আগামিকাল থেকেই খুলছে দোকান, মদের দোকানও কি খুলবে? দেখুন কী জানাল কেন্দ্র

প্রতীকী ছবি৷

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: করোনা মোকাবিলায় দেশজুড়ে চলছে লকডাউন। তার মধ্যেই শর্তসাপেক্ষে দোকান খোলায় সায় দিয়েছে কেন্দ্র। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের নির্দেশ, জনবসতি ও মার্কেট কমপ্লেক্সের দোকান খোলা যাবে। তবে শপিং মল কোনওভাবেই খোলা যাবে না । তবে সবক্ষেত্রেই মানতে হবে কিছু শর্ত, নিয়ম-নির্দেশিকা । যেমন, গ্লভস ও মাস্ক পরতে হবে ক্রেতা ও বিক্রেতা উভয় পক্ষকেই । সামাজিক দূরত্ব মেনে চলতে হবে । শুক্রবার গভীর রাতে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের তরফে এই সিদ্ধান্ত জানানো হয়। তাতে বলা হয়, যেসব দোকান শপস অ্যান্ড এস্ট্যাবলিশমেন্ট অ্যাক্টের আওতায় রেজিস্টারড, তারা যদি রেসিডেন্সিয়াল এলাকা ও বাজার এলাকায় হয়, তাহলে দোকান খোলা যাবে। এবং দোকানের কর্মচারীদের ৫০ শতাংশ কাজ করতে পারবেন ।

    তবে এই আওতায় কী পড়ছে মদের দোকান । এই মুহূর্তে দেশের অধিকাংশ মদ্যপায়ীদের একটাই প্রশ্ন, কবে থেকে মদের দোকান বা বারগুলি খোলা হবে? দীর্ঘদিন মদ না পেয়ে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই দেখা যাচ্ছে মদ্যপায়ীদের অসৎ উপায় অবলম্বন করতে । কেউ মদ না পেয়ে ঘুমের ওষুধ বা রাসায়নিক বা রং খেয়ে নিচ্ছেন । কেউ বাড়িতেই বানানোর চেষ্টা করছেন মদ । কেউ করছেন আত্মহত্যা । কিন্তু এতকিছুর পরেও তাঁদের জন্য এ দফাতেও কোনও সুখবর দিল না কেন্দ্র । জানা গিয়েছে দোকান খোলার সিদ্ধান্ত নেওয়া হলেও এই আওতায় পড়বে মদের দোকান বা বারগুলি । সেগুলি বন্ধই থাকবে । লকডাউনের প্রথম দফায় অর্থাৎ, ২৫ মার্চ থেকে ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত অসম ও মেঘালয়ে মদের দোকান খোলা রাখা হয়েছিল । ১৫ এপ্রিল, লকডাউনের মেয়াদ বাড়ানো হয় । সে সময় কেন্দ্রের তরফে পরিষ্কার জানিয়ে দেওয়া হয়, মদ, গুটখা এবং তামাকজাত দ্রব্যের বিক্রি বন্ধ রাখতে হবে । এরপরেই ওই দুই রাজ্যেও মদের দোকান বন্ধ করে দেওয়া হয় । পঞ্জাব সরকারও কেন্দ্রের কাছে মদের দোকান খোলার আর্জি জানিয়েছিল । কিন্তু সেই আবেদনও খারিজ হয়ে যায় ।
    Published by:Simli Raha
    First published: