Home /News /education-career /
Employment: বিরাট স্বস্তি, আগামী ৩ মাসে প্রচুর চাকরি হবে! কেন? কী বলছেন নিয়োগকর্তারা?

Employment: বিরাট স্বস্তি, আগামী ৩ মাসে প্রচুর চাকরি হবে! কেন? কী বলছেন নিয়োগকর্তারা?

প্রচুর চাকরি!

প্রচুর চাকরি!

Employment: প্রচুর চাকরির সুযোগ তৈরি হচ্ছে। চলতি ত্রৈমাসিকে নতুন নিয়োগের বিপুল সম্ভাবনার কথা জানিয়েছেন দেশের প্রায় ৫৪ শতাংশ নিয়োগকর্তা।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: চাকরিপ্রার্থীদের জন্য সুখবর। এপ্রিল থেকে জুন মাসের মধ্যেই বিভিন্ন চাকরিতে প্রচুর নিয়োগ করা হবে। প্রায় একবছর সমস্তরকম নিয়োগ বন্ধ ছিল। কোভিডের জেরে অনেক সংস্থাও বন্ধ হয়ে যায়। কাজ হারান বহু মানুষ। অনেকের বেতনে কাট-ছাঁট হয়। বর্তমানে করোনার প্রকোপ কমেছে। ফের খুলে যাচ্ছে অফিস-কাছারি। চাঙ্গা হচ্ছে বাজার। ফলে প্রচুর চাকরির সুযোগ তৈরি হচ্ছে। চলতি ত্রৈমাসিকে নতুন নিয়োগের বিপুল সম্ভাবনার কথা জানিয়েছেন দেশের প্রায় ৫৪ শতাংশ নিয়োগকর্তা।

কোভিড পরবর্তী সময়ে চাকরির বাজার কতটা চাঙ্গা হয়েছে জানতে একটি সমীক্ষা চালায় টিমলিজ সার্ভিসেস। তারপরই ‘এমপ্লয়মেন্ট আউটলুক রিপোর্ট’ প্রস্তুত করে তারা। সেখানেই জানানো হয়েছে, অতিমারীর জেরে অনেক কোম্পানিতেই লোকবল কমেছে। নতুন করে বাজার খোলায় এবার সেই চাহিদা পূরণ করতে চায় তারা। তাই চলতি অর্থবর্ষের এপ্রিল-জুন ত্রৈমাসিকের মধ্যেই প্রচুর নিয়োগ করা হবে।

আরও পড়ুন: ব্যাঙ্কে স্বল্পমেয়াদের ফিক্সড ডিপোজিটেও মিলবে সর্বোচ্চ সুদের হার, রইল সেই তালিকা!

এই রিপোর্টে আরও বলা হয়েছে, চাকরির বাজারে প্রচুর নিয়োগের সম্ভাবনার কথা জানিয়েছেন দেশের প্রায় ৫৪ শতাংশ নিয়োগকর্তা। তাঁরা বলেছেন, জানুয়ারি থেকে মার্চে যত নিয়োগ হয়েছে চলতি ত্রৈমাসিকে তার চার গুণ বেশি নিয়োগ করা হবে। পরিস্থিতির অনেক উন্নতি হয়েছে বলে বিশেষজ্ঞরাও একমত। তাই নতুন চাকরি বাড়বে বলে আশাপ্রকাশ করেছেন তাঁরাও। টিমলিজ বলছে, ‘বিভিন্ন সেক্টরেই দক্ষ কর্মীর চাহিদা বেড়েছে। ফলে প্রচুর নিয়োগ হবে। যা পরোক্ষে অর্থনীতিকেও শক্তি জোগাবে’। জানা গেছে, প্রায় ১৪টি সেক্টরে ১০ শতাংশের বেশি নিয়োগ করা হবে। উল্লেখ্য, দেশের ২১টি অঞ্চলে ক্ষুদ্র, মাঝারি এবং বড় কোম্পানিগুলির উপর সমীক্ষা চালিয়ে এই রিপোর্ট তৈরি করা হয়েছে।

আরও পড়ুন: ব্যাঙ্কে স্বল্পমেয়াদের ফিক্সড ডিপোজিটেও মিলবে সর্বোচ্চ সুদের হার, রইল সেই তালিকা!

মার্চ মাসে দেশে বেকারত্বের হার কমেছে। সেন্টার ফর মনিটরিং ইন্ডিয়ান ইকোনমির মাসিক তথ্য অনুযায়ী, ফেব্রুয়ারিতে দেশে বেকারত্বের হার ছিল ৮.১০ শতাংশ। যা মার্চ মাসে ৭.৬০ শতাংশে নেমে এসেছে। এর মধ্যে শহরে বেকারত্বের হার ৮.১০ শতাংশ এবং গ্রামে ৭.১০ শতাংশ হয়েছে। কর্মসংস্থানের দিক থেকে সবচেয়ে এগিয়ে ছত্তিসগঢ়। এখানে বেকারত্বের হার দেশের সর্বনিম্ন, ০.৬০ শতাংশ। সিএমআইই-এর তথ্য থেকে আরও জানা যাচ্ছে, ২০২১ সালের মে মাসে বেকারত্বের হার ১১.৮৪ শতাংশে পৌঁছেছিল। যদিও পরে তা হ্রাস পায়। এবং ২০২২ সালের জানুয়ারিতে এটা ৬.৫৭ শতাংশে নেমে আসে। তবে ফেব্রুয়ারিতে তা আবার ৮.১০ শতাংশে পৌঁছয়, যা এখন ৭.৬০ শতাংশে নেমে এসেছে।

First published:

Tags: Employment, Job

পরবর্তী খবর