corona virus btn
corona virus btn
Loading

শ্রমিক স্পেশাল নিয়ে মতবিরোধ! এ বার উদ্ধব ঠাকরের সঙ্গে তরজায় জড়ালেন রেলমন্ত্রী

শ্রমিক স্পেশাল নিয়ে মতবিরোধ! এ বার উদ্ধব ঠাকরের সঙ্গে তরজায় জড়ালেন রেলমন্ত্রী
প্রতীকী ছবি৷

পশ্চিমবঙ্গ, ঝাড়খণ্ড, ছত্তীসগড়, রাজস্থানের মতো রাজ্যের বিরুদ্ধে শ্রমিক স্পেশাল ট্রেন চালানো নিয়ে অসহযোগিতার অভিযোগ তুলেছিল রেল৷

  • Share this:

#মুম্বই: শ্রমিক স্পেশাল ট্রেন চালানো নিয়ে রেলের সঙ্গে রাজ্যগুলির মতবিরোধ মিটছে না৷ পশ্চিমবঙ্গ, ঝাড়খণ্ড, ছত্তীসগড়, রাজস্থানের পর এবার সেই তালিকায় নতুন সংযোজন মহারাষ্ট্র৷ রাজ্যের জন্য কম ট্রেন বরাদ্দ করা হচ্ছে, মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরের এই অভিযোগের জবাব দিতে গিয়ে ট্যুইটারে তাঁর সঙ্গে রীতিমতো তরজায় জড়ালেন রেলমন্ত্রী পীযূষ গয়াল৷

রবিবার রাজ্যবাসীর উদ্দেশে বার্তা দিতে গিয়ে মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী অভিযোগ করেন, পরিযায়ী শ্রমিকদের বাড়ি পাঠানোর জন্য তাঁরা দৈনিক ৮০টি স্পেশাল ট্রেন দেওয়ার দাবি জানিয়েছিলেন৷ তার জায়গায় রেল বরাদ্দ করেছে মাত্র ৪০টি ট্রেন৷

কিছুক্ষণের মধ্যেই উদ্ধব ঠাকরের এই অভিযোগের জবাব দেন রেলমন্ত্রী৷ ট্যুইটারে তিনি পাল্টা দাবি করেন, রাজ্যগুলির দাবি অনুযায়ী ট্রেন পাঠাতে তৈরি রেল৷ কিন্তু নিশ্চিত করতে হবে সেগুলি যাতে খালি না ফেরে৷ তিনি লেখেন, 'আমি আশা করি যাত্রীদের গন্তব্য স্টেশনে পৌঁছে দেওয়ার পর আগের বারের মতো ট্রেনগুলি খালি ফিরবে না৷ আমি আপনাকে আশ্বস্ত করতে চাই, যতগুলি ট্রেন চেয়েছেন তা পাওয়া যাবে৷'

মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রীর উদ্দেশে পীযূষ গয়াল আরও লেখেন, 'মহারাষ্ট্রকে ১২৫টি শ্রমিক স্পেশাল ট্রেন দিতে আমরা তৈরি৷ আমি অনুরোধ করব, এই ট্রেনগুলি কোথা থেকে ছাড়বে, কোথায় যাবে, যাত্রীদের নামের তালিকা সহ মেডিক্যাল সার্টিফিকেট-এর মতো তথ্যগুলি এক ঘণ্টার মধ্যে সেন্ট্রাল রেলের ম্যানেজারের কাছে পাঠিয়ে দিন৷'

পরে আরও দু'টি ট্যুইট করেন রেলমন্ত্রী৷ সেখানে তিনি অভিযোগ করেন নির্দিষ্ট সময় পেরিয়ে গেলেও মহারাষ্ট্রের তরফে ১২৫টি  ট্রেনের তালিকা পায়নি রেল৷ এর আগে পশ্চিমবঙ্গ, ঝাড়খণ্ড, ছত্তীসগড়, রাজস্থানের মতো রাজ্যের বিরুদ্ধে শ্রমিক স্পেশাল ট্রেন চালানো নিয়ে অসহযোগিতার অভিযোগ তুলেছিল রেল৷ পাল্টা জবাব দিয়েছিল সংশ্লিষ্ট রাজ্যগুলিও৷ রেলের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, মহারাষ্ট্রের জন্য এখনও পর্যন্ত ৫১৩টি শ্রমিক স্পেশাল ট্রেন বরাদ্দ করা হয়েছে৷

Published by: Debamoy Ghosh
First published: May 25, 2020, 11:16 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर