করোনা ভাইরাস

corona virus btn
corona virus btn
Loading

করোনা পরবর্তী যুগেও বাড়ি থেকেই অফিস, ইতিবাচক বদলই দেখছেন প্রধানমন্ত্রী

করোনা পরবর্তী যুগেও বাড়ি থেকেই অফিস, ইতিবাচক বদলই দেখছেন প্রধানমন্ত্রী
নরেন্দ্র মোদি৷ PHOTO- FILE

প্রধানমন্ত্রী মনে করিয়ে দিয়েছেন, ২০১৪ সালে ক্ষমতায় আসার পর তাঁর সরকারই গরিবদের জন্য জনধন অ্যাকাউন্ট খুলেছিল৷

  • Share this:
 

#নয়াদিল্লি: বাড়িতেই নতুন অফিস৷ করোনা পরবর্তী যুগে এই পথেই হয়তো হাঁটতে চলেছেন ভারতের তরুণ পেশাদারদের একটি বড় অংশ৷ ভারতের যুবসমাজকে বার্তা দিতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির কথাতেও উঠে এলো সেই প্রসঙ্গ৷ নরেন্দ্র মোদির কথায়, 'বাড়িটাই এখন নতুন অফিস৷ কাজের ফাঁকে সহকর্মীদের সঙ্গে আড্ডা এখন ইতিহাস৷'

LinkedIn-এ প্রধানমন্ত্রী কর্মশক্তি এবং উদ্ভাবনী শক্তিতে ভরপুর ভারতের যুবসমাজকে বার্তা দিয়ে লিখেছেন, 'গোটা বিশ্ব করোনা মহামারির সঙ্গে লড়াই করলেও ভারতের যুবসমাজ আরও স্বাস্থ্যকর এবং সমৃদ্ধশালী ভবিষ্যতের দিশা দেখাচ্ছে৷'

প্রধানমন্ত্রী লিখেছেন, বর্তমান শতাব্দীর তৃতীয় দশকের শুরুটাই করোনা সংক্রমণের ধাক্কায় ওলটপালট হয়ে গিয়েছে৷ পেশাদার জীবনের গণ্ডিগুলিও বদলে যেতে বসেছে৷'

প্রধানমন্ত্রী স্বীকার করেছেন, কর্মক্ষেত্রে এই বদলের সঙ্গে তিনিও খাপ খাইয়ে নিচ্ছেন৷ কারণ করোনা সঙ্কটের মোকাবিলায় মন্ত্রিসভার সদস্য, অন্যান্য রাষ্ট্রনেতা বা আধিকারিকদের সঙ্গে অনেক বৈঠকই ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে সারছেন প্রধানমন্ত্রী৷ নরেন্দ্র মোদি জানিয়েছেন, 'একেবারে তৃণমূল স্তরে ছবিটা ঠিক কী রকম, তা বোঝার জন্য সংশ্লিষ্ট সবপক্ষের সঙ্গে এবং সমাজের বিভিন্ন স্তরের মানুষের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে অসংখ্য বৈঠক করছি৷ তার মধ্যে বিভিন্ন এনজিও এবং স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনও রয়েছে৷'

প্রধানমন্ত্রী আরও লিখেছেন, 'গোটা বিশ্বই প্রযুক্তি নির্ভর হয়ে উঠছে৷ প্রযুক্তি ফলে যে আমূল বদলগুলি আসে, তার সবথেকে বড় প্রভাবগুলি অধিকাংশ ক্ষেত্রেই গরিব মানুষের জীবনের উপরে পড়ে৷ প্রযুক্তির সাহায্যে আমলাতন্ত্রের লাল ফিতের ফাঁস, ফড়েদের দাপট ধ্বংস করে উন্নয়নমূলক প্রকল্পে গতি আনে৷'

প্রধানমন্ত্রী মনে করিয়ে দিয়েছেন, ২০১৪ সালে ক্ষমতায় আসার পর তাঁর সরকারই গরিবদের জন্য জনধন অ্যাকাউন্ট খুলেছিল৷ একইসঙ্গে লিঙ্ক করা হয়েছিল আধার কার্ড এবং মোবাইল নম্বর৷ নরেন্দ্র মোদির জানিয়েছেন, তখন সেই পদক্ষেপ নেওয়াতেই করোনা ভাইরাসের সঙ্কটে কোটি কোটি মানুষের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে সরাসরি টাকা পাঠানো সম্ভব হচ্ছে৷

তিনি আরও বলেছেন, এই সময় ব্যবসায়িক মডেল তৈরি করতে হবে যার সঙ্গে সহজেই সবাই মানিয়ে নিতে পারেন৷ ডিজিটাল লেনদেন বাড়ানোর উপরেও জোর দিয়েছেন তিনি৷ নতুন ব্যবসায়িক ভাবনা থেকে যাতে গরিবরা উপকৃত হন, সেই বার্তাও দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী৷

সবশেষে নরেন্দ্র মোদি লিখেছেন, 'ভারতের থেকে এর পর যে বড় বড় ভাবনাগুলি বেরোবে, সেগুলি যেন গোটা বিশ্বে গ্রহণযোগ্য হয়৷ তার মধ্যে এমন ক্ষমতা থাকা প্রয়োজন যা শুধু ভারত নয়, গোটা মানবজাতির জন্য ইতিবাচক পরিবর্তন আনবে৷'

 
Published by: Debamoy Ghosh
First published: April 19, 2020, 7:08 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर