হোম /খবর /দেশ /
CBSE-র সিলেবাস থেকে বাদ নাগরিকত্ব, ধর্মনিরপেক্ষতার মতো বিষয়,সোচ্চার মমতা

CBSE-র সিলেবাস থেকে বাদ নাগরিকত্ব, ধর্মনিরপেক্ষতার মতো বিষয়, কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্তের তীব্র প্রতিবাদ মমতার

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

বিজেপি বিরোধীদের দাবি, বেছে বেছে এমন কিছু অংশ বাদ দেওয়া হয়েছে যার পিছনে রয়েছে গেরুয়া রাজনীতি। কেন্দ্রের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে ট্যুইটে সোচ্চার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ৷

  • Last Updated :
  • Share this:

#কলকাতা: করোনার জেরে CBSE’র পাঠ্যক্রমে কাটছাঁট। কিন্তু, বেছে বেছে কেন নাগরিকত্ব, ধর্মনিরপেক্ষতার মতো অংশগুলি বাদ দেওয়া হল? প্রশ্ন তৃণমূলের। তারা এর মধ্যে গেরুয়া রাজনীতির গন্ধ পাচ্ছে। মানতে নারাজ বিজেপি। কেন্দ্রের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে ট্যুইটে সোচ্চার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ৷

২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষে নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণির পড়ুয়াদের জন্য পাঠ্যক্রমের ভার কমানোর কথা ঘোষণা করেছে CBSE। কিন্তু, যে সব অংশ বাদ দেওয়া হয়েছে তা নিয়ে বিতর্ক তুঙ্গে। বিজেপি বিরোধীদের দাবি, বেছে বেছে এমন কিছু অংশ বাদ দেওয়া হয়েছে যার পিছনে রয়েছে গেরুয়া রাজনীতি। তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় টুইটারে লিখেছেন, ‘সিলেবাসের বোঝা কমানোর নামে কেন্দ্রীয় সরকার যে ভাবে নাগরিকত্ব, যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামো, ধর্মনিরেপক্ষতা, দেশভাগের মতো বিষয়কে বাদ দিয়েছে তাতে স্তম্ভিত। তীব্র বিরোধিতা করছি। মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রককে আর্জি, কোনও মূল্যেই যেন পাঠ্যক্রমের এই সব অংশ বাদ না দেওয়া হয়।

তৃণমূলনেত্রীর সুরেই সরব হয়েছেন তৃণমূলের রাজ্যসভার দলনেতা ডেরেক ও’ব্রায়েন। ট্যুইটারে তিনি লেখেন, ‘এভাবে সিলেবাস কাটছাঁটের তীব্র বিরোধিতা করছি। আমাদের সংবিধান, গণতান্ত্রিক অধিকার এবং ইতিহাসকে ধ্বংস করতেই এরকম ভয়ঙ্কর পদক্ষেপ ৷’

বিজেপি অবশ্য তৃণমূলের অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছে। তাদের বক্তব্য, করোনা আবহে পাঠ্যক্রমের ভার কমানো হয়েছে। এ নিয়ে অযথা রাজনীতি করা হচ্ছে। করোনা আবহে নানা ইস্যুতেই পারদ চড়েছে। এবার সিলেবাসে কাটছাঁট নিয়েও রাজনৈতিক তরজা তুঙ্গে।

Published by:Elina Datta
First published:

Tags: CBSE Syllabus, Coronavirus, Mamata Banerjee