Viral: রাজধানীর জনবহুল এলাকায় অসহায় ২ যুবককে কুপিয়ে খুন! রোমহর্ষক CCTV ফুটেজ দেখলে শিউরে উঠবেন...

Viral: রাজধানীর জনবহুল এলাকায় অসহায় ২ যুবককে কুপিয়ে খুন! রোমহর্ষক CCTV ফুটেজ দেখলে শিউরে উঠবেন...

রাজধানীর রাস্তায় কুপিইয়ে জোড়া খুন। CCTV ফুটেজ। সংগৃহীত ছবি।

রাস্তা থেকে রক্তাক্ত অবস্থায় তুলে দুই যুবককে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় তখন তাঁদের মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক।

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: মাঝ রাস্তাতেই দীর্ঘক্ষণ ধরে ঝামেলা চলছিল চার যুবকের মধ্যে। ঝামেলা বাড়তে বাড়তে হাতাহাতিতে পৌঁছয়। এরপর তাঁদের মধ্যে আচমকাই দুই যুবককে রাস্তায় ফেলে শুরু হয় বেধড়ক মারধর। তাতেও আক্রোশ না কমলে দু'জনকে কুপিয়ে ফালা ফালা করে দেয় সেই দুই যুবক। এরপর দু'জনে জ্ঞান হারালে  রক্তের মধ্যেই তাঁদের ফেলে রেখে চম্পট দেয় অভিযুক্তেরা। সিনেমার চিত্রনাট্যের মতো রুদ্ধশ্বাস ঘটনাটি রাজধানী দিল্লির। জনবহুল এলাকা উদ্যোগ বিহার মেট্রো স্টেশনের কাছেই রাস্তার ওপরে ঘটে যাওয়া ঘটনার সিসি ক্যামেরার ফুটেজ এখন সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল।

    পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, যখন দুই যুবককে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় তখন তাঁদের মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক। সিসি ক্যামেরার ফুটেজ থেকে পাওয়া ফুটেজের ভিত্তিতে মৃত রোহিত আগরওয়াল (২৩) এবং ঘনশ্যাম (২০) স্কুটি নিয়ে যাচ্ছিলেন। সেই সময় অন্য একটি বাইকে ছিল অভিযুক্ত দুই যুবক। আচমকাই স্কুটিটি বাইকটিকে ধাক্কা মারে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে। এরপরেই শুরু হয় অশান্তি। যা ক্রমেই হাতাহাতিতে গড়ায়। এরপর তা ভয়াবহ আকার নেয়। বেশ খানিকটা রাতে ঘটনাটি ঘটায় জনবহুল এলাকা হওয়া সত্বেও এলাকায় বেশী লোক ছিল না। ফুটেজে দেখা গিয়েছে, রোহিত এবং ঘনশ্যামকে রাস্তায় ফেলে এলোপাথাড়ি কিল, চড়, লাথি, ঘুষি মারছে অভিযুক্তেরা। কিছুক্ষণ ে ভাবে মারামারির পরেই অভিযুক্তদের একজন ছুড়ি বার করে। তারপর শুরু হয় এলোপাথাড়ি কোপানো।

    ঘটনার আকস্মিকতায় হতভম্ব হয়ে যায় আক্রান্ত দুই যুবক। তবে নিজেদের বাঁচাতে পারেনি তাঁরা। অভিযুক্ত ওই যুবকের একের পর এক ছুড়ির আঘাতে রক্তাক্ত অবস্থায় একে একে দুই যুবক লুটিয়ে পড়ে। যদিও অভিযুক্তের সঙ্গীর সাদা শার্ট রক্তে ভিজে যাওয়ায়, সে তাঁকে থামাতে চেষ্টা করেছিল। কিন্তু তাঁকে থামানো সম্ভব হয়নি।  এরপরই দুই অভিযুক্ত ঠাণ্ডা মাথায় বাইকে চড়ে এলাকা ছেড়ে চলে যায়।

    পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, আসটায় দুই যুবকের দেহ রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে ফোন আসে থানায়। তড়িঘড়ি ঘটনাস্থলে পৌঁছয় পুলিশ। এরপর দুই আক্রান্তকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে শেষরক্ষা হয়নি। হাসপাতালে পৌঁছনোর আগেই মৃত্যু হয়েছিল তাঁদের। ঘটনার তদন্তে নেমে পুলিশ সিসি ক্যামেরার ফুটেজ সংগ্রহ করে। তার ভিত্তিতেই গ্রেফতার করা হয় অভিযুক্ত প্রদীপ কোহলি (১৯) এবং এক নাবালককে। ঘটনার কোথা স্বীকার করে নিয়েছে দু'জনেই। খুনে ব্যবহৃত ছুরিটি বাজেয়াপ্ত করেছে পুলিশ।

    Published by:Shubhagata Dey
    First published: