• Home
  • »
  • News
  • »
  • crime
  • »
  • 61 YEAR OLD VICTIM OF HONEY TRAP IN AHMEDABAD WOMAN ASKS FOR RS 13 LAKH IN HOTEL ROOM PBD

স্ত্রী-সন্তানকে উপেক্ষা করে অচেনা মহিলার ডাকে হোটেল রুমে ৬১ বছর বয়সি ব্যক্তি, তারপর...

Honey Trap in Ahmedabad

মাত্র ১০ দিনের আলাপেই অচেনার মহিলার সঙ্গে 'ভাল সময়' কাটাতে গিয়ে যা হল তাঁর সঙ্গে...

  • Share this:

    #আহমেদাবাদ: চাকরি চাই৷ ফোন গিয়েছিল ৬১ বয়সি প্রৌঢ়ের কাছে৷ মহিলা কন্ঠের ফোনে আকর্ষিত হন প্রৌঢ়৷ জমে ওঠে ভাব৷ স্ত্রী ও চার সন্তানকে উপেক্ষা করে দেখা করতে শুরু করেন চাকরিপ্রার্থী মহিলার সঙ্গে৷ তিনি আহমেদাবাদের মেঘনগরের ভার্গবে থাকেন, এমনই জানান মহিলা৷ মহিলার জন্মদিনে এক হোটেলে রাত কাটান দু’জনে৷ কিন্তু প্রৌঢ় ঘুনাক্ষরেও বুঝতে পারেননি যে কী অসময় অপেক্ষা করছে তাঁর জন্য! হোটেলের রুমে ডেকে, যৌন আবেদনে প্রৌঢ় মাতিয়ে ১৩ লক্ষ টাকা চেয়ে বসেন ওই মহিলা! এতেই খুব ঘাবড়ে যান তিনি৷ কিছু বুঝে ওঠার আগে তাকে হুমকি দিতে শুরু করেন মহিলা৷ বলেন, টাকা না দিলে তাঁর নামে ধর্ষণের অভিযোগ আনবেন৷ লজ্জা ও ভয়ে কাঁপতে থাকেন প্রৌঢ়৷ বুঝতে পারেন তাঁকে ফাঁসানো হয়েছে৷

    ঘটনা আহমেদাবাদের বাপুনগরের৷ ওই ব্যক্তির নাম রাজেশ বলে জানা গিয়েছে৷ ৬১ বছর বয়সি ব্যক্তির স্ত্রী রয়েছেন৷ রয়েছে ৩ কন্যা ও ১ পুত্র৷ উচ্চপদে কর্মরত তিনি৷ তাই তাঁর কাছে চাকরির আবেদন করে বহু মানুষই যোগাযোগ করেন৷ সেই সুযোগটি কাজে লাগান এই মহিলা৷ আদতে এভাবে টাকা তোলার এক চক্র কাজ করে, জানিয়েছে পুলিশ৷ সুন্দরী মহিলারা তাঁদের রূপ-যৌবনের প্রলোভনে সুপ্রতিষ্ঠিত ব্যক্তিদের ফাঁসিয়ে টাকা আদায় করে৷ টাকা না দিতে চাইলেই ধর্ষণের অভিযোগের হুমকি দেওয়া হয়৷ যাঁদের এই জালে ফাঁসানো হয়, তাঁরা সকলেই সমাজে পরিচিত৷ তাই এমন ঘটনা গোপন রাখতে টাকা দিতে বাধ্য হন তাঁরাও৷ এই ভাবেই চলে হানি ট্র্যাপের ব্যবসা!

    আরও পড়ুন স্ত্রীর চরিত্র নিয়ে সন্দেহ, যৌনাঙ্গ 'সেলাই' করে দিল স্বামী!

    এই বিষয় কোনও ধারণাই ছিল না রাজেশের৷ ফলে কিছুটা ভাল সময় কাটাতে তিনিও মহিলার ডাকে হোটেলে যান৷ কিন্তু সেখানে মহিলার আচরণে তাঁর সন্দেহ হয়৷ তারপরই তাঁর থেকে ১৩ লক্ষ টাকা চেয়ে বসেন ওই ধান্দাবাজ মহিলা৷ চলে ক্রমাগত হুমকি৷ এরপর রাজেশ পরিস্থিতি মিটমাট করে ১ লক্ষ টাকা দিতে রাজি হন৷ তবে এত কম টাকায় রাজি না হয়ে পুলিশে ফোন করে দেন মহিলা৷

    পরে বাপুনগর থানার পুলিশ আসে সেখানে৷ প্রৌঢ়ের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ দায়ের করা হয়৷ এমন আরও অভিযোগ দায়ের হয়েছে অমিষ খুশওয়াবা, বিকাস গোয়েল, রাজেশ ভাধের, অল্পা, আরতির বিরুদ্ধে৷ পুলিশ ঘটনাগুলির তদন্ত শুরু করেছে৷

    Published by:Pooja Basu
    First published: