• Home
  • »
  • News
  • »
  • entertainment
  • »
  • NCB interrogates Ananya Panday: অনন্যা পাণ্ডেকে মাদক এনে দিতে বলেছিলেন আরিয়ান খান ! সামনে এল তথ্য

NCB interrogates Ananya Panday: অনন্যা পাণ্ডেকে মাদক এনে দিতে বলেছিলেন আরিয়ান খান ! সামনে এল তথ্য

photo source collected

photo source collected

NCB interrogates Ananya Panday: যদিও অনন্যা জেরায় জানান, তিনি মাদক বিষয়ে কিছুই জানেন না। এই চ্যাটটা মজা করেই লেখা।

  • Share this:

    #মুম্বই: বলিউডের মাদক চক্র নিয়ে নানা ঘটনা পর পর সামনে এসেছে। সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর পর থেকেই নতুন করে বলিউডের মাদক যোগ নিয়ে নড়েচড়ে বসে এনসিবি। তবে শাহরুখ খান(shahrukh khan) পুত্র আরিয়ান খানের (Aryan khan) মাদক কাণ্ডে গ্রেফতারের পর থেকে বলিউডে নতুন করে হইচই শুরু হয়। আরিয়ান যে জাহাজ পার্টিতে ছিলেন সেখান থেকেই উদ্ধার হয় চরস, গাঁজা। আরিয়ান ও তাঁর বন্ধুরা এই মাদক সাপ্লাইয়ের সঙ্গেও যুক্ত রয়েছেন বলেই এনসিবির (NCB) তরফে খবর।

    আরিয়ান খানের জামিন খারিজ করে দেওয়া হয়েছে। আগামী ২৬ অক্টোবর ফের শুনানি হবে। আপাতত তাঁকে রাখা হয়েছে অর্থর রোড জেলে। গতকাল সেখানে ছেলের সঙ্গে দেখা করতে গিয়েছিলেন শাহরুখ খান। বাদশা ইতিমধ্যেই জানিয়েছেন এবছর তিনি নিজের জন্মদিন পালন করবেন না। ওদিকে গৌরি খান বাড়িতে মিষ্টি আনা বন্ধ করেছেন, যতক্ষণ না আরিয়ান ছাড়া পাচ্ছে। এসবের মধ্যেই এবার ড্রাগ কাণ্ডে এনসিবি জেরা করল অনন্যা পাণ্ডেকে(NCB interrogates Ananya Panday) ।

    অনন্যা (NCB interrogates Ananya Panday)এবং আরিয়ান ছোট বেলা থেকেই খুব ভালো বন্ধু। আরিয়ানের ফোন সিজড করার পর সেখানে এনসিবির হাতে কিছু হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাট আসে। যেখানে আরিয়ান বলছেন অনন্যাকে যে তাঁর জন্য কোনও গাঁজা জোগাড় করতে পারবে কিনা? তার উত্তরে অনন্যা বলছেন, "দেখছি করা যায় কিনা।" এটুকু থেকেই জেরা করা হয় অনন্যাকে।

    যদিও অনন্যা(NCB interrogates Ananya Panday) জেরায় জানান, তিনি মাদক বিষয়ে কিছুই জানেন না। এই চ্যাটটা মজা করেই লেখা। মাদকের সঙ্গে তার কোনও যোগ নেই। যদিও এনসিবির তরফ থেকেও জানানো হয়েছে, অনন্যার বিরুদ্ধে এই চ্যাট ছাড়া খোদ কোনও প্রমাণ পাওয়া যায়নি। তাছাড়া এনসিবি জানিয়েছে, কাউকে জেরা করা মানেই সে কালপিট নয়। অনন্যার ফোন, ল্যাপটপ যদিও এখন ও রয়েছে এনসিবির কাছেই। অনন্যা বৃহস্পতিবার দেখা করতে গিয়েছিলান এনসিবির সঙ্গে। তাঁকে টানা চার ঘণ্টা জেরা করা হয়। সঙ্গে ছিলেন বাবা চাঙ্কি পাণ্ডেও।

    Published by:Piya Banerjee
    First published: