Zydus Cadila: 'সূচবিহীন' ৩ ডোজের করোনাটিকার উদ্যোগ, ছাড়পত্র চেয়ে আবেদন জাইডাস ক্যাডিলার!

'নিডল-ফ্রি' ভ্যাকসিন প্রতীকী ছবি

করোনা টিকা (Covid-19 Vaccine) জাইকভ-ডি (ZyCoV-D)-কে জরুরি ভিত্তিতে ব্যবহারের জন্য অনুমোদন চেয়ে আবেদন জানিয়েছে টিকা প্রস্তুতকারক সংস্থা জাইডাস ক্যাডিলা (Zydus Cadila)৷ সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে তিনটি ডোজের এই টিকায় কোনও সূচ ফোটাতে (Needle Free Vaccine) হবে না৷

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি : তবে কি মডার্নার পর এ বার বাজারে আসার পথে দেশের পঞ্চম কোভিড টিকাটি?করোনা টিকা (Covid-19 Vaccine) জাইকভ-ডি (ZyCoV-D)-কে জরুরি ভিত্তিতে ব্যবহারের জন্য অনুমোদন চেয়ে আবেদন জানিয়েছে টিকা প্রস্তুতকারক সংস্থা জাইডাস ক্যাডিলা (Zydus Cadila)৷ সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে তিনটি ডোজের এই টিকায় কোনও সূচ ফোটাতে হবে না৷ ('Needle-Free' Vaccine)  আর এটি শিশুদের জন্যও খুবই সুরক্ষিত৷ জাইকভ-ডি বিশ্বের প্রথম প্লাসমিড ডিএনএ টিকা বলে দাবি করেছে জাইডাস ক্যাডিলা৷ বার্ষিক ১২ কোটি ডোজ তৈরির পরিকল্পনা রয়েছে তাদের ৷

    দেশে বর্তমানে সেরাম ইনস্টিটিউটের তৈরি কোভিশিল্ড, ভারত বায়োটেকের কোভ্যাকসিন, রাশিয়ার স্পুটনিক ভি দেওয়া হচ্ছে ৷ সম্প্রতি অনুমোদন দেওয়া হয়েছে আমেরিকার তৈরি মডার্নাকেও ৷ 'জাইকভ-ডি' ব্যবহারের জন্য ছাড়পত্র পেয়ে গেলে, দেশ পাবে পঞ্চম কোভিড টিকা ৷ তারই অনুমোদন তাই এই মুহূর্তে ভারতের মতো বৃহৎ জনসংখ্যার দেখে অত্যন্ত প্রাসঙ্গিক হয়ে উঠতে চলেছে। বিশেষত যেখানে করোনাভাইরাসের তৃতীয় ঢেউ দোরগোড়ায়।

    উল্লেখ্য, জাইডাসের দাবি, উপসর্গযুক্ত কোভিড সংক্রমণের ক্ষেত্রে ৬৬.৬ শতাংশ কার্যকরী জাইকভ-ডি৷ মাঝারি ধরনের রোগের ক্ষেত্রে এটি ১০০ শতাংশ কার্যকরী ৷ ১২ থেকে ১৮ বছর বয়সি শিশুদের ক্ষেত্রেও এই টিকা কার্যকরী বলে দাবি এই টিকাপ্রস্তুতকারক সংস্থার৷ তবে ট্রায়ালের তথ্যের এখনও পর্যন্ত পিয়ার রিভিউ করা হয়নি ৷

    সংস্থাটি জানিয়েছে, দেশজুড়ে ২৮,০০০ এরও বেশি স্বেচ্ছাসেবীর উপর জাইকভ-ডি-র শেষ ধাপের ট্রায়ালে তার কার্যকারিতা স্পষ্ট হয়েছে৷ এর মধ্যে ১২-১৮ বছরের ১০০০ জনের উপর ট্রায়াল চলেছে ৷ জাইডাসের পক্ষ থেকে বিবৃতি দিয়ে বলা হয়েছে, "ভারতে যখন কোভিড ১৯-এর দ্বিতীয় ঢেউ ভয়ংকর আকার নিয়েছে, সেই সময় করা হয় এই টিকার ট্রায়াল ৷ করোনার নতুন মিউটান্ট স্ট্রেন বিশেষত ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের ক্ষেত্রে এই টিকা কার্যকরী বলে আশ্বস্ত করা হচ্ছে।

    Published by:Sanjukta Sarkar
    First published: