সামাজিক দূরত্বে অগ্রাধিকার, প্রজাতন্ত্র দিবসে থাকবে না বাইক স্টান্ট

photo/swarajya

কোভিড -১৯ সুরক্ষা নিয়মের কারণে এবার প্রজাতন্ত্র দিবসের প্যারেডে থাকবে না বাইক স্টান্ট।কিন্তু বর্তমান পরিস্থিতির কারণে প্রজাতন্ত্র দিবসের অন্যতম আকর্ষণ এবার আর দেখা যাবে না।এছাড়াও, সামাজিক দূরত্বের কারণে ৭২ তম প্রজাতন্ত্র দিবসের অনুষ্ঠানে সমাজের বিভিন্ন ক্ষেত্রে অবদান রাখার জন্য সাহসিকতার পুরস্কার থাকবে না বলেই জানিয়েছেন কর্মকর্তারা।

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: কোভিড -১৯ সুরক্ষা নিয়মের কারণে এবার প্রজাতন্ত্র দিবসের প্যারেডে থাকবে না বাইক স্টান্ট। সেনা এবং প্যারামিলিটারি থেকে বিশেষ প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত জওয়ানরা প্রজাতন্ত্র দিবসের দিনে বাইক স্টান্ট দেখিয়ে মানুষের মনে আলাদা জায়গা করে নেন। একটি বাইকে কখনও দশ জন, কখনও বা পনেরো জন মিলে বিভিন্ন ভঙ্গিমা দেখিয়ে দর্শকদের বাহবা এবং হাততালি কুড়িয়ে নেন। সাধারণত ৩৫০ সি সি রয়েল এনফিল্ড বাইক ব্যবহার করা হয়। গত বছর সি আরপিএফ এর মহিলা বাহিনী বাইক স্টান্ট দেখিয়ে সকলের নজর কেড়ে নেয়। কিন্তু বর্তমান পরিস্থিতির কারণে প্রজাতন্ত্র দিবসের অন্যতম আকর্ষণ এবার আর দেখা যাবে না।এছাড়াও, সামাজিক দূরত্বের কারণে ৭২ তম প্রজাতন্ত্র দিবসের অনুষ্ঠানে সমাজের বিভিন্ন ক্ষেত্রে অবদান রাখার জন্য সাহসিকতার পুরস্কার এবং শিশুরা সাহসিকতার পুরস্কার অর্জনকারী প্যারেডও উপস্থিত থাকবে না বলেই জানিয়েছেন কর্মকর্তারা।

    সাধারণত এই প্যারেড দেখতে রাজপথের দু'ধারে লাখের বেশি মানুষ উপস্থিত থাকেন। কিন্তু নিউ নর্মাল পরিস্থিতিতে সংখ্যাটা কমিয়ে পঁচিশ হাজার করা হয়েছে। অন্য বছর যেখানে প্রায় চল্লিশটি বিশেষ ঘেরা জায়গা থাকে, এবার কমিয়ে সংখ্যাটা নামানো হয়েছে উনিশে। ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের উপস্থিত থাকার কথা ছিল প্রধান অতিথি হিসেবে। কিন্তু ব্রিটেনে নতুন স্ট্রেন ছড়িয়ে পড়ার কারণে ভারত সফর বাতিল করেন জনসন। তাই এবার আর কোনও প্রধান অতিথি থাকছেন না। বত্রিশটি  ট্যাবলো অংশ নেবে অনুষ্ঠানে। এর রাজ্য এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল থেকে থাকবে সতেরোটি, মন্ত্রকের তরফে নয়টি, এবং ছয়টি সামরিক বাহিনীর ট্যাব লো অংশ নেবে প্যারেডে।

    সাধারণত অন্যান্য বছর লাল কেল্লা পর্যন্ত যায় এই ট্যাব লো। তবে পরিস্থিতি বিচার করে এবার তা থামিয়ে দেওয়া হবে ন্যাশনাল স্টেডিয়ামে। এছাড়াও, পদযাত্রার দলগুলির আকার নিয়মিত ১৪৪ থেকে ৯৬ এ কমিয়ে আনা হয়েছে যাতে তাঁরা সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে পারে।শুক্রবার দিল্লি সেনা নিবাসের একটি সাংস্কৃতিক শিবিরে বিভিন্ন রাজ্য, মন্ত্রনালয় এবং সরকারী বিভাগের ট্যাবলো সদস্যদের কোভিড -১৯ পরীক্ষা করা হয়েছে। রিপোর্ট নেগেটিভ দেখেই অংশগ্রহণ করার অনুমতি দেওয়া হয়েছে। প্রথমবার অংশ নেবে লাদাখ ট্যাবলো। ঐতিহ্যবাহী থিস্কে বৌদ্ধ মঠ তুলে ধরা হবে। এছাড়াও বায়োটেকনোলজি বিভাগের বিশেষ ট্যাবলো থাকছে যেখানে দেখানো হবে ভারতীয় বিজ্ঞানীরা কীভাবে দেশীয় প্রযুক্তিতে ভ্যাকসিন তৈরি করেছেন। কেন্দ্রীয় সরকারের বিশেষ প্রকল্প 'ভোকাল ফর লোকাল' তুলে ধরা হবে প্যারেডে।

    উত্তর প্রদেশের ট্যাবলোতে রাম মন্দিরের আদলে তৈরি রেপ্লিকা ছাড়াও রামায়ণের বিভিন্ন অংশ তুলে ধরা হবে। পাঞ্জাবের ট্যাবলোতে স্থান পাবে শিখ গুরু তেগ বাহাদুরের চারশোতম জন্মবার্ষিকী। গুজরাত ট্যাবলো দেখাবে গান্ধি নগরের কাছে মেহসান জেলায় মোধেরার প্রাচীন সূর্য মন্দির। এছাড়াও বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর একটি সামরিক ব্যান্ডও এই কুচকাওয়াজে অংশ নেবে। এই বছর বাংলাদেশ স্বাধীনতার পঞ্চাশ বছর পালন করছে।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published: