হোম /খবর /নির্বাচন /
রাত পোহালেই ভোট গুজরাতে, প্রথম দফায় ভাগ্যপরীক্ষা ৭৮৮ প্রার্থীর

রাত পোহালেই ভোট গুজরাতে, প্রথম দফায় ভাগ্যপরীক্ষা ৭৮৮ প্রার্থীর

প্রথম দফার নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে বিজেপি ও কংগ্রেসের ৮৯ জন এবং আপ-এর ৮৮ জন প্রার্থী। একেবারে শেষ দিনে সুরাত পূর্ব কেন্দ্র থেকে প্রার্থী প্রত্যাহার করেছে আম আদমি পার্টি।

  • Share this:

#গুজরাত: আর মাত্র কয়েক ঘণ্টার অপেক্ষা। ১ ডিসেম্বর, বৃহস্পতিবার গুজরাতের প্রথম দফার ভোটগ্রহণ। বিজেপি, কংগ্রেস এবং আম আদমি পার্টির ৭১৮ প্রার্থীর ভাগ্যপরীক্ষা।প্রথম দফার নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে বিজেপি ও কংগ্রেসের ৮৯ জন এবং আপ-এর ৮৮ জন প্রার্থী। একেবারে শেষ দিনে সুরাত পূর্ব কেন্দ্র থেকে প্রার্থী প্রত্যাহার করেছে আম আদমি পার্টি।

তবে, গুজরাত নির্বাচনে প্রার্থী বাছাইয়ের ক্ষেত্রে মহিলাদের ব্রাত্যই রেখেছে সমস্ত রাজনৈতিক দল। পরিসংখ্যান অন্তত তাই বলছে। প্রথম দফায় বিজেপির ৯ জন মহিলা প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। আপ তাঁদের ৫ জন মহিলা প্রার্থীকে ময়দানে নামিয়েছেন। কংগ্রেসের মহিলা প্রার্থীর সংখ্যা ৬। প্রথম দফার ৭৮৮ জন মোট প্রার্থীর মধ্যে ৭১৮ জনই পুরুষ। মহিলা প্রার্থীর সংখ্যা মাত্র ৭০।

আরও পড়ুন: বাসন্তী হাইওয়েতে বাইক রেষারেষি, প্রাণ গেল ৩ যুবকের!

গুজরাত। নরেন্দ্র মোদী, অমিত শাহের গুজরাত। বরাবরই পদ্মশিবিরের শক্ত ঘাঁটি। প্রধান বিরোধী হিসাবেও বরাবর টক্কর হয়েছে শতাব্দী প্রাচীন দল কংগ্রেসের সঙ্গে। এবারেই শুধু ত্রিমুখী লড়াই। বিজেপি-কংগ্রেসের সম্মুখ সমরে ফাঁকফোকড় গলে ঢুকে পড়েছে অরবিন্দ কেজরিওয়ালের আম আদমি পার্টি।

গত জুলাই মাস থেকে গোটা গুজরাত জুড়ে নাগাড়ে প্রচারচালিয়ে গিয়েছেন আম আদমি পার্টির মুখ্য আহ্বায়ক অরবিন্দ কেজরিওয়াল। গুজরাতকে হাতে পেতে কম চেষ্টা করছে না কংগ্রেসও। তবে, শক্তঘাঁটি হওয়া সত্ত্বেও ভোটের প্রচারে এতটুকু ফাঁক রাখেনি বিজেপি। গত সোমবারই ভোট রাজ্যে শেষ প্রচার সেরে গিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এছাড়াও, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ থেকে শুরু করে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জে পি নাড্ডা. উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ, কে ছিল না বিজেপির নির্বাচনী প্রচারে। ময়দানে প্রায় গোটা ব্যাটেলিয়নকেই নামিয়ে দিয়েছিল পদ্মশিবির।

আরও পড়ুন: পচা গন্ধের সন্ধানে মাটি খুঁড়তেই মারাত্মক দৃশ্য, প্রেমিকাকে খুন করে মাটিতে পুঁতেছে প্রেমিক!

এখন এই সমস্ত নির্বাচনী প্রচারের প্রভাব ভোটবাক্সে কতটা প্রতিফলিত হয় তা তো ৮ ডিসেম্বরই জানা যাবে। তবে, জনমত সমীক্ষা বলছে বাইশের গুজরাত বিধানসভা নির্বাচনের ফলাফল খুব একটা চমকপ্রদ হবে না। বিজেপির দিকেই ভোট দেবেন সংখ্যাগরিষ্ঠ মানুষ। সমীক্ষা অনুযায়ী, ফলাফলে দ্বিতীয় স্থানে থাকতে পারে কংগ্রেস। অন্যদিকে, ভোট কাটাকাটি ছাড়া এবারের গুজরাতে ভোটে আপ-এর তেমন কোনও ভূমিকা থাকবে না বলেই মনে করছেন না বিশেষজ্ঞেরা।

Published by:Satabdi Adhikary
First published:

Tags: Gujarat