• Home
  • »
  • News
  • »
  • entertainment
  • »
  • BOLLYWOOD ANUPAM KHER WHEN A MAN IN HIMACHAL PRADESH FAILED TO RECOGNIZE THE ACTOR RC

Anupam Kher: বলিউডে ৫১৮ ছবি করা অনুপম খেরকে চিনতে পারলেন না এক ব্যক্তি, তার পর?

অনুপম খের।

বলিউডে ৫১৮টি ফিল্ম করা অভিনেতা অনুপম খের (Anupam Kher) ভেবেছিলেন, ভারতের সব মানুষই হয়তো তাঁকে চেনেন।

  • Share this:

    #মুম্বই: বলিউডে ৫১৮টি ফিল্ম করা অভিনেতা অনুপম খের (Anupam Kher) ভেবেছিলেন, ভারতের সব মানুষই হয়তো তাঁকে চেনেন। কিন্তু আসলে যা হল, তাতে হিমাচল প্রদেশের এক ব্যক্তির কাছে নিজের পরিচয় দিতে হল অভিনেতাকে। দুটি জাতীয় পুরস্কার বিজয়ী অভিনেতা অনুপম খের কিছুদিন আগেই মা দুলারির সঙ্গে শিমলায় গিয়েছিলেন। বুধবার রাতে অনুপম নিজের ইনস্টাগ্রামে একটি ভিডিও শেয়ার করে সেখানকার অভিজ্ঞতার কথা বলেছেন।

    শিমলার রাস্তায় সকালে মর্নিং ওয়াক করার সময় এক ব্যক্তির সঙ্গে তাঁর সাক্ষাৎ হয়। ভিডিওতে শোনা গিয়েছে, অনুপম জ্ঞান চাঁদ নামের ওই ব্যক্তিতে জিজ্ঞেস করছেন, অনুপমকে তিনি চেনেন কিনা। আর ওই ব্যক্তি সপাটে জবাব দেন না এবং মুচকি হাসেন। এর পর অনুপম নিজের মাস্ক সরালেই ব্যক্তি তাঁকে একবারে চিনতে পারেন এবং একবারে চিনতে পেরে জোরে হেসে ওঠেন।

    View this post on Instagram

    A post shared by Anupam Kher (@anupampkher)

    ভিডিও ইনস্টাগ্রামে শেয়ার করে ক্যাপশনে অনুপম লিখেছেন, 'রিয়ালিটি চেক। আমি গর্ব সহকারে ঘোষণা করতাম আমি ৫১৮টি ছবি করেছি। এবং আমি ভাবতাম অন্তত ভারতের সবাই আমাকে চেনেন। কিন্তু জ্ঞান চাঁদ জি খুবই সুন্দরভাবে আমার আত্মবিশ্বাস ভেঙে দিয়েছেন। তাঁর কোনও ধারণাই ছিল না েয আমি কে। এটা মজা মিশ্রিত হৃদয়বিদারক তবে সুন্দর ও সতেজও। ধন্যবাদ, বন্ধু আমার পা মাটিতে রাখতে শিখিয়ে দেওয়ার জন্য।' এরই সঙ্গে অনুপম হ্যাশট্যাগে লিখেছেন, 'কুছ ভি হো সকতা হ্যায়', 'লাইফ ইজ বিউটিফুল', 'ইনোসেন্স' ও 'হিলারিয়াস'।

    View this post on Instagram

    A post shared by Anupam Kher (@anupampkher)

    মুম্বই ফিরে আসার আগেও অনুপম নিজের ইনস্টাতে একটি ভিডিও শেয়ার করেছিলেন মায়ের। সেখানে তিনি লিখেছিলেন, 'বাই বাই। নিজের মা-কে বিদায় জানানোটা সবচেয়ে কঠিন কাজ। মা শিমলায় থাকছেন, আমি মুম্বই ফিরে যাচ্ছি। আমরা একসঙ্গে খুব সুন্দর সময় কাটালাম। এই শহরে কাটানো পুরনো কিছু দারুণ স্মৃতি মা মনে করিয়ে দিয়েছেন। অভিভাবকদের খুশি রাখাটা বিশ্বের সবচেয়ে সহজ কাজ। আর তার বদলে অসীম আশীর্বাদ পাওয়া যায় তাঁদের কাছ থেকে।'

    Published by:Raima Chakraborty
    First published: