Madhyamik and HS Exam 2021: ৪৫ দিনের মধ্যেই মাধ্যমিক- উচ্চ মাধ্যমিকের ফল, ক্যাম্পে খাতা দেখবেন শিক্ষকরা

প্রতীকী ছবি৷

বুধবার দুপুর দুটো নাগাদ সাংবাদিক সম্মেলন করে মধ্যশিক্ষা পর্ষদ (Madhyamik 2021) ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ (Higher Secondary Exam) পরীক্ষার খুঁটিনাটি নিয়ে জানিয়ে দেবে।

  • Share this:

#কলকাতা: মাধ্যমিক ও  উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা শেষ হওয়ার ৪৫ দিনের মধ্যেই ফল প্রকাশ করতে পারে দুই বোর্ড। স্কুল শিক্ষা দপ্তর সূত্রে এমনই খবর। জানা গিয়েছে, মধ্যশিক্ষা পর্ষদ এবং উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ দুই বোর্ড সর্বোচ্চ ৪৫ দিনের লক্ষ্যমাত্রাকে সামনে রেখেই এগোচ্ছে ফলাফল প্রকাশের জন্য। আর তাই তাড়াতাড়ি ফল প্রকাশের জন্য এবার উত্তরপত্র মূল্যায়নের নিয়মে একাধিক রদবদল করা হচ্ছে বলেই সূত্রের খবর। বিশেষত শিক্ষকদের বাড়িতে বা স্কুলে বসে উত্তরপত্র মূল্যায়নের বদলে এবার উত্তরপত্র দেখার জন্য আলাদা করে ক্যাম্প করে দেওয়া হতে পারে বলেই স্কুল শিক্ষা দপ্তর সূত্রে জানা গিয়েছে। তাছাড়াও করোনা পরিস্থিতিতে পরীক্ষা কেন্দ্রের ভিতরে পরীক্ষা দেওয়ার নিয়মেও একাধিক রদবদল করা হচ্ছে।

বুধবার দুপুর দুটো নাগাদ সাংবাদিক সম্মেলন করে মধ্যশিক্ষা পর্ষদ ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ পরীক্ষার খুঁটিনাটি নিয়ে জানিয়ে দেবে। সূত্রের খবর, এবার শিক্ষক-শিক্ষিকাদের উত্তরপত্র মূল্যায়নের জন্য বেশিদিন সময় দেওয়া হবে না। তিন থেকে চারদিন সময় দেওয়া হতে পারে উত্তরপত্র মূল্যায়নের জন্য। এক একটি বিষয়ের জন্য আরো বেশি করে শিক্ষক নিয়োগ করা হবে উত্তরপত্র মূল্যায়নের জন্য। সেক্ষেত্রে ক্যাম্প করে বিভিন্ন sub-division ভিত্তিক উত্তরপত্র মূল্যায়ন করা হতে পারে। মঙ্গলবারই শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসুর সঙ্গে বৈঠক করেছে মধ্যশিক্ষা পর্ষদের সভাপতি কল্যাণময় গঙ্গোপাধ্যায় ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদের সভাপতি মহুয়া দাস।সূত্রের খবর সেই বৈঠকেই এই প্রস্তাবে শিলমোহর পড়েছে।

পাশাপাশি এবার সব স্কুলের মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিকের পরীক্ষা কেন্দ্র হবে। সে ক্ষেত্রে যাতে ছাত্র-ছাত্রীদের সামাজিক দূরত্ব বজায় থাকে করোনা পরিস্থিতিকে মাথায় রেখে তার জন্য একাধিক নিয়ম করছে দুই  বোর্ডের তরফে। বেঞ্চের দূরত্ব বজায় রাখার পাশাপাশি এক একটি ঘরে ১০ থেকে ১২ জন ছাত্র-ছাত্রীদের বেশি রাখা হবে না বলেই সূত্রের খবর। পাশাপাশি পরীক্ষাকেন্দ্রে একই সঙ্গে যাতে একাধিক ছাত্র-ছাত্রী প্রবেশ না করতে পারে তার জন্য বিশেষ ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে বলেই জানা গেছে। অন্যদিকে যেহেতু প্রত্যেকটি স্কুলে এবার পরীক্ষা হবে তাই পরীক্ষাকেন্দ্রে নজরদারির জন্য যদি পর্যাপ্ত শিক্ষক-শিক্ষিকা না পাওয়া যায় তাহলে যে স্কুলে অতিরিক্ত শিক্ষক-শিক্ষিকা থাকবে সেখান থেকেই অন্যান্য স্কুলে তাঁদের পাঠানো হবে বলে সূত্রের খবর।

 Somraj Bandopadhyay

Published by:Debamoy Ghosh
First published: