনই । কিন্তু সেই ঝাঁ চকচকে রোম্যান্সেও মিশেছে বিষাদ । আট মাসের গর্ভাবস্থায় এক দুর্ঘটনায় গর্ভের সন্তান নষ্ট হয়ে যায় সায়রার (Saira Banu Miscarriage) । আর কোনওদিন সন্তানসুখ পাননি তাঁরা । ১৬ বছরের দাম্পত্য ভেঙে হঠাৎ একদিন দিলীপ কুমার ছেড়ে যান সায়রা বানুকে । বিয়ে করে নেন পাক-তরুণী আসমা রেহমানকে (Asma Rehman)৷ যদিও সে বিয়ে ২ বছরের বেশি টেঁকেনি । আবারও প্রেমের টানে সায়রার কাছে ফিরেছিলেন দিলীপ । ফের বিয়ে করেছিলেন তাঁকে ।

    মাত্র ১২ বছরে তৈরি হওয়া মুগ্ধতা কথন যে ভালবাসায় পরিণত হল, তা বুঝেও উঠতে পারেননি সায়রা বানু । স্বপ্নের নায়ককে বাস্তবেও স্বামী হিসাবে পাওয়া তাঁর জীবনের অন্যতম প্রাপ্তি, এ কথা বারবার স্বীকার করেছেন সায়রা । ১৬ বছর বয়সে তিনি দিলীপ কুমার অভিনীত ‘মুঘল-এ আজাম’ ছবির প্রিমিয়ারে উপস্থিত হন সায়রা । তিনি তখন যুবতী, আর দিলীপ কুমার প্রতিষ্ঠিত স্টার! তবে প্রথম সাক্ষাৎ থেকেই সায়রা বানু বিশ্বাস করতেন যে, তিনি একদিন দিলীপ ঘরণী হবেনই৷

    ‘ঝুক গয়া আসমান’ (Juhk gaya Asman)ছবিতে সায়রা বানুকে প্রোপোজ করেন দিলীপ সাব (Dilip Saab)। না বলার তো কোনও প্রশ্নই ছিল না ৷ ১৯৬৬-র ১১ অক্টোবর সায়রা বানু ও দিলীপ কুমারের বিয়ে হয় (Dilip Kumar Saira Banu marriage)৷ ৪৪ বছরের দিলীপের নতুন বৌ তখন মাত্র বাইশের । শুরু হল তাঁদের রূপকথার পথচলা । তাঁদের দাম্পত্য যেন চির নবীন, চির যুবতী। এমন আদর্শ দাম্পত্যের উদাহরণ বলিউডে খুব বেশি দেখা যায় না । ৫৪ বছর একে অপরের ভরসার কাঁধ হয়ে ছিলেন তাঁরা । কিন্তু কোনও সন্তান ছিল না তাঁদের ।

    নিজের আত্মজীবনীতে দিলীপ সাহাব লিখেছিলেন সে কথা । অন্তঃসত্ত্বা অবস্থায় বাথরুমে পড়ে গিয়েছিলেন সায়রা বানু । তাঁর ব্লাড প্রেসার খুব বেশি ছিল । সে কারণেই ৮ মাসের গর্ভস্থ শিশু গর্ভেই মারা যায় । তারপর থেকে আর কখনও সন্তানধারণ করতে পারেননি সায়রা বানু ।

    ২০১২ সালে একবার হিন্দুস্তান টাইমসকে দেওয়া একটি সাক্ষাৎকারে দিলীপ কুমার এ বিষয়ে মুখ খুলেছিলেন । বলেছিলেন, ‘হয়তো খুব ভাল হত আমাদের ছেলেমেয়ে থাকলে । কিন্তু আমরা ঈশ্বরের ইচ্ছা মেনে নিয়েছি । এ জন্য আমাদের কোনও দুঃখ নেই, অনুশোচনাও নেই । যদি শূন্যতার কথা বলেন, তা হলে সেটা নিয়েও আমাদের মধ্যে অনুযোগ নেই কোনও । আমাদের বিশাল পরিবার । আমার ভাইপো-ভাইঝি, তাঁদের সন্তানাদি রয়েছে । তাঁদের সঙ্গে হাসিতে, মজায় দিন কেটে যায় । সায়রা ছোট পরিবার । তাঁর ভাই সুলতানের ছেলেমেয়ে, নাতি-নাতনিরা রয়েছে । আমরা নিজেদের খুব লাকি মনে করি ।’’

    Published by:Simli Raha
    First published: