Fake Coronavirus Negative Report: ভুয়ো করোনা নেগেটিভ রিপোর্ট দেখিয়ে দেরাদুনে গ্রেফতার ১৩ পর্যটক!

ভুয়ো করোনা নেগেটিভ রিপোর্ট দেখিয়ে দেরাদুনে গ্রেফতার ১৩ পর্যটক!

উত্তরাখণ্ডের দেরাদুন-মুসৌরি বেড়াতে যাওয়া এই ১৩ জন পর্যটক ভুয়ো করোনাভাইরাস নেগেটিভ (Fake Coronavirus Negative Report) হওয়ার রিপোর্ট দেখিয়েছিলেন বলে অভিযোগ।

  • Share this:

    #দেরাদুন: করোনাভাইরাসের তৃতীয় ঢেউয়ের (Coronavirus 3rd Wave) প্রাথমিক স্তরে পৌঁছে যাওয়ার সতর্কতা জারি করেছেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা হু (WHO)। এরই মধ্যে কিছু মানুষ করোনাবিধিকে কোনওরকম তোয়াক্কা না করে বেরিয়ে পড়েছেন রাস্তায়। নিজেদের জীবন উপভোগ করার জন্য করোনা ছড়িয়ে মানুষ মারতেও দ্বিতীয়বার ভাবছেন না তাঁরা। এমনই কয়েকজন পর্যটককে এবার গ্রেফতার করল পুলিশ। উত্তরাখণ্ডের দেরাদুন-মুসৌরি বেড়াতে যাওয়া এই ১৩ জন পর্যটক ভুয়ো করোনাভাইরাস নেগেটিভ (Fake Coronavirus Negative Report) হওয়ার রিপোর্ট দেখিয়েছিলেন বলে অভিযোগ। পুলিশকে প্রত্যেককেই গ্রেফতার করেছে।

    শহরের ক্লিমেন্ট টাউন থেকে এই ১৩ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এরই সঙ্গে আরও চার জনকেও আটক করা হয়েছে। এখনও পর্যন্ত দেরাদুন ও মুসৌরিতে বেড়াতে যাওয়া মোট ১০০ জনের কাছে ভুয়ো RT-PCR রিপোর্ট বাজেয়াপ্ত করেছে পুলিশ। গত ১০ জুলাই দেরাদুন জেলা প্রশাসনের তরফে দেরাদুন ও মুসৌরি বেড়াতে আসা পর্যটকদের নেগেটিভ RT-PCR রিপোর্ট দেখানো বাধ্যতামূলক করেছে। কারণ, কয়েকদিন আগেই দেখা গিয়েছিল, করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের মধ্যেই বহু মানুষ মাস্ক ছাড়াই বেড়াতে বেরিয়ে পড়েছেন। কোনও দূরত্ববিধিও মানা হচ্ছে না।

    বিভিন্ন ট্যুরিস্ট স্পটগুলিতে লাগামছাড়া ভিড় ও করোনাবিধি উড়িয়ে ঘুরে বেড়ানোর ভয়াবহ ছবি সামনে আসতেই নড়েচড়ে বসে প্রশাসন। তার পরেই করোনার নেগেটিভ রিপোর্ট দেখানো বাধ্যতামূলক করা হয়। অন্য রাজ্য থেকে মুসৌরিতে বেড়াতে আসাদের ক্ষেত্রে এই নিয়ম লাগু করা হয়েছে। মুসৌরির কেমপটি ফলসেও রাজ্য প্রশাসনের তরফে পর্যটকের সংখ্যা ৫০-এ বেঁধে দেওয়া হয়েছে। একই সঙ্গে দেরাদুন প্রশাসনের তরফে জানানো হয়েছে নেগেটিভ করোনা রিপোর্ট দেখাতে না পারলে কোলহুখেতের পরে আর ঢুকতে দেওয়া হবে না পর্যটকদের।

    সোমবারই উত্তরাখণ্ড সরকারের তরফে লকডাউন বাড়ানো হয়েছে ২০ জুলাই পর্যন্ত। ৭২ ঘণ্টা আগে করানোর করোনা নেগেটিভ রিপোর্ট দেখাতে না পারলে শহরে ঢোকার ক্ষেত্রেও বিধিনিষেধ করা হয়েছে। এই পরিস্থিতিতে পর্যটকদের ভুয়ো রিপোর্ট দেখিয়ে বেড়ানোর এই হুজুগ প্রশ্ন তুলে দিয়েছে সাধারণ মানুষের সতর্কতা নিয়ে।

    Published by:Raima Chakraborty
    First published: