Sushil Kumar: সুশীলের হাতে লাঠি, সঙ্গে দুষ্কৃতীরা, মাটিতে লুটিয়ে সাগর ধনখড়, ভিডিও ভাইরাল

সুশীল কুমার

ভিডিওতে ছত্রশাল স্টেডিয়ামের অভ্যন্তরে কয়েক জনকে দেখা গিয়েছে, যার মধ্যে কালা জাথেদির গ্যাং এবং নীরজ বাওয়ানিয়া গ্যাংয়ের দুষ্কৃতীরাও রয়েছে।

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: কুস্তিগীর সাগর ধনখড় (Sagar Dhakhar) হত্যার ঘটনায় গ্রেফতার কুস্তিগীর সুশীল কুমারের (Wrestler Sushil Kumar) একটি ভিডিও ভাইরাল হচ্ছে। এই ভিডিওতে সুশীল কুমারকে সাগর ধনখড়, সোনু মহল ও তার সহযোগীদের লাঠিপেটা করতে মারতে দেখা গিয়েছে। ১৯ থেকে ২০ সেকেন্ডের এই পুরো ভিডিওটি (Sushil Kumar video) পুলিশের কাছে তথ্য প্রমাণ হিসাবে উঠে এসেছে। এই ভিডিওতে, ঘটনার রাতের কিছু বিবরণ উঠে এসেছে৷ যা পুলিশকে তদন্তে সাহায্য করবে বলে মনে করা হচ্ছে৷ এই ভিডিওতে সুশীলের নিকটবর্তী প্রিন্সকে দেখা গিয়েছে। তার মোবাইল থেকেই এই ভিডিও উদ্ধার। তাঁর বিরুদ্ধেও মামলা রয়েছে।

    ভিডিওতে ছত্রশাল স্টেডিয়ামের অভ্যন্তরে কয়েক জনকে দেখা গিয়েছে, যার মধ্যে কালা জাথেদির গ্যাং এবং নীরজ বাওয়ানিয়া গ্যাংয়ের দুষ্কৃতীরাও রয়েছে। পুলিশের অভিযোগ, ভিডিওতে সুশীলও উপস্থিতি নজরে এসেছে। ভিডিওতে একজনকে অস্ত্র হাতেও দেখা গিয়েছে। এদের হাতে একটি করে হকি স্টিকও রয়েছে। ভিডিওতে সাগর ছাড়াও আরও একজনকে সুশীলের সঙ্গীদের মারধর করতে দেখা গিয়েছে। কিছু সাদা রঙের গাড়িও দেখা গিয়েছে৷ পুলিশের দাবি, এগুলি নীরজ বাওয়ানিয়া ও কালা গ্যাংয়ের দুষ্কৃতীদের গাড়ি। এই ভিডিওটি ফরেনসিক তদন্তও হয়েছে যাতে দেখা গিয়েছে যে এটি ভুয়ো নয়৷

    সুশীল কুমার ভিডিও সুশীল কুমার ভিডিও

    তদন্ত অনুযায়ী, ঘটনার দিন গত ৪ মে, উত্তর দিল্লির ছত্রশাল স্টেডিয়ামে অনুশীলন চলাকালীন ছয় কুস্তিগির কুমার, অজয়, প্রিন্স, সোনু মহল, সাগর ধনকড় ও অমিত কুমারের মধ্যে সংঘর্ষ হয় বলে জানতে পেরেছে পুলিশ। এই ঘটনায় সাগর নামে এক কুস্তিগির মারা যান। আহত হন সোনু ও অমিত। তাঁদের চিকিৎসা চলছে। বচসা থেকে শুরু হয় হাতাহাতি। সুশীল কুমারের একটি ফ্ল্যাটে ভাড়া থাকতেন সাগর। সেই ফ্ল্যাট খালি করা নিয়েই ঝামেলার সূত্রপাত। সুশীল স্বীকার করেছেন, তিনি সাগরকে খুন করতে চাননি। তবে শিক্ষা দিতে চেয়েছিলেন। যাতে ভবিষ্যতে কেউ তাঁর সঙ্গে ঝামেলা করার সাহস না পায়! এর জন্য সুশীল কুখ্যাত নীরজ বাওয়ানা এবং কালা জাথেদির গ্যাং দুর্বৃত্তদের সাহায্য নেয় বলে অভিযোগ। এবং কয়েক ঘন্টার মধ্যে, তিনি হরিয়ানা থেকে দুর্বৃত্তদের ডেকে এনেছিলেন এবং সেই রাতে সোনু এবং অন্যদের খারাপভাবে মারধর করেছিলেন। এই ঘটনায় সাগরের মাথায় গুরুতর আঘাতের কারণে তিনি মারা যান।

    Published by:Pooja Basu
    First published: