ক্রাইম

corona virus btn
corona virus btn
Loading

ICU-তে ভর্তি রোগীকে ধর্ষণের অভিযোগ, রিপোর্ট চাইল জাতীয় মহিলা কমিশন

ICU-তে ভর্তি রোগীকে ধর্ষণের অভিযোগ, রিপোর্ট চাইল জাতীয় মহিলা কমিশন
Representative Image

হাসপাতালে চিকিৎসা করাতে গিয়ে ধর্ষণের শিকার হয়েছেন টিবি রোগী৷ এক বেসরকারি হাসপাতালে এমনই বীভৎস ঘটনার শিকার হয়েছেন ২১ বছর বয়সি টিবি আক্রান্ত রোগী৷

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: গুরুগ্রামে বেসরকারি হাসপাতালে ভেন্টিলেশনে থাকা রোগিণীর ধর্ষণের অভিযোগ সামনে আসতেই তৎপর হল জাতীয় মহিলা কমিশন৷ বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে এই খবর প্রকাশিত হওয়ার পর, ঘটনার পূর্ণাঙ্গ রিপোর্ট চেয়ে পাঠিয়েছে কমিশন৷ বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসারত রোগীর ধর্ষণের খবরে চাঞ্চল্য তৈরি হয়েছে৷ ফের একবার দেশে এবং বিশেষ করে গুরুগ্রাম ও সংলগ্ন এলাকায় নারী সুরক্ষার বিষয় চিন্তিত জাতীয় মহিলা কমিশন৷ এই বিষয়ে পুলিশ কমিশনারের কাছে চিঠি পাঠানো হয়েছে এবং কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রেমন্ত্রকের গাইডলাইন মেনে ২ মাসের মধ্যে এই তদন্তের রিপোর্ট চাওয়া হয়েছে৷

অন্যদিকে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেছে কমিশন৷ বেসরকারি হাসপাতালের সিইও এবং ম্যানেজিং ডিরেক্টরের কাছে নিরাপত্তার গাফিলতির কারণ জানাতে চাওয়া হয়েছে৷ পাশাপাশি এই ঘটনা যাতে ভবিষ্যতে আর না ঘটে তার ব্যবস্থাও নেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে৷ হাসপাতালের থেকেও এই ঘটনার পর জবাব তলব করা হয়েছে৷ জাতীয় মহিলা কমিশনের পক্ষ থেকে প্রেস বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে এই মর্মে৷

হাসপাতালে চিকিৎসা করাতে গিয়ে ধর্ষণের শিকার হয়েছেন টিবি রোগী৷ এক বেসরকারি হাসপাতালে এমনই বীভৎস ঘটনার শিকার হয়েছেন ২১ বছর বয়সি টিবি আক্রান্ত রোগী৷ ২১ থেকে ২৭ অক্টোবর পর্যন্ত চলে তাঁর নির্দিষ্ট চিকিৎসা৷ সেই সময় তিনি প্রায়ই অচৈতন্য অবস্থায় থাকতেন৷ রোগিণীর এই অচৈতন্য অবস্থার সুযোগ নিয়ে তাঁর উপর চলে অত্যাচার৷ হাল্কা জ্ঞান ফিরতেই নিজের উপর চলা শরীরিক অত্যাচারের কথা জানিয়ে বাবাকে চিঠি লেখেন নির্যাতিতা৷ হাতে লেখা ৩ পাতার চিঠিতে তিনি নিজের উপর এই নির্যাতনের কথা উল্লেখ করেন৷ এবং হাসপাতাল কর্মী বিকাশের বিরুদ্ধে তাঁকে ধর্ষণের অভিযোগ তোলেন৷ যদিও অভিযুক্ত হাসপাতালের কর্মী কিনা, সে বিষয়টি এখনও স্পষ্ট নয়৷

ইতিমধ্যেই বুধবার সুশান্ত লোক থানায় ধর্ষণের অভিযোগ দায়ের হয়েছে৷ অভিযোগ পাওয়ার পরই হাসপাতালে পৌঁছয় পুলিশ বাহিনী৷ তবে এখনও পর্যন্ত নির্যাতিতা নিজের বয়ান দেওয়ার মতো মানসিক বা শারীরিক অবস্থাতে নেই বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা৷ হাসপাতালের CCTV ফুটেজ খতিয়ে দেখা হচ্ছে৷ এছাড়াও অন্যান্য তথ্য দেখা হচ্ছে, জানান ডেপুটি কমিশনার (ইস্ট) মকসুদ আহমেদ৷ এখনও নির্যাতিতাকে জিজ্ঞাসাবাদ করার মতো পরিস্থিতি নেই, চিকিৎসরা সবুজ সঙ্কেত দিলেই তাঁর বয়ান নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন তিনি৷

Published by: Pooja Basu
First published: October 29, 2020, 6:24 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर