Home /News /education-career /
Mamata Banerjee: সিলেবাসে 'নৈতিক চরিত্রের' পাঠ, মমতার ঘোষণার চার দিনের মধ্যেই তৎপরতা

Mamata Banerjee: সিলেবাসে 'নৈতিক চরিত্রের' পাঠ, মমতার ঘোষণার চার দিনের মধ্যেই তৎপরতা

প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।

প্রসঙ্গত শিক্ষক দিবসের অনুষ্ঠান মঞ্চ থেকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সিলেবাসে নৈতিক চরিত্র গঠন নিয়ে কিছু আনা যায় নাকি তা নিয়ে শিক্ষা দফতরকে ভাবনা চিন্তা করার কথা বলেন।

  • Share this:

#কলকাতা: মুখ্যমন্ত্রী ঘোষণার কয়েক দিনের মধ্যেই সিলেবাসে 'নৈতিক চরিত্র গঠন' নিয়ে তৎপরতা শুরু হল। প্রাথমিকভাবে রাজ্যের প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ শিশুদের সিলেবাসে এই পাঠক্রম নিয়ে আসতে চায়। তার জন্য শুক্রবার প্রথম দফায় আলোচনাও সেরে ফেলল প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ।

মূলত প্রথম থেকে চতুর্থ শ্রেণী পর্যন্ত সিলেবাসে কিভাবে এই পাঠক্রমকে আনা যায় তা নিয়ে শুক্রবারের অ্যাড হক কমিটির বৈঠকে আলোচনা হয়েছে। অবশেষে প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদের সভাপতি গৌতম পাল জানান "পড়ুয়াদের মধ্যে নৈতিক চরিত্র গঠন নিয়ে আলাদা কিছু করা যায় নাকি তা আমরা দেখছি। মুখ্যমন্ত্রী ইতিমধ্যেই ঘোষণা করেছেন। আলাদা করে কোনও বই বা কিছু তৈরি করা যায় নাকি তা নিয়ে আমরা আলাপ-বালোচনা করছি।"

আরও পড়ুন: ৫০ হাজার পড়ুয়াকে স্টুডেন্ট ক্রেডিট কার্ড নভেম্বরেই! ব্যাঙ্কগুলিকে 'টার্গেট' বেঁধে দিল নবান্ন

প্রসঙ্গত শিক্ষক দিবসের অনুষ্ঠান মঞ্চ থেকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সিলেবাসে নৈতিক চরিত্র গঠন নিয়ে কিছু আনা যায় নাকি তা নিয়ে শিক্ষা দফতরকে ভাবনা চিন্তা করার কথা বলেন। যদিও শুক্রবারের বৈঠক শেষে পর্ষদ সভাপতি বলেন  "সিলেবাসে কিছুটা অংশ জুড়ে নৈতিক চরিত্র রয়েছে তবে আমরা ভাবছি আলাদা করে কোন বই তৈরি করা যায় নাকি।" তবে শুধুমাত্র প্রাথমিকের সিলেবাস নয়, মাধ্যমিক স্তরে বা কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্ষেত্রেও নৈতিক চরিত্র গঠন আলাদাভাবে সিলেবাসে আনা যায় নাকি তা নিয়ে ইতোমধ্যেই সরকারি স্তরে ভাবনাচিন্তা শুরু হয়েছে।

সূত্রের খবর ষষ্ঠ শ্রেণি থেকে দ্বাদশ শ্রেণি পর্যন্ত সিলেবাসের নৈতিক চরিত্র গঠনকে কীভাবে আনা যায় তা নিয়ে ইতিমধ্যেই আলাপ-আলোচনা শুরু করেছে সিলেবাস কমিটি। সেক্ষেত্রে এই অংশটি শরীরশিক্ষা- কর্মশিক্ষার মাধ্যমে আনা যায় বলে মনে করছেন সিলেবাস কমিটির সদস্যদের একাংশ।

অন্যদিকে শুক্রবারের বৈঠকেই প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ প্রাথমিকের টেট, নিয়োগ সহ একাধিক বিষয় নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নেয়। পুজোর পরেই প্রাথমিকের নিয়োগ যাতে শুরু করা যায় তা নিয়ে ইতিমধ্যেই তৎপরতা শুরু করেছে প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ। শূন্যপদ পেলেই নিয়োগের প্রয়োজনীয় বিজ্ঞপ্তি দেবে বলে পর্ষদ সূত্রে জানা গেছে।

Published by:Debamoy Ghosh
First published:

Tags: Mamata Banerjee, Schools

পরবর্তী খবর