• Home
  • »
  • News
  • »
  • crime
  • »
  • ‘ভাবি দো লাশ ঘর কে বাহার অউর এক আঙ্গন ম্যায় পড়ি হ্যায়’ বিকাশের শাগরেদ শশীকান্তের বউয়ের ফোন ভাইরাল

‘ভাবি দো লাশ ঘর কে বাহার অউর এক আঙ্গন ম্যায় পড়ি হ্যায়’ বিকাশের শাগরেদ শশীকান্তের বউয়ের ফোন ভাইরাল

শশীকান্তের বউ ফোনে বলে, ‘বিকাশ ভাইয়া অউর ইন লোগো নে মিলকর মারা হ্যায়’৷

শশীকান্তের বউ ফোনে বলে, ‘বিকাশ ভাইয়া অউর ইন লোগো নে মিলকর মারা হ্যায়’৷

শশীকান্তের বউ ফোনে বলে, ‘বিকাশ ভাইয়া অউর ইন লোগো নে মিলকর মারা হ্যায়’৷

  • Share this:

    #কানপুর: ২ জুলাইয়ের সেই নারকীয় রাত, যেখানে বিকাশ দুবে ও তার সাঙ্গপাঙ্গদের গুলিতে শহিদ হয়েছিলেন আট পুলিশ কর্মী ৷ তার মূল কাহিনী এখন সকলেরই জানা ৷ কিন্তু সেই ঘটনার তদন্তে নেমে পুলিশ রোজই নতুন নতুন তথ্য পাচ্ছে আর তাতে এই শ্যুটআউটের সবদিক একেবার পরিষ্কার হয়ে ়যাচ্ছে ৷

    ঠিক যেদিন কানপুর শ্যুটআউট হয়েছিল সেদিন হত্যালীলা চালানোর পরেই বিকাশের অন্যতম সঙ্গী গুর্গে শশীকান্তের স্ত্রী তার বৌদিকে ফোন করেছিলেন ৷ সেই ফোনে শশীকান্তের বউ পরিষ্কার বিবরণ দিয়েছিলেন গুলির লড়াই ঠিক কী রকম হয়েছে আর তাতে নিহত পুলিশকর্মীদের মৃতদেহ বাড়ির উঠোনেই পড়ে রয়েছে ৷

    নিউজ18-এর হাতে এসেছে সেই মহা গুরুত্বপূর্ণ ফোনের রেকর্ডিং ৷ এই অডিও-তে পরিষ্কার বোঝা যাচ্ছে যে এটা একেবারেই শ্যুটআউটের পরেই ফোন গিয়েছিল কারণ তখনও ঘটনাস্থলে পুলিশ পৌঁছয়নি ৷ এই ফোনেই পরিষ্কার যে বিকাশ দুবেই পুলিশদের গুলি করে মেরেছিল ৷

    সেই ফোনের রেকর্ডিংয়ে পরিষ্কার, শশীকান্তের স্ত্রী বলেছেন, ‘ ভাবি দো লাশ ঘর কে বাহার অউর এক আঙ্গন মে পড়ি হ্যায় ’ , শুনে নিন সেই ফোনের রেকর্ডিং ৷

    শশীকান্তের স্ত্রী-র উত্তরের পর তার বৌদি বলে, লাশ কি পুলিশের, এরপর আরও একটা প্রশ্ন করার পর বৌদি জিজ্ঞাসা করে কে মারল পুলিশদের ৷ তার উত্তরে শশীকান্তের বউ বলে, ‘বিকাশ ভাইয়া অউর ইন লোগো নে মিলকর মারা হ্যায়’৷

    মারার পরেই বিকাশ ও তার সঙ্গী পালিয়ে গেছে বলে জানায় শশীকান্তের বউ৷ ফোনেই জিজ্ঞাসা করে যে সে ফোন সুইচ অফ করবে কিনা ৷ তখন তার বৌদি তাকে বলে আগে সব নম্বর ডিলিট করে মোবাইলের ব্যাটারি খুলে রাখতে ৷ এরপর তিনি তাকে আরও পরামর্শ দেন, কেউ কিছু জিজ্ঞাসা করলে বলতে হবে সে কিছুই জানে না ৷ এরপর শশীকান্তের বউ আবার জিজ্ঞাসা করে পুলিশ এসে জিজ্ঞাসাবাদ করলে কী হবে ৷

    এই ফোন রেকর্ডিং এই মুহূর্তে ভাইরাল ৷ আর এই ফোন থেকেই প্রমাণিত যে শশীকান্তের স্ত্রী এই শ্যুটআউটের সাক্ষী ৷ তবে সে পুলিশি জেরায় কিছুই বলেনি ৷ এবার ফের একবার পুলিশ শশীকান্তের বউকে জেরা করবে ৷

    এদিকে ৫০ হাজার টাকার পুরস্কার মূল্য থাকা শশীকান্তকে ইতিমধ্যেই গ্রেফতার করেছে পুলিশ ৷

    Published by:Debalina Datta
    First published: