• Home
  • »
  • News
  • »
  • entertainment
  • »
  • BOLLYWOOD ACTRESS DIVYA AGARWAL FEELS LONELY AND BREAKS DOWN AT BIGG BOSS HOUSE SWD TC

Bigg Boss OTT Day 10 Highlights: বিগবসের ঘরে কেউ পাশে নেই! অঝোরে কেঁদে ফেললেন দিব্যা আগরওয়াল

Bigg Boss OTT Day 10 Highlights: দিব্যা অভিযোগ করে বলেন, তাঁর খারাপ সময়ে কেউ পাশে থাকেননি, তাই তিনিও কোনও গ্রুপের অংশ হিসেবে থাকতে চান না।

Bigg Boss OTT Day 10 Highlights: দিব্যা অভিযোগ করে বলেন, তাঁর খারাপ সময়ে কেউ পাশে থাকেননি, তাই তিনিও কোনও গ্রুপের অংশ হিসেবে থাকতে চান না।

  • Share this:

#মুম্বই: জমজমাটি Bigg Boss OTT-র ঘর। অন্য সিজনের থেকে এবার একটু নতুন সব কিছু। বিগ বসের দর্শক ২৪ ঘণ্টা প্রাণ ভরে আনন্দের রসদ কুড়িয়ে নিচ্ছেন। ইতিমধ্যে বিগ বসের ঘরে ১০ দিন অতিক্রম করে ফেলেছেন প্রতিযোগীরা। থেকে থেকে একে অপরের সঙ্গে ঝামেলাতেও জড়িয়ে পড়ছেন। তাঁদের কাটানো দশম দিন এই ভাবেই কেটেছে। ঘরে এখন দু'টো গ্রুপে ভাগ হয়ে গিয়েছেন প্রতিযোগীরা। দিনের শুরুতেই ‘টাটা-বাটা’ ট্যাগ নিয়ে নেহা ভাসিন (Neha Bhasin) এবং প্রতীক সহজপালের (Pratik Sehajpal) মধ্যে তুমুল ঝামেলা হয়।

এর পর গ্রুপিজম ইস্যু নিয়ে নেহা ভাসিন ও দিব্যা আগরওয়ালের (Divya Agarwal) মধ্যে বিতর্ক দেখা যায়। দিব্যা অভিযোগ করে বলেন, তাঁর খারাপ সময়ে কেউ পাশে থাকেননি, তাই তিনিও কোনও গ্রুপের অংশ হিসেবে থাকতে চান না। তিনি একাই খেলতে চান। দিব্যা এর পর মুজ জাটানা (Moose Jattana) ও নিশান্ত ভাটের (Nishant Bhatt) সঙ্গে কথা বলেন। তাঁকে একটি গ্রুপের সদস্য করা হয়েছিল, কিন্তু তিনি অস্বীকার করেছেন সেই গ্রুপের সদস্য থাকতে, সেই কথা জানান। এছাড়াও মুজ ও নিশান্তের বিরুদ্ধে নেহার করা অভিযোগের সত্যতা জানতে চান। দু'জনই তাঁদের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

অন্যদি কে, বস ম্যান রাকেশ বাপটকে (Raqesh Bapat) বিগ বস ডেকে পাঠান। সেখানে তাঁকে বলা হয় ঘরের বহু সদস্য কিছু নিয়ম মানছেন না। সেগুলি তাঁকে দেখতে বলা হয়। প্রয়োজনে শাস্তির কথাও বলা হয়। রাকেশ যখন বিগ বসের এই নির্দেশ ঘরের সকলকে বলতে যান, তখন প্রতীকের সঙ্গে কথা কাটাকাটি শুরু হয়। শমিতা শেঠিও (Shamita Shetty) এর মধ্যে জড়িয়ে পড়েন। এর পর নেহা ভাসিন, অক্ষরা সিংয়ের (Akshara Singh) বিরুদ্ধে সিমপ্যাথি কার্ড খেলার অভিযোগ করেন। এই নিয়ে বেশ কিছুক্ষণ ঝামেলা চলতে থাকে।

এর পর পঞ্চায়েত টাস্ক চলাকালীন প্রতীক রাকেশকে মেরুদণ্ডহীন বলেন, এই কথা শুনে মানসিক ভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েন রাকেশ। এর পর রাকেশ, দিব্যা ও শমিতাকে এক করার জন্য একটি পরিকল্পনা করেন কিন্তু তা কার্যকর হয় না। শমিতা, দিব্যার সঙ্গে মিটমাট করতে চান না। দিব্যা ভেঙে পড়ে খুব কাঁদতে থাকেন, নিশান্ত তখন দিব্যাকে সান্তনা দেন। এই ভাবেই দশম দিন শেষ হয়।

Published by:Swaralipi Dasgupta
First published: